হারুন হাবীব

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
হারুন হাবীব
Harun Habib.jpg
জন্মদেওয়ানগঞ্জ, জামালপুর
পেশাসাংবাদিক ও লেখক
জাতীয়তাবাংলাদেশী
নাগরিকত্ব বাংলাদেশ
উল্লেখযোগ্য পুরস্কারবাংলা একাডেমি পুরস্কার

হারুন হাবীব (জন্মঃ ১৯৪৮) একজন প্রখ্যাত সাংবাদিক ও মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সাহিত্য রচয়িতা। বাংলা একাডেমি পুরস্কার প্রাপ্ত লেখক। বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা(বাসস) এর প্রধান সম্পাদক ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করেছেন । বর্তমানে জার্নালিজম অ্যান্ড পিস ফাউন্ডেশন (জেপিএফ)[১] এর নির্বাহী পরিচালক।

জন্ম ও শিক্ষা জীবন[সম্পাদনা]

হারুন হা​বীবের জন্ম ১৯৪৮ সালে জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার খড়মা গ্রামে[২]। তার বাবা তোফাজ্জল হোসেন পেশায় চিকিৎসক হলেও নাটক, সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের সাথে ব্যপক ভাবে যুক্ত ছিলেন। তার মা ফাতেমা খাতুন।

হারুন হাবীবের গ্রামের বাড়ী

পড়াশুনার হাতে খড়ি স্থানীয় খড়মা প্রাইমারি স্কুলে। দেওয়ানগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক এবং সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক শেষ করেন। পরবর্তীতে তৎকালীন কায়েদে আযম কলেজ (বর্তমান কবি নজরুল সরকারি কলেজ) থেকে স্নাতক এবং ১৯৭৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় মাস্টার্স করেন[৩]

কর্ম-জীবন[সম্পাদনা]

বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পর ১৯৭২ সালের প্রথম দিকেই সাংবাদিকতার সাথে যুক্ত হন। তৎকালীন বাংলাদেশ প্রেস ইন্টারন্যাশনাল এ রিপোর্টার হিসেবে যোগদান করেন যা পরবর্তীতে বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা হিসেবে পরিচিতি লাভ করে। পরবর্তীতে তিনি বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার প্রধান সম্পাদক ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়াও ভারতের দ্য হিন্দু, দি ফ্রন্ট লাইন, আমেরিকার দ্য নিউজ উইক, জার্মানির ডয়চে ভেলে সহ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে কাজ করেছেন[৪]

তিনি দৈনিক মানবকণ্ঠ সহ বেশ কিছু জাতীয় পত্রিকাতে নিয়মিত কলাম লিখে থাকেন[৫]

মুক্তিযুদ্ধে ভূমিকা[সম্পাদনা]

মুক্তিযুদ্ধে তিনি ১১ নম্বর সেক্টরে যুদ্ধ করেছেন। ১৯৭০ এর নির্বাচন পরবর্তী সময়ে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা বিভাগের মাস্টার্স শেষবর্ষের ছাত্র ছিলেন। স্বাধীনতার দাবিতে সমগ্র জাতি তখন মরিয়া। হারুন হাবীব অন্যান্য ছাত্র নেতা এবং স্বাধীনতা কর্মীদের সঙ্গে বিভিন্ন মিছিল-মিটিং নিয়ে ঢাকার রাজপথে তীব্র আন্দোলন শুরু করেন। বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ এবং পরবর্তীতে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশ অনুযায়ী নিজ জেলা জামালপুর এবং ময়মনসিংহ এলাকাতে চলে আসেন। উদ্দেশ্য ছিল মুক্তিযুদ্ধের প্রস্তুতি এবং তরুন-যুবকদের সংগঠিত করা। ১৬ই মার্চ নিজ জন্মস্থান দেওয়ানগঞ্জ উপজেলাতে চলে আসেন এবং স্থানীয় জনগণকে সংগঠিত করা শুরু করেন।[৬] দেওয়ানগঞ্জের বেলতলী বাজার নামক স্থানে তিনি এবং তার বন্ধু আনোয়ারুল আজিম ছানা সহ স্থানীয় জনতা ২০ই মার্চ বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করেন। এই খবর পাক বাহিনীর কাছে পৌঁছালে আনোয়ারুল আজিম ছানা কে বন্দী করে হত্যা করা হয়। হারুন হাবীব অন্যান্য তরুণ মুক্তিযোদ্ধাদের সংগঠিত করে ভারতের মহেন্দ্রগঞ্জ ক্যাম্পে অবস্থান করেন। পরবর্তীতে তিনি বিখ্যাত কামালপুরের যুদ্ধ, বাহাদুরাবাদ ঘাট মুক্ত করার যুদ্ধ, জামালপুর মুক্ত করা সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন স্থানে সম্মুখ সমরে অংশগ্রহণ করেন।

