বেগ (পদবি)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(বে থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বেগ রাজবংশ

বেগ উপাধির সূচনা। বেগ বা begh,baig (ফার্সি: ﺑﯿﮓ, তুর্কি: bey) তুর্কি-মঙ্গোল বংশের একটি শিরোনাম, যা বর্তমানে বংশ চিহ্নিতকরণের নামে একটি নাম হিসেবে ব্যবহৃত হয়। এর অর্থ শাসক,গোত্রপ্রধান,সেনাশাসক,চীফ বা কমান্ডার এবং পাকিস্তান, ভারত, আফগানিস্তান, বাংলাদেশ, তুরস্ক, ইরান, ককেশাস, মধ্য এশিয়া এবং পূর্ব ইউরোপ (প্রাক্তন যুগোস্লাভ) এবং বিশ্বের বিভিন্ন অঞ্চলের মধ্যে অভিজাত বংশ বা শিরোনাম হিসাবে ব্যবহৃত।

Swiss longsword, 15th or 16th century

ইস্পাতের তৈরি একটি তলুয়ারের প্রতিকৃতি যা শাসক শ্রেণীর লোকেরা সবসময় সঙ্গে রাখতো। এবং যুদ্ধ ক্ষেত্রে তা ব্যাবহার করতো।

বেগ উপাধি সূচনার ইতিহাস[সম্পাদনা]

পৃথিবীর সূচনালগ্ন থেকে মানুষ বর্বর, যাযাবর জাতি কিংবা হিংস্র জন্তু-জানোয়ারের আক্রমণ থেকে বাচতে মানুষ দলবদ্ধ/গোত্রবেধে থাকতো, যা কালের বিবর্তনে আজ বিলুপ্ত প্রায়। সময়টা ৯ম শতাব্দী (৯০০ খ্রিষ্টাব্দ) আজ থেকে প্রায় ১১০০ বছর পূর্বের কথা। সে সময়টাতে যখন মানুষ গোত্রবদ্ধ হয়ে বাস করতো আদি তুরস্কের কোনিয়া প্রদেশের বিস্তির্ণ তৃনভূমিতে ছিলো গোত্রবদ্ধ অর্গুজ-তুর্কি গোষ্টির বাস সেকালে গোত্রকে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য এবং ঐক্যবদ্ধ রাখার জন্য বায়োজ্যাষ্ট এবং যোগ্যতা সম্পন্ন কাউকে নির্বাচিত করা হতো, সে অনুযায়ী এই গোত্রেও গোত্রপতি নির্বাচন করা হলো এই গোত্র প্রধানের নাম ছিলো সেলজুক, আর তখন আদি তুরস্কের ভাষায় যুক্ত হয় "বেগ" শব্দটির যার অর্থ গোত্রপতি বা গোত্রপ্রধান, তখন সবাই সেই গোত্রপ্রধান সেলজুককে 'বেগ' বলে সম্মুদন করতে থাকে আর সেই সেলজুক নামের সাথে বেগ' শব্দটি যুক্ত হয়ে হয় সেলজুক বেগ। পরবর্তীতে উনার পুত্র মিকাইল ও গোত্রপতি হলে তাকেও বেগ' উপাধি দেয়া হয়। উপরে উল্লেখিত সেলজুক বেগ, অর্ধপৃথিবীর শাসনকর্তা মহান তুগরিল বেগ এর দাদা, মিকাইল বেগ উনার পিতা। তুগরিল বেগ ও বেগ উপাধি গ্রহণ করেন, উনাদের পরবর্তী উত্তরসূরিদের মধ্যেও এই বেগ পদবি ব্যবহৃত হতে থাকে। তুগরিল বেগ নিজ ক্ষমতা বলে গোষ্টি প্রধান থেকে, অঞ্চলিয় শাসক, তারপর অর্ধপৃথিবীর শাসক/সুলতান হওয়ার পর, উনার মহান সাম্রাজ্য শাসনের মধ্যভাগে এসে উনার দাদার নাম উনুসারে সেই সাম্রাজ্যের নাম দেন সেলজুক সাম্রাজ্য। পরবর্তীতে সেলজুক সাম্রাজ্যের সেনাবাহিনীতেও এটি ব্যবহৃত হয়, এবং সেলজুকের সব শাসকরা তাদের বংশ পরম্পরায় এটি ব্যবহার করতে তাকে।পরবর্তীতে পারস্যে,ভারতবর্ষ সহ বিভিন্ন এলাকায় বংশ পরম্পরায় বেগ বংশ ব্যাপক বিস্তৃতি লাভ করে। আরো পরবর্তীতে তুরস্কের আরেক শাসক সাম্রাজ্য উসমানীয় সাম্রাজ্যের প্রতিষ্টাতা ওসমান গাজীকেও সেলজুক সাম্রাজ্যের গুরুত্ত্বপূর্ন খানাতের দায়িত্বে থাকার কারনে সেলযুক সাম্রাজ্য কতৃক বেগ উপাধি দেওয়া হয়েছিলো।

