হাটহাজারী উপজেলা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

স্থানাঙ্ক: ২২°৩০′৩০″ উত্তর ৯১°৪৮′৩০″ পূর্ব / ২২.৫০৮৩° উত্তর ৯১.৮০৮৩° পূর্ব / 22.5083; 91.8083

হাটহাজারী উপজেলা
BD Districts LOC bn.svg
Red pog.svg
হাটহাজারী
বিভাগ
 - জেলা
চট্টগ্রাম বিভাগ
 - চট্টগ্রাম জেলা
স্থানাঙ্ক ২২°৩০′৩০″ উত্তর ৯১°৪৮′৩০″ পূর্ব / ২২.৫০৮৩° উত্তর ৯১.৮০৮৩° পূর্ব / 22.5083; 91.8083
আয়তন ২৫১.২৮ বর্গকিমি
সময় স্থান বিএসটি (ইউটিসি+৬)
জনসংখ্যা (-----)
 - ঘনত্ব
431748
 - ১২৭৭ বর্গকিমি
পোস্টকোড 4330
মানচিত্র সংযোগ: Official Map of Hathazari

হাটহাজারী বাংলাদেশের চট্টগ্রাম জেলার অন্তর্গত একটি উপজেলা

অবস্থান[সম্পাদনা]

হাটহাজারী উপজেলার অবস্থান উত্তর অক্ষাংশের ২২°৫০৮৩' এবং ৯১°৮০৮৩' পূর্ব দ্রাঘিমাংশের মধ্যে। এর পশ্চিমে দীর্ঘ পাহাড়ের সারি ও পূর্বে হালদা নদী বহমান। এ উপজেলার উত্তর-পুর্বে ফটিকছড়ি উপজেলা, পূর্বে হালদা নদীরাউজান উপজেলা, দক্ষিণে চট্টগ্রাম মহানগরীর চান্দগাঁও থানা ও পাঁচলাইশ থানা, পশ্চিমে সীতাকুণ্ড উপজেলাচন্দ্রশেখর পাহাড়জালালাবাদ পাহাড় অবস্থিত।

প্রশাসনিক এলাকা[সম্পাদনা]

হাটহাজারী উপজেলায় মোট ১৫ টি ইউনিয়ন আছে

যথাঃ বুড়িশ্চর, ছিপাতলী, চিকনদণ্ডি, দক্ষিণ মাদার্সা, ধলই, ফতেহপূর, ফরহাদাবাদ, গড়দুয়ারা, গুমান মর্দন, হাটহাজারী, মেখল, মীর্জাপূর, নাঙ্গল মোড়া, শিকারপূর, উত্তর মাদার্সা

ইতিহাস[সম্পাদনা]

হাটহাজারী উত্তর চট্টগ্রাম এর এক ঐতিহাসিক ও গুরুত্বপূর্ণ উপজেলা। এক ঐতিহাসিক ঘটনার প্রেক্ষিতে হাটহাজারীর নামকরণ করা হয়। এর পূর্ব নাম ছিল আওরঙ্গবাদ। বর্তমান হাটহাজারী, উত্তর রাউজানফটিকছড়ি নিয়ে আওরঙ্গবাদ গঠিত। আওরঙ্গবাদ পরগনায় চট্টগ্রামে মোগল শাসনাধীন হওয়ার পর থেকেই মসনদধারী প্রথা চালু করে বারজন হাজারীকে অভ্যন্তরীণ শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষা ও বহিঃশত্রুর হাত থেকে রক্ষার দায়িত্ব বন্টন করা হয়েছিল। আমলাতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার কারণে তৎকালীন কেন্দ্রীয় সরকার মুর্শিদাবাদ এর নবাবের আদেশ অমান্য ও অগ্রাহ্য করে হাজারীগণ দায়িত্ব পালনে অবহেলা করতে থাকেন এবং নবাবের বিরুদ্ধাচরণ করেন। চট্টগ্রামে নবাবের প্রতিনিধি মহাসিংহ হাজারীগণের ক্ষমতা খর্ব করতে এক কূটকৌশলের আশ্রয় নিয়ে প্রতারণা করে সীতাকুন্ডে নবাবের কাচারিতে দাওয়াত নিয়ে যান। তিনি বিশ্বাসঘাতকতা করে আটজন হাজারীকে বন্দি করতে সমর্থ হন। বারজন হাজারীর মধ্যে দক্ষিণ চট্টগ্রামের দুইজন নবাবের বশ্যতা স্বীকার করায় তাঁদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়। বাকি দশজনের মধ্যে আটজনকে বন্দি অবস্থায় মুর্শিদাবাদের নবাবের দরবারে পাঠিয়ে দেয়া হয়। দুইজন হাজারী পালিয়ে প্রাণরক্ষা করেন। মুর্শিদাবাদের নবাব আটজন হাজারীকে লোহার পিঞ্জরে বন্দি করে গঙ্গা নদীতে ডুবিয়ে হত্যার আদেশ দেন। ফলে উত্তর চট্টগ্রামে হাজারীদের ক্ষমতা খর্ব হয়ে পড়ে। বেঁচে যাওয়া হাজারীদের মধ্যে বীরসিংহ হাজারী যে হাট প্রতিষ্ঠা করেন তাকেই আজকের হাটহাজারী বলা হয়। তখন ফার্সি ভাষা প্রচলন ছিল বলে এই হাটটি “হাটে হাজারী” বা “হাটহাজারী” নামে পরিচিতি লাভ করে।

জনসংখ্যার উপাত্ত[সম্পাদনা]

আয়তন = ২৫৫ বর্গ কিলোমিটার
জনসংখ্যা = ৪,৩১,৭৪৮ জন (প্রায়)
পুরুষ = ২,১৫,২০১ জন (প্রায়)
মহিলা = ২,১৬,৫৪৭ জন (প্রায়)

শিক্ষা[সম্পাদনা]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

দর্শনীয় স্থান[সম্পাদনা]

কৃতী ব্যক্তিত্ব[সম্পাদনা]

বিবিধ[সম্পাদনা]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]


বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]