চৌধুরী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

চৌধুরী (হিন্দি: चौधुरी; পাঞ্জাবি: ਚੈਧਰੀ; উর্দু: چودهرى‎‎; নেপালি: चौधरी) ভারত উপমহাদেশে প্রচলিত একটি পদবি। এর আক্ষরিক অর্থ “চারের মালিক”। এটি রাজকীয় বা গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির ক্ষেত্রে উত্তরাধিকার সূত্রে ব্যবহৃত সম্মানসূচক পদবি। ভারত, পাকিস্তান, বাংলাদেশে এর প্রচলন রয়েছে।

এটি সামন্ত রাজার (জমিদার) উপাধি হিসেবে ধরা হলেও আদতে এটি ছিল পদ বিশেষ — পরগনাস্থ রাজস্ব আদায়কারী জমিদার। সুলতানের আমলে একটা পরগণার মালিকানা হলে তাঁদের তাঁরা সে পরগনার 'চৌধুরী' পদে মননীতো করতেন[১]। একটা পরগনার অধীনে থাকতো কিছু তালুকা, আবার প্রত্যেকটি তালুকার অধীনে থাকতো মৌজা বা গ্রাম। একটা পরগনার প্রধান হল চৌধুরী, যাঁর অধীনে থাকতো তালুকা ও তালুক অন্তর্গত গ্রাম। এ বিষয়ে লিখিত বিবরণের মধ্যে সর্বপ্রাচীন নমুনা ১৫ শতকের। এটি সর্বপ্রথম দিল্লির সুলতানদের কর্তৃক ভারতীয় বংশোদ্ভূত সামরিক অভিজাতদের প্রদান করা হত, পরবর্তীকালে বাংলার সুলতানরাও 'চৌধুরী' দিতেন।

পরবর্তীকালে মুঘলব্রিটিশ ভারতে একটি তালুক বা জেলা সাধারণত ৮৪টি গ্রাম ও একটি কেন্দ্রীয় শহর নিয়ে গঠিত হত। তালুকদারদের কাজ ছিল খাজনা সংগ্রহ করা, প্রাদেশিক সরকারকে রসদ ও লোকবল সরবরাহ করা এবং বিভিন্ন দাপ্তরিক কাজ সম্পাদন করা। অধিকাংশ ক্ষেত্রে তালুকদাররা সংগৃহিত করের ১০% নিজস্ব প্রয়োজনে বরাদ্দ করতে পারতেন। তবে কিছু অধিক সুবিধাপ্রাপ্ত তালুকদাররা এক চতুর্থাংশ রাখার অধিকার পেতেন। এর ফলে তাদেরকে চৌধুরী পদবি দেয়া হয়। এসকল জমিদাররা ঔপনিবেশিক সময়ে নিজেদের সম্ভ্রান্ত অবস্থা বোঝাতে চৌধুরী পদবি ব্যবহার করতেন। ঐতিহ্যগতভাবে এই পদবি দ্বারা ভূমির মালিকানা স্বত্ব বোঝালেও সমসাময়িক কালে পদবি হিসেবে ব্যবহৃত হয়। পাঞ্জাবে (ভারতপাকিস্তান) জাট, গুরজাররাজপুত গোত্রগুলো এই পদবি ব্যবহার করে। এছাড়া উপমহাদেশের অন্যান্য স্থানেও এর ব্যবহার রয়েছে।

চৌধুরী পদবি যুক্ত বিখ্যাত ব্যক্তি[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]