কবি নজরুল সরকারী কলেজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(কবি নজরুল সরকারি কলেজ থেকে পুনর্নির্দেশিত)
Jump to navigation Jump to search
কবি নজরুল সরকারি কলেজ, ঢাকা
Kabi Nazrul Government College logo.jpg
কেএনজিসি
নীতিবাক্য শিক্ষাই আলো
ধরন সরকারি
স্থাপিত ১৮৭৪
প্রতিষ্ঠাতা (হাজী) মুহাম্মদ মহসিন - বাংলা এর ইতিহাসে সবচেয়ে উচ্চতাম্পন্ন জনহিতৈষীবৃন্দের মধ্যে একজন
অধিভুক্তি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (বিশ্ববিদ্যালয় শাখা), ঢাকা শিক্ষা বোর্ড (কলেজ শাখা)
অধ্যক্ষ অধ্যাপক আই কে সেলিম উল্লাহ খন্দকার
প্রশাসনিক কর্মকর্তা
১৪৮ (প্রথম শ্রেণী - ০৩, দ্বিতীয় শ্রেণী - ৭৮, ৩য় শ্রেণী - ২৭, ৪র্থ শ্রেণী - ৪০)
শিক্ষার্থী ৩৩,০০০+ [১]
স্নাতক বিএ, বিবিএ, বিএসসি, বিএসএস
স্নাতকোত্তর এমএ, এমবিএ, এমএসসি, এমএসএস
অবস্থান ঢাকা
শিক্ষাঙ্গন শহুরে, ১৮ একর
সংক্ষিপ্ত নাম KNGC
ক্রীড়া ফুটবল, ক্রিকেট, বাস্কেটবল, ভলিবল, পিংপং, হকি, ব্যাডমিন্টন
ওয়েবসাইট kncollege.gov.bd

কবি নজরুল সরকারি কলেজ (এছাড়াও কেএনজিসি হিসাবে উল্লেখ করা হয়) সরকারি কবি নজরুল কলেজ হিসেবেও পরিচিত, হলো বাংলাদেশের একটি প্রাচীনতম শীর্ষস্থানীয় ও ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।[২] এই প্রতিষ্ঠানটি ১৮৭৪ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে। ১৯৯২ সাল থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ছিল। এই কলেজটি ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ খ্রিস্টাব্দে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হয়।[৩]

প্রতিষ্ঠার পটভূমি[সম্পাদনা]

হাজী মুহম্মদ মোহসীন ফান্ডের আর্থিক সহায়তায় ১৮৭৪ সালে ঢাকায় কলকাতা মাদ্রাসার আদলে মোহসীনিয়া মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠিত হয় এবং পরে এটি ঢাকা মাদ্রাসা নামে প্রসিদ্ধ হয়। এটি ছিল পূর্ববাংলার মুসলমানদের জন্য প্রথম সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। এ মাদ্রাসার প্রথম সুপারিনটেন্ডেন্ট ছিলেন পন্ডিত ও ভাষাবিদ বাহারুল উলুম মাওলানা ওবায়দুল্লাহ আল ওবায়দী সোহরাওয়ার্দী। ১৯১৫ সাল পর্যন্ত হাজী মুহম্মদ মোহসীন ফান্ড থেকে এই মাদ্রাসার ব্যয় নির্বাহ করা হয়। উক্ত সালে এটি উচ্চ মাদ্রাসায় রূপান্তরিত হয়।