ব্যাকরণ[সম্পাদনা]

বেগ নামটি বেগ বা বে দ্বারা ইরানি ভাষার শব্দ থেকে উদ্ভূত হয়েছে, যা প্রোটো-আর্যন * বেজ- "ঈশ্বর" থেকে এসেছে, প্রোটো-ইন্দো-ইউরোপীয় * ব্যাগ থেকে - "ঈশ্বর, দেবত্ব" * ব্যাগ-।

বেগ পরবর্তীতে অটোমান সাম্রাজ্যের সামরিক শাসন হিসাবে ব্যবহার করা হয়।

চীনে কিং রাজবংশের সময় এটিও ব্যবহার করা হয়েছিল। যখন কিং রাজবংশের জিনজিয়াং শাসন করা হয়েছিল, তখন এটিটিটিশর অঞ্চলের তুর্কিক উপজাতিদের তাদের আগের অবস্থা বজায় রাখার অনুমতি দিয়েছিল, এবং তারা কুইংয়ের কর্মকর্তাদের কর্মকর্তাদের দায়িত্ব দিয়েছিল। উচ্চ-র্যাংকিং বেজগুলি সারিটি পরাতে সক্ষম হয়।

ফার্সি ব্যবহারের জন্য, বেগ নামটি 'জাদা' (পুরুষ), 'জাদি' (মহিলা) এর ফার্সি প্রত্যয়, যা 'বাচ্চার' বা 'কন্যা' বলে পরিগণিত হয়। উদাহরণস্বরূপ: মির্জা বেগজাদা বা নূর বেগজাদি। [তুর্কি প্রয়োজন] তুর্কি ব্যবহারের জন্য, বেগ বা বে ব্যবহার করা বানানটি দেখতে খুবই সাধারণ। (কখনও কখনও, এটি শিরোনাম "মির্জ্জা" এর সাথে ব্যবহার করা হয়, যেমনটি মোগল ব্যবহারের মত)।

মোগল ব্যবহারের জন্য, সম্মানিত শিরোনাম মির্জা (ফার্সি: ﻣﺮﺯﺍ) সমস্ত পুরুষদের এবং 'বেগ' (ফার্সি: ﺑﯿﮓ ) পুরুষদের জন্য বা বেগম (ফার্সি: ﺑﮕﻮﻡ) জন্য প্রদত্ত নামের আগে যোগ করা হয়েছিল নারীদের জন্য, একটি পরিবার নাম হিসাবে যোগ করা হয়েছিল। উদাহরণস্বরূপ: মির্জা আবদুল্লাহ বেগ বা ফারজানা বেগম এই মুগল রাজবংশের বংশধরদের জন্য ঐতিহাসিক নামকরণের প্রচলন ছিল। তবে, আজকে এটি দেখা যায় না যে, মোগলদের বংশধরেরা বেগকে একটি মধ্যম নাম এবং মির্জার নাম হিসাবে বা উপনাম হিসেবে ব্যবহার করে। উদাহরণস্বরূপ: আব্দুল্লাহ বেগ মির্জা বা আবদুল্লাহ মির্জা বেগ

