আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম

স্থানাঙ্ক: ২২°২৯′৪৮″ উত্তর ৯১°৪৩′১৭″ পূর্ব / ২২.৪৯৬৭৭৭° উত্তর ৯১.৭২১৪৪৭° পূর্ব / 22.496777; 91.721447
উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম
আন্তর্জাতিক ইসলামী্ বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম.png
নীতিবাক্যCombines quality with morality
নৈতিকতার সাথে মানকে সম্মিলিত করে
ধরনবেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়
স্থাপিত১১ ফেব্রুয়ারি, ১৯৯৫
আচার্যরাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ
উপাচার্যআনোয়ারুল আজিম আরিফ
শিক্ষায়তনিক ব্যক্তিবর্গ
৫ টি
প্রশাসনিক ব্যক্তিবর্গ
৪৩০ জন
শিক্ষার্থী১২০০০
অবস্থান,
২২°২৯′৪৮″ উত্তর ৯১°৪৩′১৭″ পূর্ব / ২২.৪৯৬৭৭৭° উত্তর ৯১.৭২১৪৪৭° পূর্ব / 22.496777; 91.721447
সংক্ষিপ্ত নামআইআইইউসি
অধিভুক্তিবিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন
ওয়েবসাইটiiuc.ac.bd

আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম সংক্ষেপে আইআইইউসি বাংলাদেশের সরকার কর্তৃক অনুমোদিত একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়[১] এটির স্থায়ী ক্যাম্পাস সীতাকুন্ডের কুমিরাতে অবস্থিত।[২] ২০০৪ সালে ইউজিসি চালিত একটি জরিপে এটি শীর্ষ ৯ টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় স্থান লাভ করে। বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয়টি ৪৩০ জন শিক্ষক (৩১৭ জন পূর্ণকালীন) ও ১২০০০ জন ছাত্র ছাত্রী রয়েছে। সর্বমোট ৬০ একর আয়তনের ক্যাম্পাস নিয়ে গঠিত।[৩] এটি বাংলাদেশের বৃহত্তম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে একটি।[৪]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রাম ট্রাস্ট (আইইউসি) এর তত্ত্বাবধানে থাকা এই বিশ্ববিদ্যালয়টি ১১ই ফেব্রুয়ারি ১৯৯৫ সালে বাংলাদেশের ১৯৯২ সালের বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় [৫][৬] আইনের আওতায় অনুমোদন লাভ করে এবং সেই বছর থেকেই এর কার্যক্রম আরম্ভ হয়।

২০১০ সালে সংশোধিত বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুযায়ী শাখা ক্যাম্পাস আইনানুগ নয় সাব্যস্ত হলে ২০১৬ সালে চট্টগ্রামের বাইরে থাকা ঢাকা ক্যাম্পাস সহ চট্টগ্রাম সিটিতে থাকা ফিমেল ক্যাম্পাস ও চকবাজারে থাকা প্রথম ক্যাম্পাস বন্ধ করে বিশ্ববিদ্যালয়টির সীতাকুণ্ডের কুমিরা ক্যাম্পাসে আই আই ইউ সি স্থিত হয়।[৭]

২০২১ সালের মার্চ মাসে আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভীকে চেয়ারম্যান করে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন ট্রাস্টি বোর্ড অনুমোদন করে সরকার। নানা অভিযোগের প্রেক্ষিতে শুরু করা একটি তদন্তে, জামায়াত নেতাদের সমন্বয়ে গঠিত প্রাক্তন ট্রাস্টি বোর্ডের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অনিয়ম ও কোটি টাকার অর্থ লোপাটের প্রমাণ পাওয়া যায়। লোপাটকৃত অর্থ জামাতে ইসলামির বিভিন্ন নেতার মামলার খরচ মেটাতে ব্যয় করা হত।[৮] ২০২২ সালের ১১ সেপ্টেম্বর বিশ্ববিদ্যালয়টির ৫ম তম সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়।[৯]

ক্যাম্পাস[সম্পাদনা]

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার

আন্তর্জাতিক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় চট্টগ্রামের স্থায়ী ক্যাম্পাস চট্টগ্রামের সীতাকুন্ড উপজেলার কুমিরায় অবস্থিত। বিশ্ববিদ্যালয়টির স্থায়ী ক্যাম্পাস মেইল ও ফিমেল একাডেমিক জোনে বিভক্ত। যেখানে, পৃথক অ্যাকাডেমিক ভবনে ছাত্র-ছাত্রীদের আলাদাভাবে পাঠদান করা হয়। সুবিশাল এলাকায় চারটি আবাসিক হল, পাঁচটিরও অধিক অ্যাকাডেমিক ভবন, পাঁচটি অনুষদ ভবন, একটি গ্রন্থাগার ভবন, কেন্দ্রীয় মসজিদ ও অডিটোরিয়াম নিয়ে চলছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমস্ত কার্যক্রম।

