বেলফোর ঘোষণা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
Balfour Declaration
Balfour portrait and declaration.JPG
বেলফোর ও ঘোষণার ছবি
তৈরি২ নভেম্বর ১৯১৭
স্বাক্ষরকারীআর্থা‌র জেমস বেলফোর
উদ্দেশ্যব্রিটিশ সরকারের কাছ থেকে ফিলিস্তিনে ইহুদি জাতীয় আবাসভূমি প্রতিষ্ঠার জন্য সমর্থনের নিশ্চয়তা।

বেলফোর ঘোষণা (তারিখ ২ নভেম্বর ১৯১৭) হল ব্রিটিশ ইহুদি সম্প্রদায়ের একজন নেতা ব্যারন রথচাইল্ডের কাছে যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্র সচিব আর্থার জেমস বেলফোরের লেখা একটি চিঠি। জায়নিস্ট ফেডারেশন অব গ্রেট ব্রিটেন এন্ড আয়ারল্যান্ড নামক সংগঠনের কাছে পাঠানোর জন্য চিঠিটি তাকে দেয়া হয়।

His Majesty's government view with favour the establishment in Palestine of a national home for the Jewish people, and will use their best endeavours to facilitate the achievement of this object, it being clearly understood that nothing shall be done which may prejudice the civil and religious rights of existing non-Jewish communities in Palestine, or the rights and political status enjoyed by Jews in any other country.[১]

একসপ্তাহ পর ৯ নভেম্বর ১৯১৭ চিঠিটি পত্রিকায় প্রকাশিত হয়।[২] "বেলফোর ঘোষণা" পরবর্তীতে উসমানীয় সাম্রাজ্যের সাথে সেভ্রেস শান্তি চুক্তিফিলিস্তিনের মেন্ডেটে অন্তর্ভুক্ত করা হয়। মূল কপিটি ব্রিটিশ লাইব্রেরীতে সংরক্ষিত আছে।

পূর্ব ঘটনা[সম্পাদনা]

প্রারম্ভিক ব্রিটিশ সমর্থন[সম্পাদনা]

ফিলিস্তিন অঞ্চলে ইহুদিদের উপস্থিতি বৃদ্ধির জন্য প্রথম দিকে ব্রিটিশ রাজনৈতিক সমর্থন ভূ-রাজনৈতিক গণনার উপর ভিত্তি করে করা হয়।[৩]: এই সমর্থন ১৮৪০ এর দশকে শুরু হয়[৪]:৪২ এবং মিশরের বিচ্ছিন্নতাবাদী অটোমান গভর্নর মুহাম্মদ আলী সিরিয়া ও ফিলিস্তিন দখলের পর লর্ড পামারস্টনের নেতৃত্বে এটি শুরু হয়।[৫]:৫-৯[৬]:৮-৯

প্রথম বিশ্বযুদ্ধ[সম্পাদনা]

১৯১৪ সালে ইউরোপে ত্রিপক্ষীয় আতাত (ব্রিটেন, ফ্রান্সরুশ সাম্রাজ্য) ও অক্ষশক্তির মধ্যে (জার্মানি, অস্ট্রিয়া-হাঙ্গেরি, একই বছরে কিছুকাল পর উসমানীয় সাম্রাজ্য এতে যোগ দেয়) যুদ্ধ বেধে যায়। পশ্চিম রণাঙ্গনের যুদ্ধ একটি অচলাবস্থা সৃষ্টি করে। জোনাথন স্কিনার লিখেছেন:

Thus the view from Whitehall early in 1916: If defeat was not imminent, neither was victory; and the outcome of the war of attrition on the Western Front could not be predicted. The colossal forces in a death-grip across Europe and in Eurasia appeared to have canceled each other out. Only the addition of significant new forces on one side or the other seemed likely to tip the scale. Britain's willingness, beginning early in 1916, to explore seriously some kind of arrangement with "world Jewry" or "Great Jewry" must be understood in this context.[৭]

জায়নবাদ[সম্পাদনা]

ইউরোপে ইহুদি-বিদ্বেষী ও বর্জনীয় জাতীয়তাবাদী আন্দোলনের প্রতিক্রিয়ায় ঊনবিংশ শতাব্দীর শেষভাগে ইহুদিবাদের উদ্ভব ঘটে।[৮]:২৯-৩১[৯]:২১১[১০]:৮৩

হুসাইন-ম্যাকমোহন চুক্তি[সম্পাদনা]

সাইকস-পিকট চুক্তি[সম্পাদনা]

ঘোষণার প্রণোদনা[সম্পাদনা]

ব্রিটিশ সরকার[সম্পাদনা]

ওয়েইজমেন-বেলফোর সম্পর্ক[সম্পাদনা]

ইহুদি জাতীয় আবাসভূমি ও ইহুদি রাষ্ট্র[সম্পাদনা]

লেখক[সম্পাদনা]

ঘোষণার প্রতিক্রিয়া[সম্পাদনা]

আরব প্রতিপক্ষ[সম্পাদনা]

জায়নবাদি প্রতিক্রিয়া[সম্পাদনা]

ব্রিটিশ মতামত[সম্পাদনা]

অক্ষশক্তির প্রতিক্রিয়া[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

নোট[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Yapp, M.E. (১ সেপ্টেম্বর ১৯৮৭)। The Making of the Modern Near East 1792–1923। Harlow, England: Longman। পৃষ্ঠা 290আইএসবিএন 978-0-582-49380-3 
  2. Schneer, Jonathan। The Balfour Declaration: The Origins of the Arab-Israeli Conflict। পৃষ্ঠা 342। 
  3. Renton, James (২০০৭-১০-১৭)। The Zionist Masquerade: The Birth of the Anglo-Zionist Alliance 1914-1918 (ইংরেজি ভাষায়)। Palgrave Macmillan। আইএসবিএন 978-0-230-54718-6 
  4. Scholch, Alexander (১৯৯২)। "Britain in Palestine, 1838-1882: The Roots of the Balfour Policy"Journal of Palestine Studies22 (1): 39–56। জেস্টোর 2537686ডিওআই:10.2307/2537686 
  5. Stein, Leonard, 1887-1973. (১৯৮৩)। The Balfour Declaration। Jerusalem: Magnes Press, Hebrew University। আইএসবিএন 965-223-448-6ওসিএলসি 24429177 
  6. Liebreich, Freddy (২০০৪-১০-০৭)। Britain's Naval and Political Reaction to the Illegal Immigration of Jews to Palestine, 1945-1949 (ইংরেজি ভাষায়)। Routledge। আইএসবিএন 978-1-135-76694-8 
  7. Schneer, Jonathan। The Balfour Declaration: The Origins of the Arab-Israeli Conflict। পৃষ্ঠা 152। 
  8. Cohen, Michael J. (১৯৮৯-০৪-১৪)। The Origins and Evolution of the Arab-Zionist Conflict (ইংরেজি ভাষায়)। University of California Press। আইএসবিএন 978-0-520-90914-4 
  9. LeVine, Mark; Mossberg, Mathias (২০১৪-০৬-২০)। One Land, Two States: Israel and Palestine as Parallel States (ইংরেজি ভাষায়)। Univ of California Press। আইএসবিএন 978-0-520-95840-1 
  10. Gelvin, James L. (২০০৫)। The Israel-Palestine Conflict: One Hundred Years of War (ইংরেজি ভাষায়)। Cambridge University Press। আইএসবিএন 978-0-521-85289-0 

আরও পড়ুন[সম্পাদনা]

External links[সম্পাদনা]