সূরা আল-হুজুরাত

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আল হুজুরাত
الحجرات
Sura49.pdf
শ্রেণীমাদানী সূরা
নামের অর্থবাসগৃহ
পরিসংখ্যান
সূরার ক্রম৪৯
আয়াতের সংখ্যা১৮
পারার ক্রম২৬
রুকুর সংখ্যা
← পূর্ববর্তী সূরাসূরা আল-ফাত্‌হ
পরবর্তী সূরা →সূরা ক্বাফ
আরবি পাঠ্য · বাংলা অনুবাদ

সূরা আল হুজুরাত (আরবি ভাষায়: الحجرات‎) মুসলমানদের ধর্মীয় গ্রন্থ কুরআনের ৪৯ তম সূরা, এর আয়াত অর্থাৎ বাক্য সংখ্যা ১৮ এবং এর রূকু তথা অনুচ্ছেদ সংখ্যা ২। সূরা আল হুজুরাত মদীনায় অবতীর্ণ হয়েছে।

নামকরণ[সম্পাদনা]

এই সূরাটির চতুর্থ আয়াতের إِنَّ الَّذِينَ يُنَادُونَكَ مِنْ وَرَاءِ الْحُجُرَاتِ বাক্যাংশ থেকে الْحُجُرَاتِ অংশটি অনুসারে এই সূরার নামটি গৃহীত হয়েছে; অর্থাৎ, যে সূরার মধ্যে الحجرات (‘হুজুরাত’) শব্দটি আছে এটি সেই সূরা।[১]

নাযিল হওয়ার সময় ও স্থান[সম্পাদনা]

এ সূরা বিভিন্ন পরিবেশ ও ক্ষেত্রে নাযিল হওয়া হুকুম-আহকাম ও নির্দেশনাসমূহের সমষ্টি; বিষয়বস্তুর সাদৃশ্যের কারণে এগুলোকে এখানে একত্রিত করা হয়েছে। এসব হুকুম -আহকামের বেশীর ভাগই মাদানী যুগের শেষ পর্যায়ে নাযিল হয়েছে । যেমনঃ ৪র্থ আয়াত সম্পর্কে তাফসীরকারকদের বর্ণনা হচ্ছে আয়াতটি বনী তামীম গোত্র সম্পর্কে নাযিল হয়েছিলো যার প্রতিনিধি দল এসে নবীর স্ত্রীগণের গৃহের বাইরে থেকে তাকে ডাকাডাকি শুরু করেছিলো। সমস্ত সীরাত গ্রন্থে হিজরী ৯ম সনকে এ প্রতিনিধি দলের আগমনের সময় বলে বর্ণনা করা হয়েছে। অনুরূপভাবে, ৬ষ্ঠ আয়াত সম্পর্কে বহু সংখ্যক হাদীসের বর্ণনা থেকে জানা যায় যে, তা ওয়ালী ইবনে উকবা সম্পর্কে নাযিল হয়েছিলো যাকে নবী মুস্তালিক গোত্র থেকে যাকাত আদায় করে আনতে পাঠিয়েছিলেন।

বিষয়বস্তুর বিবরণ[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "সূরার নামকরণ"www.banglatafheem.comতাফহীমুল কোরআন, ২০ অক্টোবর ২০১০। ১২ আগস্ট ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২২ জুলাই ২০১৫ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]