জসীম উদ্ দীন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(জসীমউদ্দীন থেকে পুনর্নির্দেশিত)
জসীম উদ্ দীন
Jasimuddin Lomax 1951 (2).jpg
পল্লী কবি জসীম উদ্ দীন (১৯৫১)
জন্ম (১৯০৩-০১-০১)১ জানুয়ারি ১৯০৩
তাম্বুলখানা, ফরিদপুর জেলা, বেঙ্গল প্রেসিডেন্সি, ব্রিটিশ ভারত (বর্তমানে বাংলাদেশ)
মৃত্যু ১৩ মার্চ ১৯৭৬(১৯৭৬-০৩-১৩) (৭৩ বছর)
ঢাকা, বাংলাদেশ
জীবিকা কবি, গীতিকার, লেখক, বেতার ব্যক্তিত্ব, শিক্ষক
জাতীয়তা বাংলাদেশি
শিক্ষা বাংলা সাহিত্যে বি.এ এবং এম.এ
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়
উল্লেখযোগ্য পুরস্কার

জসীম উদ্ দীন (জানুয়ারি ১, ১৯০৩ - ১৩ মার্চ, ১৯৭৬) একজন বিখ্যাত বাঙালি কবি।[১][২] তিনি বাংলাদেশে পল্লী কবি হিসেবে পরিচিত। তাঁর লেখা কবর কবিতাটি বাংলা সাহিত্যে এক অবিস্মরণীয় অবদান। পুরো নাম জসীম উদ্ দীন মোল্লা হলেও তিনি জসীম উদ্ দীন নামেই পরিচিত। নকশী কাঁথার মাঠ কবির শ্রেষ্ঠ রচনা যা বিভিন্ন ভাষায় অনূদিত হয়েছে।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

তিনি ১৯০৩ সালের পহেলা জানুয়ারি ফরিদপুর জেলার তাম্বুলখানা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার বাড়ি ছিলো একই জেলার গোবিন্দপুর গ্রামে। বাবার নাম আনসার উদ্দিন মোল্লা। তিনি পেশায় একজন স্কুল শিক্ষক ছিলেন। মা আমিনা খাতুন ওরফে রাঙাছুট।

শিক্ষাজীবন[সম্পাদনা]

জসীম উদ্ দীন ফরিদপুর ওয়েলফেয়ার স্কুল, ও পরবর্তীতে ফরিদপুর জেলা স্কুল থেকে পড়ালেখা করেন। এখান থেকে তিনি তার প্রবেশিকা পরীক্ষায় ১৯২১ সনে উত্তীর্ণ হন। তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় বাংলা থেকে বি. এ. এবং এম. এ. শেষ করেন যথাক্রমে ১৯২৯ এবং ১৯৩১ সনে।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

১৯৩৩ সনে তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ড. দীনেশ চন্দ্র সেনের অধীনে রামতনু লাহিড়ী গবেষণা সহকারী পদে যোগ দেন। এরপর ১৯৩৮ সনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগের প্রভাষক হিসেবে যোগ দেন। ১৯৬৯ সনে রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয় কবিকে সম্মান সূচক ডি লিট উপাধিতে ভূষিত করেন।

মৃত্যু[সম্পাদনা]

তিনি ১৩ মার্চ ১৯৭৬ সনে ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন। পরে তাকে তাঁর নিজ গ্রাম গোবিন্দপুরে দাফন করা হয়।

গ্রন্থাবলী[সম্পাদনা]

কাব্যগ্রন্থ

  • রাখালী (১৯২৭)
  • নকশী কাঁথার মাঠ (১৯২৯)
  • বালুচর (১৯৩০)
  • ধানখেত (১৯৩৩)
  • সোজন বাদিয়ার ঘাট (১৯৩৪)
  • হাসু (১৯৩৮)
  • রঙিলা নায়ের মাঝি(১৯৩৫)
  • রুপবতি (১৯৪৬)
  • মাটির কান্না (১৯৫১)
  • এক পয়সার বাঁশী (১৯৫৬)
  • সকিনা (১৯৫৯)
  • সুচয়নী (১৯৬১)
  • ভয়াবহ সেই দিনগুলিতে (১৯৬২)
  • মা যে জননী কান্দে (১৯৬৩)
  • হলুদ বরণী (১৯৬৬)
  • জলে লেখন (১৯৬৯)
  • কাফনের মিছিল ((১৯৮৮)
  • কবর

নাটক

  • পদ্মাপার (১৯৫০)
  • বেদের মেয়ে (১৯৫১)
  • মধুমালা (১৯৫১)
  • পল্লীবধূ (১৯৫৬)
  • গ্রামের মেয়ে (১৯৫৯)
  • ওগো পুস্পধনু (১৯৬৮)
  • আসমান সিংহ (১৯৮৬)

আত্মকথা

  • যাদের দেখেছি ((১৯৫১)
  • ঠাকুর বাড়ির আঙ্গিনায় (১৯৬১)
  • জীবন কথা ( ১৯৬৪)
  • স্মৃতিপট (১৯৬৪)

উপন্যাস

ভ্রমণ কাহিনী

  • চলে মুসাফির (১৯৫২)
  • হলদে পরির দেশে ( ১৯৬৭)
  • যে দেশে মানুষ বড় (১৯৬৮)
  • জার্মানীর শহরে বন্দরে] (১৯৭৫)

সঙ্গীত

  • জারি গান (১৯৬৮)
  • মুর্শিদী গান (১৯৭৭)

অন্যান্য

  • বাঙালির হাসির গল্প
  • ডালিমকুমার (১৯৮৬)

পুরস্কার[সম্পাদনা]

  • প্রেসিডেন্টস এওয়ার্ড ফর প্রাইড অফ পারফরমেন্স ১৯৫৮
  • একুশে পদক ১৯৭৬
  • স্বাধীনতা দিবস পুরস্কার ১৯৭৮ (মরণোত্তর)
  • ১৯৭৪ সনে তিনি বাংলা একাডেমী পুরস্কার প্রত্যাখ্যান করেন।
  • রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ডি. লিট ডিগ্রি (১৯৬৯)

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Guha, Bimal (২০১২)। "Jasimuddin"। in Islam, Sirajul; Jamal, Ahmed A.। Banglapedia: National Encyclopedia of Bangladesh (Second সংস্করণ)। Asiatic Society of Bangladesh 
  2. Ābula Phajala Śāmasujjāmāna (১৯৯২)। Who's who in Bangladesh art, culture, literature, 1901–1991। Tribhuj Prakashani। পৃ: ১১৫। সংগৃহীত ৩ আগস্ট ২০১২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]