কাজী রকিবুদ্দিন আহমদ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
কাজী রকিবুদ্দিন আহমদ
১১তম বাংলাদেশের প্রধান নির্বাচন কমিশনার
কাজের মেয়াদ
ফেব্রুয়ারি ২০১২ – ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৭
রাষ্ট্রপতিজিল্লুর রহমান
আব্দুল হামিদ
প্রধানমন্ত্রীশেখ হাসিনা
পূর্বসূরীএ.টি.এম. শামসুল হুদা
উত্তরসূরীকেএম নুরুল হুদা
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম২ ডিসেম্বর ১৯৪৩
চুয়াডাঙ্গা, যশোর, বেঙ্গল প্রেসিডেন্সি, British Raj Red Ensign.svg ব্রিটিশ ভারত,
(বর্তমান  বাংলাদেশ)
জাতীয়তাবাংলাদেশী
প্রাক্তন শিক্ষার্থীফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজ
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
বস্টন বিশ্ববিদ্যালয়
জর্জটাউন বিশ্ববিদ্যালয়
জীবিকাবেসামরিক কর্মচারী

কাজী রকিবুদ্দিন আহমদ একজন অবসরপ্রাপ্ত বাংলাদেশী অবসর প্রাপ্ত বেসামরিক কর্মচারী এবং বাংলাদেশের প্রাক্তন প্রধান নির্বাচন কমিশনার[১]

জন্ম ও প্রথমিক জীবন[সম্পাদনা]

কাজী রকিবুদ্দিন আহমদ ২ ডিসেম্বর ১৯৪৩ সালে যশোরে জন্মগ্রহণকরেন। তিনি একজন প্রবীণ মুক্তিযোদ্ধা।[২]

শিক্ষা জীবন[সম্পাদনা]

কাজী রকিবুদ্দিন আহমদ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রসায়নে অধ্যয়ন করেন এবং এমএসসি পরীক্ষায় প্রথম শ্রেণিতে দ্বিতীয় স্থান অর্জন করেন। ১৯৬৬ সালে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের প্রভাষক হিসাবে যোগদান করেন। পরের বছর তিনি পাকিস্তানের সিভিল সার্ভিস অফ পাকিস্তানের (সিএসপি) অফিসার হিসাবে যোগদান করেন। [২] তিনি বোস্টন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমবিএ শেষ করে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে পেশাদার প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয় সেন্টার ফর পপুলেশন স্টাডিজের রিসার্চ ফেলো হিসাবে তিনি জনসংখ্যা ও সংস্থান বিকাশে কাজ করেছিলেন। তিনি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিটাউন বিশ্ববিদ্যালয় ইনস্টিটিউট অফ ইন্টারন্যাশনাল অ্যান্ড ফরেন ট্রেড আইন ইনস্টিটিউটের আইন কেন্দ্রে বিনিয়োগ নেগোশিয়েশন কোর্স সম্পন্ন করেন। [৩]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

কাজী রকিবুদ্দিন আহমদ ১৯৭১ সালে বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধের সময় মুজিবনগর সরকারে ব্রাহ্মণবাড়িয়া উপ-বিভাগীয় কর্মকর্তা হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন এবং মুজিবনগরে প্রথম বাংলাদেশ সরকারের অধীনে উপ-সচিব এবং আঞ্চলিক প্রশাসনিক কর্মকর্তা ছিলেন। [৩] যুদ্ধের সময় তিনি ভারতের আগরতলায় আশ্রয় নেওয়া মুক্তিযোদ্ধাদের এক জোনাল সমন্বয়কারী অফিসারের দায়িত্ব পালন করেন। [৪] বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পরে তিনি বাংলাদেশী সিভিল সার্ভিসে যোগ দেন।

কাজী রকিবুদ্দিন আহমদ কুমিল্লার জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, এনজিও বিষয়ক ব্যুরোর মহাপরিচালক, ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের চেয়ারম্যান এবং বাংলাদেশ রাসায়নিক শিল্প কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের এবং বাংলাদেশ সংসদের সচিব (জাতীয় সংসদ) হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। [৪] তিনি ৩৩ বছর চাকরির পরে ২০০৩ সালে সরকারী চাকুরী থেকে অবসর গ্রহণ করেন। তাকে ৯ ফেব্রুয়ারী ২০১২ সালে বাংলাদেশের প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসেবে নিযুক্ত করা হয়। [৫]

কাজী রকিবুদ্দিন আহমদ বাংলাদেশের ৫ জানুয়ারী ২০১৪ সালের সাধারণ নির্বাচন পরিচালনা করেন, যা প্রধান বিরোধী দল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বয়কট করেছিল। [৬][৭][৮][৯] তিনি ২০১৬ সালের দেশব্যাপী জেলা পরিষদ নির্বাচনের তদারকি করেছিলেন। [১০][১১] তার নেতৃত্বে নির্বাচন কমিশন (ইসি) বিদ্যমান কাগজের জাতীয় পরিচয় পত্র কার্ড [১২] পরিবর্তন করে ১০ কোটি নাগরিকের মধ্যে মেশিন-রিডেবল স্মার্ট জাতীয় পরিচয় (এনআইডি) কার্ড বিতরণ শুরু করে এবং ভোটার তালিকা আপডেট করে। [১৩]

প্রধান নির্বাচন কমিশনার হিসাবে তার মেয়াদ ৯ ফেব্রুয়ারী ২০১৭ সালে শেষ হয়। [১৪]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Rakib made CEC"The Daily Star। ফেব্রুয়ারি ৯, ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  2. "Rakib made CEC"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১২-০২-০৯। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-১০ 
  3. "CV of Kazi Rakibuddin Ahmad" (PDF)ec.org.bd। জানুয়ারি ১০, ২০১৭ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মার্চ ১০, ২০১৭ 
  4. "2 former secys fit to be CEC"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১২-০২-০৮। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-১১ 
  5. http://www.thefinancialexpress-bd.com, Hafez Ahmed @। "Raqib Uddin new CEC"print.thefinancialexpress-bd.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-১২ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  6. "Bangladesh's bitter election boycott"BBC News (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৪-০১-০৩। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-১২ 
  7. "There was no way but to hold Jan 5 polls: Rakibuddin"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০২-০৮। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-১২ 
  8. "Adieu, KRA & Co, enough done!"Prothom Alo। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  9. "Rakibuddin claims all elections under him were fair"Prothom Alo। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  10. "Chief Election Commissioner Kazi Rakibuddin Ahmad terms Zila Parishad polls fair, peaceful"daily-sun.com (ইংরেজি ভাষায়)। The Daily Sun। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  11. "Vote counting on"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৬-১২-২২। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-১২ 
  12. "PM launches smart ID cards distribution | Dhaka Tribune"Dhaka Tribune (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৬-১০-০২। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-১২ 
  13. "Voter list updating begins tomorrow"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৫-০৭-২৪। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-১২ 
  14. "New Election Commission headed by Nurul Huda to take oath Feb 15"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]