ড্যারিল কালিনান

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ড্যারিল কালিনান
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামড্যারিল জন কালিনান
জন্ম (1967-03-04) ৪ মার্চ ১৯৬৭ (বয়স ৫২)
কিম্বার্লি, কেপ প্রদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২৫৩)
২ জানুয়ারি ১৯৯৩ বনাম ভারত
শেষ টেস্ট২৩ এপ্রিল ২০০১ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ২৫)
৯ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৩ বনাম পাকিস্তান
শেষ ওডিআই৪ নভেম্বর ২০০০ বনাম নিউজিল্যান্ড
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৮৩-১৯৮৫বর্ডার
১৯৮৪-১৯৮৫ইম্পালাস
১৯৮৫-১৯৯১ওয়েস্টার্ন প্রভিন্স
১৯৯১-১৯৯৭ট্রান্সভাল
১৯৯৫ডার্বিশায়ার
১৯৯৭-২০০৩গটেং
২০০১কেন্ট
২০০৩-২০০৪ইস্টার্নস
২০০৪-২০০৫টাইটান্স
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ৭০ ১৩৮ ২৪৬ ৩৩০
রানের সংখ্যা ৪৫৫৪ ৩৮৬০ ১৬২৬১ ৮৮২৪
ব্যাটিং গড় ৪৪.২১ ৩২.৯৯ ৪৪.৭৯ ৩২.৩২
১০০/৫০ ১৪/২০ ৩/২৩ ৪৪/৭৯ ৯/৪৯
সর্বোচ্চ রান ২৭৫* ১২৪ ৩৩৭* ১২৭*
বল করেছে ১২০ ১৭৪ ৯৯২ ৩৭৮
উইকেট ১০
বোলিং গড় ৩৫.৫০ ২৪.৮০ ৪৮.৬০ ৩৮.৬২
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ১/১০ ২/৩০ ২/২৭ ২/৩০
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৬৭/– ৬২/– ২৪৫/– ১৫৫/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২৬ নভেম্বর ২০১৭

ড্যারিল জন কালিনান (ইংরেজি: Daryll Cullinan; জন্ম: ৪ মার্চ, ১৯৬৭) কেপ প্রদেশের কিম্বার্লিতে জন্মগ্রহণকারী সাবেক ও প্রথিতযশা দক্ষিণ আফ্রিকান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় ক্রিকেট দলের পক্ষে টেস্ট ও একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশ নিয়েছেন। দলে ড্যারিল কালিনান মূলতঃ ব্যাটসম্যান হিসেবে ভূমিকা রাখেন। অবসর পরবর্তীকালে ইন্ডিয়ান ক্রিকেট লীগে কলকাতা টাইগার্সের কোচের দায়িত্ব পালন করেন।

শৈশবকাল[সম্পাদনা]

মাত্র ১৬ বছর বয়সে সর্বকনিষ্ঠ দক্ষিণ আফ্রিকান হিসেবে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলায় সেঞ্চুরি করেন। এছাড়া, ঐ সময়ে ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অপরাজিত ৩৩৭* রান করে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়েন। ১৯৮৩ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিদ্যালয়ের ছাত্রদের নিয়ে গঠিত আলবাট্রসেস দলের সদস্যরূপে ইংল্যান্ড গমন করেছিলেন। ঐ দলটিতে বর্ষসেরা ক্রিকেটার মার্ক রাশমেয়ার, ডেভ রান্ডল, ডেভ কালাহান, মেরিক প্রিঙ্গলসালিয়েগ ন্যাকারডিয়েনের ন্যায় তারকা খেলোয়াড়ের অংশগ্রহণ ছিল।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে প্রায় ২০ বছরকাল নিজেকে সম্পৃক্ত রাখেন। কালামারি খাবার রান্না বন্ধ রাখার সাথে তিনি জড়িত ছিলেন যা অপ্রত্যাশিত ছিল। দক্ষিণ আফ্রিকার আঞ্চলিক খেলায় সতীর্থ আন্তর্জাতিক খেলোয়াড় রজার টেলেমাচাসের বলে ছক্কা হাঁকান ও রান্নাঘরে ঢুকে যায়। উইজডেন এ প্রসঙ্গে জানায় যে, বলটি ফুটন্ত কড়াইয়ের মাঝখানে পড়ে। বলটি ঠাণ্ডা করতে প্রায় দশ মিনিট সময় লাগে। কিন্তু বলটি খেলার অনুপযোগী হওয়ায় আম্পায়ারগণ নতুন বল ব্যবহার করতে বাধ্য হন।[১]

টেস্ট ক্রিকেট[সম্পাদনা]

টেস্টে তার নিজস্ব সর্বোচ্চ রান ২৭৫ যা দক্ষিণ আফ্রিকান রেকর্ড হিসেবে বিবেচিত ছিল। পরবর্তীকালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে হাশিম আমলা অপরাজিত ৩১১* রান করে ভেঙ্গে ফেলেন। কালিনানের টেস্ট রানের গড় ছিল ৪৪.২১। পরবর্তীতে আরও নয়জন দক্ষিণ আফ্রিকান তাকে অতিক্রম করেন। হেরাল্ড সান কালিনানের শেন ওয়ার্ন ভীতির কথা তুলে ধরে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তিনি মাত্র ১২.৭৫ রান গড়ে রান তোলে চারবার শেন ওয়ার্নের শিকারে পরিণত হন।[২] এছাড়াও একদিনের আন্তর্জাতিকে আটবার আউট হন।[৩]

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

কালিনানের ভাই ওয়ারেন ওজা রাস্কোতে একটি রেস্তোঁরার পরিচালক। ভার্জিনিয়া নাম্নী এক রমণীর পাণিগ্রহণ করেন। পরবর্তীতে তার সাথে বিবাহ-বিচ্ছেদ ঘটে। আইডেন ও জেমস নামে তাদের দুই সন্তান রয়েছে।

ড্যারিল কালিনানের খেলোয়াড়ী জীবনের পারিসাংখ্যিক চিত্র।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]