জাহাজ ঘাটা হাম্মামখানা ও তৎসংলগ্ন প্রত্নতাত্ত্বিক ধ্বংসাবশেষ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান

জাহাজ ঘাটা হাম্মামখানা ও তৎসংলগ্ন প্রত্নতাত্ত্বিক ধ্বংসাবশেষ বাংলাদেশের সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলায় অবস্থিত।

অবস্থান[সম্পাদনা]

সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার খানপুর গ্রামে অবস্থিত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ষোল শতকের শেষ দশকে জাহাজঘাটা নির্মাণ করা হয় যা রাজা প্রতাপাদিত্যের নৌদুর্গ হিসেবে ব্যবহৃত হতো। যমুনা ইছামতি নদীর পূর্বপাড়ে অবস্থিত এই জাহাজঘাটায় রণতরী তৈরী ও সংস্কার করা হতো। জাহাজঘাটা ছিলো প্রতাপাদিত্যের নৌবাহিনীর পোতাশ্রয় ও প্রধান কার্যালয়। সময়ের বিবর্তনে বর্তমানে জাহাজঘাটায় একটি প্রাচীন ভবন টিকে আছে জীর্ণদশায়। উত্তর দক্ষিণে লম্বা এই ভবনে ছয়টি কক্ষ আছে। এর মধ্যে অফিস, মালখানা, শয়নাগার এবং স্নানাগার ছিলো। ছাদের গম্বুজে আলো বাতাস প্রবেশের জন্য বড় বড় ছিদ্র আছে। ঐতিহাসিকেরা মনে করেন এসব ছিদ্রে স্বচ্ছ স্ফটিক বা কাঁচ বসানো ছিলো।[১]

যাতায়াত[সম্পাদনা]

কালিগঞ্জ থেকে শ্যামনগর যাওয়ার পথে খানপুর পড়ে। পাকা রাস্তার পূর্বপাশে নৌ সেনাপতি ডুডলির নাম অনুসারে বর্তমানে দুদলি গ্রামে জাহাজ নির্মাণ ও রক্ষণাবেক্ষণের ডক ছিলো।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]