চৌধুরী ফজলুল বারী

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ব্রিগেডিয়ার জেনারেল

চৌধুরী ফজলুল বারী
মহাপরিচালক- প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা মহাপরিদপ্তর
কাজের মেয়াদ
২০০৭ – ২০০৮
পূর্বসূরীমেজর জেনারেল এটিএম আমিন
সামরিক পরিষেবা
আনুগত্য বাংলাদেশ
শাখা বাংলাদেশ সেনাবাহিনী
কাজের মেয়াদ১৯৮৬–২০০৯
পদ08.maj gen Bd.jpgব্রিগেডিয়ার জেনারেল
Two star.jpg
কমান্ড

চৌধুরী ফজলুল বারী বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সাবেক অফিসার। প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা মহাপরিদপ্তরের (ডিজিএফআই) সাবেক মহাপরিচালক।[১] ২০০৭ সালের ‘এক/এগারো’র ওয়ান ইলেভেন পরিকল্পনা বাস্তবায়নকারী অভিযুক্ত থাকায় চাকরিচ্যুত হয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ডালাসে বসবাস করছেন।[২][৩]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) চৌধুরী ফজলুল বারী ২০০৪ সালে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ান প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর যোগ দেন এবং র‌্যাবের শেষ পদে তিনি অতিরিক্ত মহাপরিচালক ছিলেন। তিনি তৎকালীন সেনাপ্রধান জেনারেল মইন উ আহমেদকে ইমারজেন্সি দেওয়ার ব্যাপারে প্ররোচিত করেছেন। ২০০৯ সালের ১৭ মে সেনাবাহিনী থেকে অবসর নেন। পরে একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক পরিচয়ে দেশত্যাগ করেন। সর্বশেষ দুবাইয়ে অবস্থান করে একটি আন্তর্জাতিক সংস্থায় চাকরি করছেন বলে জানা যায়।[৪] এক/এগারোর সময় ক্ষমতার পালাবদলে ডিজিএফআইর ভারপ্রাপ্ত মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ফজলুল বারীর ভূমিকা ছিল গুরুত্বপূর্ণ।[৫] সেদিন বঙ্গভবনে গিয়েছিলেন সেনাপ্রধান জেনারেল মইন উ আহমেদের সঙ্গে। দীর্ঘদিন পর সেদিনের প্রেক্ষাপট নিয়ে তিনিও বলেছেন অজানা অনেক কথা।[১][৬][৭][৮][৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Brig Gen Bari absconding in army record"The Daily Star। ১০ জুন ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৪ নভেম্বর ২০১৬ 
  2. "স্থায়ী সামরিক শাসনের ছক ছিল ১-১১তে! | জাতীয় | The Daily Ittefaq"archive1.ittefaq.com.bd। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-২১ 
  3. jugantor.com। "সুপারিশ চার বছর ফাইলবন্দি | প্রথম পাতা | Jugantor"jugantor.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-২১ 
  4. "নিন্দিত এক-এগারোর এক দশক"DailyInqilabOnline (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-২১ 
  5. "কালের কণ্ঠ"Kalerkantho। ২০১৮-০৭-৩১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৭-২১ 
  6. "Crossfire killings necessary"The Daily Star। ২ অক্টোবর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ৪ নভেম্বর ২০১৬ 
  7. "Bari deserter, faces now court-martial"The Daily Star। ১৫ আগস্ট ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৪ নভেম্বর ২০১৬ 
  8. "Another Freedom Party man held"The Daily Star। ২৫ অক্টোবর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৪ নভেম্বর ২০১৬ 
  9. "Top Bangladesh Army officer seeks political asylum in US"Hindustan Times। ১০ জুন ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৪ নভেম্বর ২০১৬