তায়রুন্নেসা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
তায়রুন্নেসা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজ
তায়রুন্নেসা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজের লোগো.png
তায়রুন্নেসা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজের লোগো
ধরনমেডিকেল কলেজ
স্থাপিত২০০২ (2002)
প্রাতিষ্ঠানিক অধিভুক্তি
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
চেয়ারম্যানজাহানারা হক
অধ্যক্ষডা. আব্দুল খালেক আকন্দ
শিক্ষায়তনিক ব্যক্তিবর্গ
১৪৩
শিক্ষার্থী৭০০
অবস্থান
কুনিয়া
, ,
২৩°৫৫′৪৯″ উত্তর ৯০°২৩′২০″ পূর্ব / ২৩.৯৩০৩° উত্তর ৯০.৩৮৮৮° পূর্ব / 23.9303; 90.3888স্থানাঙ্ক: ২৩°৫৫′৪৯″ উত্তর ৯০°২৩′২০″ পূর্ব / ২৩.৯৩০৩° উত্তর ৯০.৩৮৮৮° পূর্ব / 23.9303; 90.3888
শিক্ষাঙ্গনশহর
ভাষাইংরেজি
ওয়েবসাইটtmmch.com

তায়রুন্নেসা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজ হল বাংলাদেশের একটি বেসরকারি মেডিকেল স্কুল। এটি তায়রুন্নেসা মেমোরিয়াল মেডিকেল সেন্টারের একটি প্রতিষ্ঠান। এটি প্রতিষ্ঠা করেছিলেন মোহাম্মদ শামসুল হক, তাঁর মা সমাজ সংস্কারক প্রয়াত তায়রুন্নেসার নামানুসারে। বালাগঞ্জেও তার নামে একটি বালিকা বিদ্যালয় রয়েছে। ২০০২ সালে এটি গাজীপুর জেলাগাজীপুর সদর উপজেলায় প্রতিষ্ঠিত হয়। এটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অধিভুক্ত একটি কলেজ।

এটি পাঁচ বছর মেয়াদী কোর্স শেষে এমবিবিএস ডিগ্রি প্রদান করে। স্নাতক পরবর্তী এক বছরের ইন্টার্নশিপ সমস্ত স্নাতকদের জন্য বাধ্যতামূলক। ডিগ্রীটি বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিল স্বীকৃত।[১]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৪৩ সালের জানুয়ারীতে এম শামসুল হক মৌলভীবাজার জেলার রাজনগরের হামনদপুরে জন্মগ্রহণ করেন। মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের তার নিজস্ব একটি ছোট জাহাজের মাধ্যমে দেশ ছেড়ে পালাতে সহায়তা করেছিলেন। ১৯৭৭ সালে তিনি বালাগঞ্জে তায়রুন্নেসা উচ্চ বালিকা বিদ্যালয় নামে একটি স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন। সেইখানেই পরিবর্তীতে কলেজটি স্থাপিত হয়েছিল।[২]

অবকাঠামো[সম্পাদনা]

তায়রুন্নেসা মেমোরিয়াল মেডিকেল কলেজ প্রাঙ্গণে ৫০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল রয়েছে। কলেজটি ৯ তলা বিশিষ্ট ভবন। কলেজে একটি মহিলা হোস্টেল এবং ছেলেদের একটি ছাত্রাবাস রয়েছে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. BM&DC (info@bmdc.org.bd)। "BM&DC"Bangladesh Medical & Dental Council (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-১০-২৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-১২-১০ 
  2. "History"Tairunnessa Memorial Medical College & Hospital (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৬-৩০ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]