জসিম উদ্দিন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
জসিম উদ্দিন
ভোলা-৩ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
২৯ ডিসেম্বর ২০০৮ – ১৮ অক্টোবর ২০০৯
পূর্বসূরীহাফিজ উদ্দিন আহম্মদ
উত্তরসূরীনুরুন্নবী চৌধুরী শাওন
ব্যক্তিগত বিবরণ
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
সামরিক পরিষেবা
আনুগত্য বাংলাদেশ
শাখা বাংলাদেশ সেনাবাহিনী
পদ04.maj Bd.jpg মেজর

জসিম উদ্দিন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর, রাজনীতিবিদভোলা-৩ (লালমোহন-তজুমদ্দিন) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য[১][২]

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

জসিম উদ্দিন ভোলা জেলার লালমোহন উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন।

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

জসিম উদ্দিন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর। ৩১ আগস্ট ২০০৪ সালে তাকে সেনাবাহিনী থেকে বাধ্যতামূলক অবসর দেওয়া হয়।[৩] ২৯ ডিসেম্বর ২০০৮ সালে নবম সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে তিনি ভোলা-৩ (লালমোহন-তজুমদ্দিন) আসন থেকে বিএনপির হাফিজ উদ্দিন আহমেদকে হারিয়ে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।[৪]

বিতর্ক[সম্পাদনা]

বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনে স্বাভাবিক অবসরের প্রমাণপত্র দেখিয়ে নির্বাচনে প্রার্থী হন তিনি। বাংলাদেশের গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ আইনের ১২ (চ) ধারা মতে চাকুরি থেকে অবসর গ্রহণের পর ৩ বছর এবং ১২ (ছ) ধারা মতে বাধ্যতামূলক অবসরের পর ৫ বছরের মধ্যে নির্বাচন করা যায় না এই অভিযোগ এনে হাফিজ উদ্দিন আহমেদ হাইকোর্টে জসিমের সংসদ সদস্য পদ অবৈধ ঘোষণার আবেদন জানান। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০০৯ সালে কোর্ট জসিম উদ্দিনের সংসদ সদস্য পদ অবৈধ ঘোষণা করে এবং রায়ের বিরুদ্ধে আপিল আবেদনও হাইকোর্টের আপিল বিভাগ ১৮ অক্টোবর ২০০৯ সালে খারিজ করে দিলে ফলে ভোলা-৩ আসনটি এখন শূন্য ঘোষণা হয়।[৩][৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "লালমোহন উপজেলার প্রখ্যাত ব্যক্তিত্ব"বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন। ২২ মে ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ মে ২০২০ 
  2. "জসিম উদ্দিন, আসন নং: ১১৭, ভোলা-৩, দল: আওয়ামী লীগ (নৌকা)"দৈনিক প্রথম আলো। ২৯ ডিসেম্বর ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ২২ মে ২০২০ 
  3. প্রতিনিধি (১২ নভেম্বর ২০০৯)। "'ভোলা-৩ আসন শূন্য ঘোষণায় চিঠি দিয়েছি'"বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। সংগ্রহের তারিখ ২২ মে ২০২০ 
  4. "৯ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা"জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার 
  5. নিজস্ব প্রতিবেদক (২০ অক্টোবর ২০০৯)। "শূন্য ঘোষণার ৯০ দিনের মধ্যে ভোলা-৩ আসনে নির্বাচন"দৈনিক প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২২ মে ২০২০