১৯১৬ সালে মাদ্রাসার অ্যাংলো-পার্সিয়ান বিভাগটি পৃথক হয়ে ঢাকা গভর্নমেন্ট মুসলিম হাই স্কুল নাম ধারণ করে। ১৯২৩ সালে মাদ্রাসা ইসলামিক ইন্টারমিডিয়েট কলেজে রূপান্তরিত হয় এবং ১৯৬৮ সালে কলেজের নামকরণ হয় সরকারি ইসলামিয়া কলেজ। আবার নাম পরিবর্তন করে ১৯৭২ সালে বাংলাদেশের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের নামে কলেজটির নতুন নামকরণ হয় কবি নজরুল সরকারি কলেজ এবং একই বছর এটি ডিগ্রি কলেজে উন্নীত হয়। ১৯৭৮ সালে কলেজে সহশিক্ষার প্রচলন হয়। কলেজে একটি গ্রন্থাগার রয়েছে। কলেজের গ্রন্থাগারটি ৪০,০০০+ বইয়ে সমৃদ্ধ। কলেজের একটি আবাসিক ছাত্রাবাস রয়েছে। ফরাশগঞ্জের মোহিনীমোহন দাস লেনে কলেজ ছাত্রাবাসটি অবস্থিত। এটি স্বাধীনতা সংগ্রামে শহীদ ছাত্র শামসুল আলমের নামে নামকরণ করা হয় শহীদ শামসুল আলম ছাত্রাবাস।

বিভিন্ন অনুষদ ও বিভাগ প্রতিষ্ঠার ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৭৯ সালে কলেজটিতে বিজ্ঞান, মানবিকবাণিজ্য শাখায় স্নাতক পর্যায়ের শিক্ষা চালু হয়। ১৯৮৫ সালে কলেজে ইসলামিক স্টাডিজ বিষয়ে প্রথম স্নাতক (সম্মান) কোর্স খোলা হয়। ১৯৯৩ সালে কলেজে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে আরবি, ইসলামিক স্টাডিজ ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ে ১ম পর্ব মাস্টার্স কোর্স চালু হয়। কলেজটিতে ১৯৮২ সালে বিএনসিসি কন্টিনজেন্ট এবং রোভার স্কাউট ব্যবস্থা চালু হয়। ২০০৪ সালে এই কলেজে বাংলা, অর্থনীতি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, দর্শন, ইতিহাস, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়ন, গণিত, প্রাণিবিদ্যা, উদ্ভিদবিদ্যা ও ভূগোলসহ মোট ১২টি বিষয়ে অনার্স কোর্স চালু হয়। ১৯৯৭ সালে হিসাববিজ্ঞানে ১ম পর্ব মাস্টার্স এবং হিসাববিজ্ঞান, ব্যবস্থাপনা ও ইংরেজি বিষয়ে অনার্স কোর্স খোলা হয়। ২০০৬ সালে বাংলায় ১ম পর্ব স্নাতকোত্তর কোর্স চালু হয়। বর্তমানে কলেজে মোট ২৪টি বিষয়ে অনার্স, ৫টি বিষয়ে ১ম পর্ব মাস্টার্স এবং ৪টি বিষয়ে শেষ পর্ব মাস্টার্স কোর্স চালু রয়েছে।

অনুষদ ও বিভাগ[সম্পাদনা]

কলা এবং মানবিক অনুষদ[সম্পাদনা]

এই অনুষদটি নিম্নলিখিত বিভাগের জন্য গঠিত:

  • বাংলা বিভাগ
  • ইংরেজী বিভাগ
  • অর্থনীতি বিভাগ
  • রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ
  • ইতিহাস বিভাগ
  • ইসলামের ইতিহাস এবং সংস্কৃতি বিভাগ
  • দর্শনশাস্ত্র বিভাগ
  • সমাজবিজ্ঞান বিভাগ
  • আরবি সাহিত্য বিভাগ
  • পালি বিভাগ
  • সংস্কৃত বিভাগ
  • ব্যবস্থাপনা বিভাগ

বিজ্ঞান অনুষদ[সম্পাদনা]

এই অনুষদটি নিম্নলিখিত বিভাগ সমূহ নিয়ে গঠিত:

  • পদার্থবিজ্ঞান বিভাগ
  • রসায়ন বিভাগ
  • উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগ
  • প্রাণিবিজ্ঞান বিভাগ
  • স্থিতিবিদ্যা বিভাগ
  • গণিত বিভাগ
  • ভূগোল বিভাগ
  • মনোবিজ্ঞান বিভাগ
  • কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগ

বাণিজ্য অনুষদ[সম্পাদনা]

এই অনুষদটি নিম্নলিখিত বিভাগ সমূহ নিয়ে গঠিত:

  • হিসাববিজ্ঞান বিভাগ
  • ব্যবস্থাপনা বিভাগ
  • মার্কেটিং বিভাগ
  • ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং বিভাগ

গ্রন্থাগার[সম্পাদনা]

এই কলেজে শিক্ষার্থীদের জন্য একটি লাইব্রেরী রয়েছে। লাইব্রেরীটি কলেজ প্রাঙ্গনে ৩ নং ভবনের দ্বিতীয় তলায় অবস্থিত। লাইব্রেরিতে ৪০,০০০+ টি বই ও ২০০০+ টি জার্নাল রয়েছে। এছাড়াও রয়েছে প্রতিদিনের বেশ কয়েকটি বাংলা ও ইংরেজি পত্রিকা পড়ার জন্য পত্রিকা কর্নার। লাইব্রেরীতে বসে বই পড়ার জন্য শিক্ষার্থীদের লাইব্রেরী কার্ড সংগ্রহ করতে হয়। লাইব্রেরী থেকে বই বাসায় নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। লাইব্রেরীর সময়সূচী: সকাল ৮.৩০ টা থেকে বিকাল ৩.৩০ টা।

চিকিৎসা ব্যবস্থা[সম্পাদনা]

ছাত্রীদের চিকিৎসা প্রদানে কলেজ প্রাঙ্গনে একটি চিকিৎসা কেন্দ্র রয়েছে। এটি শুধুমাত্র কলেজের ছাত্রছাত্রীদের জন্য উন্মুক্ত।

ছাত্রাবাস[সম্পাদনা]

মোট ছাত্রাবাস ১ টি

  • শহীদ শামসুল আলম হল

সহ শিক্ষা কার্যক্রম[সম্পাদনা]

লেখাপড়ার পাশাপাশি কবি নজরুল সরকারি কলেজে শিক্ষা-সহায়ক কার্যক্রমকেও বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়। এ কারণে প্রতিবছর উচ্চ মাধ্যমিক পরিক্ষায় ভালো ফল অর্জনের পাশাপাশি দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে আয়োজিত বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় এ কলেজের ছাত্ররা বরাবরই ঈর্ষণীয় সাফল্য অর্জন করে আসছে।

ক্লাবসমূহ[সম্পাদনা]

কবি নজরুল সরকারি কলেজে বর্তমানে (২০১৮) কয়েকটি ক্লাব রয়েছে। কলেজের শিক্ষক-শিক্ষিকাগণ এখানে মডারেটরের দায়িত্ব পালন করলেও ছাত্ররাই এসব ক্লাবের প্রাণ। সারা বছর জুড়ে এই ক্লাবগুলো বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজন ও কার্যক্রম গ্রহণের মাধ্যমে কলেজের ছাত্রদের উৎকর্ষ সাধনে কাজ করে যাচ্ছে। এইসব ক্লাবের আয়োজিত কিছু কিছু অনুষ্ঠান ও কার্যক্রম বর্তমানে জাতীয় পর্যায়ের অনুষ্ঠান হিসাবে মর্যাদা লাভ করেছে। দেশের বিভিন্ন কলেজ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অংশগ্রহণ এ কার্যক্রমগুলোকে ভিন্নমাত্রা দান করে।

এই কলেজের ক্লাবসমূহ হলো:[সম্পাদনা]

  • কবি নজরুল সরকারি কলেজ বিজ্ঞান ক্লাব
  • কবি নজরুল সরকারি কলেজ ডিবেটিং ক্লাব
  • কবি নজরুল সরকারি কলেজ চেস ক্লাব
  • কবি নজরুল সড়করি কলেজ ইংলিশ ক্লাব

কৃতি শিক্ষার্থী[সম্পাদনা]

গ্যালারী[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. College History
  2. http://www.kncollege.gov.bd/
  3. "ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত হলো ঢাকার সাত কলেজ"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০২-২৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

স্থানাঙ্ক: ২৩°৪৫′৫৪″ উত্তর ৯০°২২′৪″ পূর্ব / ২৩.৭৬৫০০° উত্তর ৯০.৩৬৭৭৮° পূর্ব / 23.76500; 90.36778