সূরা ইউনুস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
ইউনুস
يونس
Sura10.pdf
শ্রেণী মক্কী সূরা
নামের অর্থ নবী ইউনুস
পরিসংখ্যান
সূরার ক্রম ১০
আয়াতের সংখ্যা ১০৯
পারার ক্রম ১১
রুকুর সংখ্যা ১১
সিজদাহ্‌র সংখ্যা নেই
পূর্ববর্তী সূরা সূরা আত-তাওবাহ্‌
পরবর্তী সূরা সূরা হুদ

আরবি পাঠ্য · বাংলা অনুবাদ


সূরা ইউনুস (আরবি ভাষায়: سورة يونس‎) মুসলমানদের ধর্মীয় গ্রন্থ কুরআনের ১০ নম্বর সূরা। এই সূরাটি মক্কায় অবতীর্ণ হয়েছে এবং এর আয়াত সংখ্যা ১০৯ টি। এই সূরাটিতে কোরাআন পাক ও ইসলামের মৌলিক উদ্দেশ্যাবলী- তওহীদ, রেসালাত, আখেরাত ইত্যাদি বিষয়ের যথার্থতা বিশ্বচরাচর এবং তার মধ্যকার পরিবর্তন-পরিবর্তনশীল ঘটনাবলীর মাধ্যমে প্রমাণ দেখিয়ে ভালো করে বোদগম্য করার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সাথে সাথে কিছু উপদেশমূলক, ঐতিহাসিক ঘটনাবলী এবং কাহিনীর অবতারণা করে সে সমস্ত লোকদেরকে সতর্ক করা হয়েছে যারা আল্লাহ্‌ তাআলার এ সব প্রকাশ্য নিদর্শনসমূহের উপর একটু চিন্তা করে না।

ব্যাখ্যা[সম্পাদনা]

এই সূরার দ্বিতীয় আয়াতে রয়েছে মুশরেকদের একটি সন্দেহ ও প্রশ্নের উত্তর। সন্দেহটি ছিলো এই যে, কাফেররা তাদের মূর্খতার দারুণ সাব্যস্ত করে রেখেছিল যে, আল্লাহ্‌ তাআলার পহ্ম থেকে যে নবী বা রসূল আসবেন তিনি মানুষ হবেন না বরং তিনি মানুষ না হয়ে ফেরেশতা হওয়াটাই উচিত। কোরাআন পাক বিভিন্ন জায়গায় তাদের এই ভ্রান্ত ধারণার উত্তর বিভিন্ন প্রকারে দিয়েছেন। এক আয়াতে এরশাদ হয়েছেঃ

যমীনের উপর যদি ফেরেশতারা বাস করতো, তাহলে আমি তাদের জন্য কোন ফেরেশতাকেই রসূল বানিয়ে পাঠাতাম।

যার মূল কথা হলো এই যে, রেসালাতের উদ্দেশ্য ততহ্মণ পর্যন্ত পূর্ণ হবে না, যতহ্মণ পর্যন্ত না রসূল এবং যাদের মধ্যে রসূল পাঠানো হচ্ছে এই দুয়ের পারস্পরিক সম্পর্ক থাকে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

http://www.altafsir.com/
http://www.qtafsir.com/
http://quran-tafsir.org/
http://www.tafsir.com/
http://www.englishtafsir.com/
http://www.islamibayanaat.com/EnglishMarefulQuran.htm
http://www.searchtruth.com/tafsir/tafsir.php