অনুষদ ও বিভাগসমূহ[সম্পাদনা]

বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদ[সম্পাদনা]

বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদ ভবন
সিএসই ভবন
  • কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগ
  • বিএসসি ইন ইঞ্জিনিয়ারিং [আইইবি স্বীকৃত ও প্রত্যয়িত]
    • কম্পিউটার বিজ্ঞানে পেশাদার ডিপ্লোমা (ডিসিএস)
    • কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশলে মাস্টার্স অব সায়েন্স (এমএসসি)
  • তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক্স প্রকৌশল বিভাগ
  • কম্পিউটার ও যোগাযোগ প্রকৌশল বিভাগ
  • ইলেকট্রনিক্স ও যোগাযোগ প্রকৌশল বিভাগ
  • পুরকৌশল বিভাগ
  • ফার্মাসি বিভাগ

ব্যবসায় অধ্যয়ন অনুষদ[সম্পাদনা]

ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদ ভবন
  • ব্যবসায় প্রশাসনের মাস্টার্স (এমবিএ) [নিয়মিত]
  • ব্যবসায় প্রশাসনের মাস্টার্স (এমবিএ) [নির্বাহী]
  • ব্যাংক ব্যবস্থাপনায় মাস্টার্স (এমবিএম)
  • ব্যবসায় প্রশাসনে ব্যাচেলর (বিবিএ)

আইন অনুষদ[সম্পাদনা]

আইন অনুষদ ভবন
  • ব্যাচেলর অব ল (এলএলবি অনার্স)
  • মাস্টার্স অব ল'স (এলএলএম) [১০]

চারুকলা ও মানবিক অনুষদ[সম্পাদনা]

  • ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য (ইএলএল): ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্যে মাস্টার্স অব আর্টস, ইংরেজি ভাষা শিক্ষকতায় (আরএলটি) স্নাতকোত্তর,
  • ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্যে স্নাতক (অনার্স)
  • আরবি ভাষা ও সাহিত্যে ব্যাচেলর অব আর্টস

সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ[সম্পাদনা]

  • অর্থনীতি ও ব্যাংকিংয়ে স্নাতক বি এস এস (অনার্স) [১১]
  • অর্থনীতি ও ব্যাংকিংয়ে মাস্টার্স এম এস এস
  • গ্রন্থাগার ও তথ্য বিজ্ঞানে স্নাতকোত্তর ডিপ্লোমা (পিজিডিএলআইএস)

শরীয়াহ ও ইসলামি শিক্ষা অনুষদ[সম্পাদনা]

  • কুরআন বিজ্ঞান ও ইসলামি শিক্ষা (কিউএসআইএস):
  • কুরআন বিজ্ঞান ও ইসলামি শিক্ষায় (এমকিউএসআইএস) মাস্টার্স অব আর্টস
  • কুরআন বিজ্ঞান ও ইসলামি শিক্ষা, দাওয়াহ ও ইসলামি শিক্ষায় (ডিআইএস) ব্যাচেলর অব আর্টস
  • দাওয়াহ ও ইসলামি শিক্ষায় (এমডিআইএস) মাস্টার্স অব আর্টস
  • দাওয়াহ ও ইসলামি শিক্ষায় ব্যাচেলর অব আর্টস (অনার্স) [১২]

গ্রন্থাগার[সম্পাদনা]

কাতার কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার

বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট গ্রন্থাগারের সংখ্যা ৭ টি, নিচে এই বিষয়ক আরও তথ্য দেওয়া হলো:

ক্রম গ্রন্থাগারের নাম জায়গা
কাতার কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগার, স্থায়ী ক্যাম্পাস, কুমিরা ৩৩,০০০
সিটি গ্রন্থাগার, চকবাজার, চট্টগ্রাম ৩,০০০
সিটি গ্রন্থাগার (মেয়েদের), চকবাজার, চট্টগ্রাম ২,০০০
ইংরেজি সাহিত্য সেমিনার গ্রন্থাগার, চট্টগ্রাম ১,০০০
বাণিজ্য বিভাগ সেমিনার গ্রন্থাগার, চট্টগ্রাম ৩,৫০০
স্বাস্থ্য ক্যাম্পাস গ্রন্থাগার, চট্টগ্রাম ১,৫০০

