খান জাহানের সমাধি

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
খান জাহানের সমাধি
Front View of Tomb of Khan Jahan.jpg
বিকল্প নামখান জাহানের সমাধি
সাধারণ তথ্য
শহরবাগেরহাট
দেশবাংলাদেশ
স্বত্বাধিকারীবাংলাদেশ প্রত্নতাত্বিক অধিদপ্তর

খান জাহানের সমাধি বাগেরহাট জেলার অবস্থিত কথিত ঠাকুর দিঘি’র পাড়ের উপর অবস্থিত একটি কৃত্রিম উঁচু ঢিবি। এটি বর্তমানে খান জাহান সমাধিসৌধ কমপ্লেক্স নামেও পরিচিত । এ কমপ্লেক্স এর মধ্যে আছে খান জাহান আলীর বর্গাকার সমাধিসৌধ, রয়েছে খান জাহান আলীর ‘দেওয়ান’ মুহম্মদ তাহির এর সমাধি, এক গম্বুজবিশিষ্ট মসজিদ এবং তথাকথিত কল্পিত রান্নাঘর । খান জাহান আলী ও তার দেওয়ান এর সমাধিসৌধ-এর স্থানটি একটি দেয়াল দ্বারা বেষ্টিত।

অবস্থান[সম্পাদনা]

খান জাহানের সমাধি বাগেরহাট জেলা সদর হতে প্রায় ৪ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে ও ষাট গম্বুজ মসজিদ হতে প্রায় ২.৫ কি:মি: দক্ষিণ-পূর্বে ‘খঞ্জালী দীঘি’ বা ‘খানজাহান দীঘি’র (ঠাকুর দীঘি) উত্তর পার্শ্বে অবস্থিত হযরত খানজাহান (রহ:) এর এই সমাধি । [১]

বিবরণ[সম্পাদনা]

এই সমাধি বাইরের দিক থেকে পূর্ব-পশ্চিমে ৬৭.১ মিটার ও উত্তর-দক্ষিণে ৬৪.৭ মিটার উঁচু দেয়াল দ্বারা পরিবেষ্টিত। সমাধিসৌধটি বাইরের দিকে প্রায় ১৩.৭ মিটার এবং ভেতরের দিকে ৯.১ মিটার প্রসস্থ ইটের তৈরি একটি বর্গাকার আয়তনের ভবন, এটি দিয়েই কমপ্লেক্সের প্রধান অংশ গড়ে উঠেছে । এটির বাইরের দিকে রয়েছে চারকোণা ধরনের শক্ত গোলাকার টাওয়ার ।এই সমাধিসৌধ এর চারদিকে রয়েছে ২.৪ মিটার পুরু দেয়াল , এটি ০.৯ মিটার পর্যন্ত পাথর আস্তরন দ্বারা আবৃত করা ।[২] মুলত এটি নিচের আর্দ্রতা থেকে এই ভবনকে রক্ষার জন্য একটি কৌশল । এই সমাধিসৌধের ভেতরে প্রবেশের জন্য রয়েছে পাথরের তৈরি চারটি খিলানপথ। কিন্তু বর্তমান সময়ে উত্তর দিকের প্রবেশপথটি ইট দ্বারা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। সৌধটির ভেতরের অংশের দিকে রয়েছে ইটের তৈরি গোলার্ধ আকৃতির গম্বুজ দ্বারা ঢাকা । এই গম্বুজের দেয়ালের ভেতরে দিকে রয়েছে পাথরের ব্রাকেট এর থেকে বেরিয়ে আসা স্কুইঞ্চ । এর কোণের দিকের টাওয়ার গুলিতে আছে ঘুরানো ত্রিমাত্রিক বাঁকানো কার্নিশের বৈশিষ্ট্য, যা তৎকালীন বাংলার এক সক্রিয় স্থাপত্যরীতির পরিচায়ক । খান জাহান আলীর পাথরের তৈরি কবরটি সমাধিসৌধের একদম মাঝখানে অবস্থিত । উপরের দিকে রয়েছে চারস্তরবিশিষ্ট এবং সাধারণ কৌণিক পিপা আকৃতিতে চমৎকার সব নকশা । পাথর দ্বারা নির্মিত এর উপরের তিনটি স্তরে আরবি ও ফারসি লেখা দ্বারা আবৃত যা ধর্মীয় প্রকাশ হিসেবে করা । তবে এই লেখাগুলির অধিকাংশই এখন অস্পষ্ট । তার কবরের নিচের দুটি স্তর করা হয়েছে ইটের তৈরী। এ ইটগুলি দ্বারা ভিতরের সম্পূর্ণ মেঝে নানা বর্ণের ষড়ভুজী এবং বর্গাকার টালির নকশা করা । বর্তমানে দর্শনার্থীদের অনবরত ব্যবহার করার ফলে এই টালিগুলির আসল উজ্জ্বলতা নষ্ট হয়ে গেছে। এই পাথরের সমাধিসৌধে ব্যবহূত লিপি থেকে এটা জানা যায় যে, খান জাহান আলী ২৭ জিলহজ ৮৬৩ হিজরিতে মৃত্যুবরণ করেন। আর মৃত্যুর পূর্বেই তিনি তার সমাধি নির্মাণ করেছিলেন বলে ধারণা ।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]