স্লাভিক বা বোসনিয়াক ব্যবহারের জন্য, বেগকে 'ওভিচ', 'ওভিচ', যা প্রায় 'বংশধর' শব্দটির স্লাভিক প্রত্যয় যোগ করা দেখতে দেখতে সাধারণ। যদিও শিরোনাম "বেগ" এখন বসনিয়াতে ব্যবহার করা হয় না, "বেগ" বংশদ্ভুত পরিবারগুলির ট্র্যাক রাখা হয়। কিন্তু নিজের মধ্যে "-বিজিওভিক" প্রত্যয় সম্বলিত একটি উপাধি মূলত একটি স্পষ্ট নির্দেশক নয়। উদাহরণস্বরূপ, "বেগভিক" পরিবারের বেশ কয়েকটি পরিবার আছে, কিছু উত্তম বংশধর, "Idrizbegović"। "বেগ" পরিবারের কিছু উদাহরণ হল: স্যাভোভোভিচ, রিজেনবিগোভিচ, সিসিরবেগোভিচ অন্যদিকে, "কুকাবিকা" একটি বিখ্যাত "বেগ" পরিবারের একটি উদাহরণ, যার মধ্যে শিরোনাম ছিল না।

আজও ব্যবহৃত অন্যান্য বিকল্প বানানগুলি যেমন, বে, বেগ, আতাবেগ,বেই, বেইগ, বেগ, বেক, বিকিক,begh,beg,begg,baig,bey.

বেগ রাজবংশের শাসকদের তালিকা[সম্পাদনা]

ব্যাক্তিত্ব[সম্পাদনা]

সেলজুক সাম্রাজ্য:-

সেলজুক বেগ ,বেগ রাজবংশের প্রতিষ্টাতা।

তুঘরিল বেগ, প্রথম সেলজুক সুলতান ।

চাঘরি বেগ,তুঘরিল বেগ এর শাসনকালে তিনি সেলযুক সাম্রাজ্য এর সেকন্ড-ইন-কমান্ড হিসেবে বিবেচিত।

আল্প আরসালান বেগ ,দ্বিতীয় সেলজুক সুলতান ।

মালিক বেগ ,তৃতীয় সেলজুক সুলতান।

তৈমুর সাম্রাজ্য:-

তৈমুর বেগ ,তৈমুরী সাম্রাজ্যের স্থপতি,এবং সুলতান তুঘরিল বেগ এর বংশধর।

উলুগ বেগ ,মহান শাসক/সুলতান,গনিতবিদ,জ্যোতির্বিদ

মির্জা বাবর ,মোগল সম্রাট

আফগানিস্তান:-

আবু সা'ইদ বেগ

মোহাম্মদ মুরাদ বেগ , বোখারার আমির

মীর যের বেগ এবং মীর বাবার সাহেবজাদা, বোখার আমির

উজবেকিস্তানঃঃ

ওমর সাঈখ মির্জা, ফরগনার শাসক ও বাদশাহ বাবর এর পিতা

আলবেনিয়া:-

সেকেন্দার বেগ , ডোমিনিয়াস আলবেনিয়া (আলবেনিয়া প্রভু)

আজেরবাইজান:-

জনি বেগ

মির্জা আদিগজাল বে , 19 শতকের একটি আজারবাইজান ইতিহাসবিদ ছিলেন।

মির্জা মিঞা শাহ বেগ , তার পিতার জীবনকালের সময় তৈমুর লং এর গভর্নর ছিলেন।

এলি মির্জা হাসান ওগ্লু রুজুলিয়েভ ছিলেন আজারবাইজান সোভিয়েত শিল্পী এবং পর্যায় পরিচালক এবং শিল্পী আইটেন রাজুলিয়েয়েভের পিতা।

