ডুলাহাজারা সাফারি পার্ক

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ডুলাহাজারা সাফারি পার্ক
Beauty.of.Dulahazra.2.jpg
ডুলাহাজারা সাফারি পার্ক
বাংলাদেশে অবস্থান
অবস্থানচকোরিয়া উপজেলা, কক্সবাজার জেলা, চট্টগ্রাম বিভাগ, বাংলাদেশ
আয়তন৬০০ হেক্টর
স্থাপিত১৯৯৯
কর্তৃপক্ষবাংলাদেশ বন বিভাগ

ডুলাহাজারা সাফারি পার্ক (যা ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সাফারি পার্ক[১] নামেও পরিচিত) ১৯৯৯ খ্রিস্টাব্দে বাংলাদেশের কক্সবাজারের চকোরিয়া উপজেলায় প্রতিষ্ঠিত একটি সাফারি পার্ক, যেখানে পশুপাখি মুক্ত অবস্থায় বিচরণ করে।

বিবরণ[সম্পাদনা]

ডুলাহাজারা সাফারি পার্কটি কক্সবাজার জেলা সদর থেকে ৪৮ কিলোমিটার উত্তরে এবং চকরিয়া থানা থেকে ১০ কিলোমিটার দক্ষিণে,কক্সবাজার জেলা সদরের দক্ষিণ বন বিভাগের ফাসিয়াখালি রেঞ্জের ডুলাহাজারা ব্লকে অবস্থিত। মূলত হরিণ প্রজনন কেন্দ্র হিসেবে ১৯৯৯ খ্রিস্টাব্দে বাংলাদেশ বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয় কর্তৃক এই পার্কটি প্রতিষ্ঠিত হয়। এই সাফারি পার্কটি ৬০০ হেক্টর এলাকাজুড়ে বিস্তৃত।[২]

ডুলাহাজারা সাফারি পার্ককে কেউ কেউ সাফারি পার্ক বলতে রাজি নন, কারণ এখানে প্রাকৃতিক অবকাঠামোর বদলে অত্যাধুনিক ও কৃত্রিম অবকাঠামো গড়ে তোলা হয়েছে বেশি।[৩]

বাংলাদেশ বন বিভাগের দেয়া তথ্যমতে, এই পার্কটিতে বছরে প্রায় ১,০০,০০০ পর্যটক ভ্রমণ আসেন, এবং পার্কের প্রবেশ মূল্য ৳২০ (বিশ টাকা)।[২]

প্রাণীবৈচিত্র্য[সম্পাদনা]

ডুলাহাজারা সাফারি পার্ক মূলত হরিণ প্রজনন কেন্দ্র হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হলেও এখানে বাঘ, সিংহ, হাতি, ভালুক, গয়াল, কুমির, জলহস্তী, মায়া হরিণ, সম্বর হরিণ, চিত্রা হরিণ, প্যারা হরিণ প্রভৃতি প্রাণীও রয়েছে।[১] এই পার্কে স্বাদুপানির কুমির যেমন আছে, তেমনি আছে লোনা পানির কুমির[৩]

চিত্রশালা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. রিদওয়ান আক্রাম. “বনে জঙ্গলে” (প্রিন্ট), ২৫ জানুয়ারি ২০১০ খ্রিস্টাব্দ, পৃ. ৮। মার্চ ১৮, ২০১০ খ্রিস্টাব্দ তারিখে সংগৃহীত।
  2. উদ্ধৃতি ত্রুটি: অবৈধ <ref> ট্যাগ; FD নামের সূত্রের জন্য কোন লেখা প্রদান করা হয়নি
  3. শেখ রোকন. “চিড়িয়াখানা গড়ার পিছনে স্বপ্ন থাকতে হয়” (ওয়েবপেইজ), ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১০ খ্রিস্টাব্দ। মার্চ ১৮, ২০১০ খ্রিস্টাব্দ তারিখে সংগৃহীত। (বাংলা)

স্থানাঙ্ক: ২১°৪০′১২″ উত্তর ৯২°০৫′২৪″ পূর্ব / ২১.৬৭০° উত্তর ৯২.০৯০° পূর্ব / 21.670; 92.090