বইয়ের বিষয়ভিত্তিক পরিসংখ্যান:

ক্রম অনুষদসমূহ শিরোনাম সংখ্যা
শরিয়াহ ও ইসলামি শিক্ষা অনুষদ ৪,৯৭২ ২২,৬৬৬
বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদ ৯০৮ ২৩,৯০৯
বাণিজ্য অনুষদ ৮২৭ ২২,৬৯০
স্বাস্থ্য বিজ্ঞান অনুষদ ১৫৭ ৮০৩
কলা অনুষদ ৭৫০ ৫,৭৩৬
আইন অনুষদ ৫৬০ ২,৯০৭
সমাজ বিজ্ঞান অনুষদ ও অন্যান্য ২৩০ ৩,৯৩২
সর্বমোট ৮,৪০৪ ৮২,৬৪৩

ছাত্রাবাস[সম্পাদনা]

হযরত উসমান (রহ.) হল

এই বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের থাকার ব্যবস্থা উপলব্ধ রয়েছে। ছাত্রাবাসগুলো নিম্নরূপ (বিদেশি শিক্ষার্থীদের জন্য পৃথক ছাত্রাবাস):

স্থায়ী ক্যাম্পাস (কুমিরা):

  • হযরত আবু বকর (রা.) হল
  • হযরত উমর (রা.) হল
  • হজরত উসমান (রা.) হল
  • হজরত আলী (রা.) হল (নির্মাণাধীন)

চট্টগ্রাম শহর:

  • প্রশান্তি ভবন
লোকেশন ছাত্রাবাস সংখ্যা
শহর পুরুষ
স্থায়ী ক্যাম্পাস (কুমিরা) পুরুষ

ছাত্র সংগঠন[সম্পাদনা]

এখানে নিম্নলিখিত ছাত্র সংগঠন রয়েছে:

  • আইআইইউসি বিতর্ক সোসাইটি
  • আইআইইউসি আইন ক্লাব
  • আইইইই আইআইইউসি স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চ
  • আইআইইউসি ইইই ক্লাব
  • আইআইইউসি কম্পিউটার ক্লাব
  • আইআইইউসি টেলিকম ক্লাব
  • আইআইইউসি সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ক্লাব
  • আইআইইউসি হাদীস ক্লাব
  • আইআইইউসি রোবোটিক্স ক্লাব
  • আইআইইউসি ইবি ক্লাব
  • আইআইইউসি দাওয়াহ ক্লাব
  • আইআইইউসি কোরআন বিজ্ঞান ক্লাব
  • আইআইইউসি ফটোগ্রাফি ক্লাব
  • আইআইইউসি ক্রীড়া ক্লাব
  • আইআইইউসি সাংস্কৃতিক ক্লাব
  • আইআইইউসি ব্যবসায় ক্লাব
  • আইআইইউসি ফার্মা ক্লাব
  • আইআইইউসি ভাষা ক্লাব
  • রোভার স্কাউট

চিত্রশালা[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১৮ আগস্ট ২০১৫ তারিখে ইউজিসি
  2. http://www.iiuc.ac.bd/
  3. "IIUC History"iiuc.ac.bd। সংগ্রহের তারিখ ২৯ জুন ২০২২ 
  4. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১৬ জুন ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০ নভেম্বর ২০১০ 
  5. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ১৭ অক্টোবর ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩ জানুয়ারি ২০১৬ 
  6. http://bdlaws.minlaw.gov.bd/print_sections_all.php?id=10
  7. "আইআইইউসি'র পাঁচ ক্যাম্পাস অবৈধ, ইউজিসির সতর্কতা"banglanews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৭-১৩ 
  8. "আইআইইউসিকে যেভাবে 'লুটের মাল' বানায় জামায়াত নেতারা, ৫ কোটি টাকা হাতানোর প্রমাণ"। সংগ্রহের তারিখ ২০২১-০৭-১৩ 
  9. "পঞ্চম সমাবর্তনে আইআইইউসি'র ২৯ শিক্ষার্থীকে দেওয়া হবে চ্যান্সেলর গোল্ড মেডেল"। বাংলা নিউজ ২৪। সংগ্রহের তারিখ ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ 
  10. আইন অনুষদ, IIUC
  11. http://www.iiuc.ac.bd/Facants/factory_business_studies.html
  12. অনুষদ শরিয়াহ ও ইসলামী শিক্ষা, IIUC

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]