বসনিয়া:-

ঈসা বেগ

গাজী হোসেন-বেগ

আলী বেগ

তুহান বে

তুরাহানগ্লু ওমার বে

মধ্য এশিয়া:-

শাদি বেগ

তৈমুর বেগ

কুতলুমিশ বেগ

ইংল্যান্ড:-

মোয়াজ্জাম বেগ

ভারত:-

আব্বাস আলী বেগ , ভারতীয় টেস্ট ক্রিকেটার

মাহমুদ বেগ , গুজরাটের সুলতান

মির্জা আসাদুল্লাহ বেগ

মির্জা বাবর , প্রথম মুগল সম্রাট

মির্জা মুহাম্মদ আকবর , তিনি ভারতের বৃহত্তম মুগল রাজবংশের তৃতীয় শাসক ছিলেন।

আওরঙ্গজেব

মির্জা আবুল কাসিম বাবুর বিন বায়েসনকোওর বেগ খুরসনের (1449-1457) একটি তিমুরইদ শাসক ছিলেন।

মির্জা মেহবুব বেগ , একজন ভারতীয় রাজনীতিবিদ, জম্মু ও কাশ্মির ন্যাশনাল কনফারেন্সের অন্তর্গত।

মির্জা ফারহাতুল্লাহ বেগ , হুমায়ূর এবং গদ্যের একজন উর্দু লেখক ছিলেন।

মির্জা মোহাম্মদ বেগ চিশতি কান্দানিরি হায়দরাবাদী, তিনি সুফি সাধক এবং হায়দরাবাদ দাক্ষিণ্যের মহান পণ্ডিত হিসেবে সুপরিচিত।

মির্জা ইব্রাহিম বেগ , সম্রাট জাহাঙ্গীর শাসনামলে বাংলার সুবাদার ছিলেন।

আকবর মির্জা মুগল সম্রাট অধীনে ওয়ালী বেগ Zul-Qadr ,.

তার্দি বেগ মুগল বাদশাহ আকবরের সেনাপতি ছিলেন।

মারওফ বেগ ,

বৈরাম বেগ,মোগল সেনাপতি

ইরান:-

নাদের বেগ,পারস্য সম্রাট।

উলুগ বেগ ,জ্যোতির্বিদ ও শাসক।

সুলতান ইব্রাহিম বেগ

তাতার বেগ

কাশগর:-

ইয়াকুব বেগ

পাকিস্তান:-

মির্জা আতার বেগ ইলেকট্রনিক্স এবং এম্বেডেড সিস্টেমের ক্ষেত্রে গবেষক।

জেনারেল মির্জা আসলাম বেগ , অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা (পাকিস্তান)

আদিনা বেগ 1755 থেকে 1758 সাল পর্যন্ত লাহোর, জলন্ধর ও মুবারানসহ পাঞ্জাবের গভর্নর ছিলেন।

ইদ্রিস বেগ , টেস্ট ক্রিকেট আম্পায়ার

মির্জা আজিজ আকবর বেগ

মির্জা ইকবাল বেগ একজন ক্রীড়া সাংবাদিক এবং ক্রিকেট ভাষ্যকার যিনি বর্তমানে একটি টেলিভিশন অনুষ্ঠান হোস্ট হিসেবে কাজ করেন।

মির্জা মোহাম্মদ আফজাল বেগ কাশ্মীরি রাজনীতিবিদ এবং জম্মু ও কাশ্মিরের দ্য প্রধানমন্ত্রীর লেফটেন্যান্ট ছিলেন।

মির্জা নাজির বেগ মুগল একজন অভিনেতা। তিনি কয়েকটি চলচ্চিত্র, টেলিফিল্ম, এবং টিভি নাটক সিরিজে অভিনয় করেছেন।

জেনারেল মোঃ আব্বাস বেগ

নঈম বেগ একজন ঔপন্যাসিক ও ছোট গল্প লেখক, যিনি উর্দু ও ইংরেজি ভাষায় নিবন্ধ, ছোট গল্প এবং উপন্যাস লিখেছেন।

ওবায়দুল্লাহ বেগ একজন পণ্ডিত ছিলেন, উর্দু লেখক / ঔপন্যাসিক, কলামিস্ট, মিডিয়া বিশেষজ্ঞ, এবং বিশেষ করে করাচি থেকে একটি ডকুমেন্টারি চলচ্চিত্র নির্মাতা

মির্জা রফিউদ্দিন 'রাজা' বেগ একজন কবি।

মির্জা মুহাম্মদ সোহাইব আলি বেগ একজন শিল্পপতি

মির্জা আহসান মাসুদ বেগ একজন সফল ব্যবসায়ী

নাদিম বেগ ,বাংলা ও উর্দু সিনেমার নায়ক

আইমা বেগ ,সংগীত শিল্পি

পোল্যান্ড:-

নাইমান বেগ

রাশিয়া:-

মির্জা কজেম-বে , মোহাম্মদ আলী কাজিম-বী, আজারবাইযানী এবং ইরানী বংশোদ্ভূত এক বিখ্যাত প্রাচ্যবিদ, ইতিহাসবিদ এবং দর্শনবিদ ছিলেন।

আলেকজান্ডার বেLvovich Kazembek (প্রায়ই Kazem-Bek বা Kasem- বেগ বানানো), একটি রাশিয়ান émigré এবং রাজনৈতিক কর্মী ছিল, এবং Mladorossi রাজনৈতিক গ্রুপ প্রতিষ্ঠাতা।

ইস্কান্দার বেগ Huzman বেগ Sulkiewicz, তাতার জাতিগত একটি পোলিশ রাজনীতিবিদ, সমাজতান্ত্রিক এবং স্বাধীনতা আন্দোলনের কর্মী এবং পোলিশ সমাজতান্ত্রিক দলের সহ-প্রতিষ্ঠাতা এক।

শ্রীলংকা:-

মহীদেন বেগ , একটি জনপ্রিয় শ্রীলংকা সঙ্গীতশিল্পী ছিলেন।

তুরস্ক:-

প্রথম উসমান, অটোমান সাম্রাজ্যের সুলতান

মির্জ্জা তুগে বে , ক্রিমিয়াতে একটি উল্লেখযোগ্য সামরিক নেতা এবং রাজনীতিবিদ ছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্র:-

এড বেগ , একজন আমেরিকান প্রযুক্তি কলামিস্ট।

বাংলাদেশ:-

বেলাল বেগ ,কবি ও প্রযোজক

আগা মোহাম্মদ বেগ ,সিলেটে ব্রিটিশবিরোধী স্বাধীনতা যোদ্বা।

হাজ্বী আত্তর বেগ ,মৌলভীবাজারের ব্রিটিশ কালের মুসলিমলীগ নেতা।

মন্জুরুল আলম বেগ ,ফটোগ্রাফার,

হোসেন কুলি বেগ ,সুবাদার বাংলা,বিহার ও উড়িষ্যা

জাহাঙ্গির কুলি বেগ ,সুবাদার- সুবাহ বাংলা।

মির্জা আগা বাকের,মোঘল সেনাপতি ও উড়িষ্যার বিদ্রোহ দমনকারী, মোঘলদের ক্রান্তিলগ্নে বিশ্বস্থ সেনাপতি।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

তুজুক-ই-তৈমুরী

আইন ই আকবর গ্রন্থ

বাহারিস্থান ই গায়বী গ্রন্থ

দুনিয়া কাপানো তৈমুর লঙ্

বাবরনামা

মোঘল সাম্রাজ্যের সোনালী অধ্যায়

চেঙ্গিস খান

মঙ্গল বিজেতা

ভারত উপমহাদেশের ইতিহাস

সেলজুকের পত্তন

সেলজুকনামা

ইসলামের ইতিহাস

ইসলামের সোনালী অধ্যায়

আব্বাসীয় খিলাফতের ইতিহাস

খিলাফতের ইতিকথা।

উইকিপিডিয়া (ইংরেজি)