মুক্তিযুদ্ধে সংবাদ সংগ্রহ

হারুন হাবীব মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময় সম্মুখ সমরে অংশগ্রহণ করার পাশাপাশি নিয়মিত সংবাদ সংগ্রহ এবং তা প্রকাশ করতেন। যুদ্ধকালীন সংবাদপত্র ‘জয়বাংলা’ তে নিয়মিত সংবাদ প্রেরণ করতেন। এছাড়াও মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে কাজ করেছেন স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের যুদ্ধ সংবাদদাতা হিসেবে।[৭]

মুক্তিযুদ্ধে আলোকচিত্র সংগ্রহ

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস কে তিনি সমৃদ্ধ করেছেন তার তোলা দুর্লভ এবং কালজয়ী ছবি গুলো দিয়ে। পাক-বাহিনির ধ্বংসযজ্ঞ, মুক্তিযোদ্ধাদের ট্রেনিং, বাস্তুচ্যুত মানুষের কষ্ট, বিভিন্ন আশ্রয় শিবির, স্বাধীন বাংলাদেশ সব কিছুকেই তিনি মূর্ত করেছেন ক্যামেরার ফ্রেমে।

একাত্তরে বাহাদুরাবাদ ঘাট মুক্ত করার অভিযানের সময় হারুন হাবীবের তোলা ছবি

সাহিত্য কর্ম[সম্পাদনা]

মুক্তিযুদ্ধের উপর আলোকচিত্র সংকলন "একাত্তরের যাত্রী"

হাবীব একজন ছোটগল্পকার, নাট্যকার এবং প্রবন্ধকার হিসেবে জনপ্রিয়। মূলতঃ তিনি মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক সাহিত্য রচনা করে থাকেন। একজন গেরিলা মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে তার নিজের অভিজ্ঞতা এবং পরবর্তীতে তার ব্যপক গবেষণা লেখা গুলোকে পরিপূর্নতা দিয়েছে। তার লেখা পিতৃপুরুষের গল্প নামক ছোট গল্পটি বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থায় মাধ্যমিক শ্রেণিতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক সাহিত্য রচনায় অনন্য অবদানের জন্য তিনি ২০১৩ সালে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার লাভ করেন[৮]

Name Description Language
সোনালী ইগল ও উদ্বাস্তু সময় আত্মজৈবনিক উপন্যাস (মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক) বাংলা
ছোটগল্প সমগ্র ১৯৭১ ছোটগল্প বাংলা
বিদ্রোহী ও আপন পদাবলী ছোটগল্প বাংলা
লাল শার্ট ও পিতৃপুরুষ ছোটগল্প বাংলা
মুক্তিযুদ্ধ : নির্বাচিত গল্প ছোটগল্প বাংলা
স্বর্ণপক্ষ ইগল ছোটগল্প বাংলা
প্রিয় যুদ্ধ প্রিয়তম উপন্যাস বাংলা
পাঁচ পুরুষ উপন্যাস বাংলা
গল্পসপ্তক ছোটগল্প বাংলা
অন্ধ লাঠিয়াল ছোটগল্প বাংলা
অন্তশিলা উপন্যাস বাংলা
নির্বাসিতা নীহারবানু উপন্যাস বাংলা

প্রবন্ধ[সম্পাদনা]

Name Description Language
মুক্তিযুদ্ধ : পালাবদলের ইতিহাস প্রবন্ধ সংকলন বাংলা
মুক্তিযুদ্ধ : ডেটলাইন আগরতলা বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের অবদান নিয়ে গবেষণাধর্মী প্রবন্ধ বাংলা
মুক্তিযুদ্ধ : বিজয় ও ব্যর্থতা প্রবন্ধ এবং স্মৃতিকথা সংকলন বাংলা
জনযুদ্ধের উপাখ্যান মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকথা বাংলা
প্রত্যক্ষদর্শীর চোখে মুক্তিযুদ্ধ মুক্তিযুদ্ধের প্রত্যক্ষদর্শীদের বর্ননা সংগ্রহ বাংলা
মুক্তিযুদ্ধের নির্বাচিত প্রবন্ধ প্রবন্ধ বাংলা
যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও প্রাসঙ্গিক প্রবন্ধ প্রবন্ধ বাংলা
Bangladesh Blood and Brutality [৯] a collection of Pakistani genocide and rape English
Bangladesh Genocide 1971 a compilation of major reports on Pakistani genocide and rape English
Looking Beyond Boundaries
India-Bangladesh Relations: War Crimes trial and Islamist Militancy
a volume of essays and commentaries English

নাটক এবং অন্যান্য[সম্পাদনা]

Name Description Language
অগ্রাহ্য দন্ডোৎসব নাটক বাংলা
পোস্টার একাত্তর নাটক বাংলা
একাত্তরের যাত্রী মুক্তিযুদ্ধের উপর আলোকচিত্র সংকলন বাংলা

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "জার্নালিজম অ্যান্ড পিস ফাউন্ডেশনের যাত্রা শুরু: দৈনিক প্রথম আলো" 
  2. "আলাপচারিতায় হারুন হাবীব: ঢাকা টাইমস ডুয়েন্টি ফোর" 
  3. "তরুণদের দেশপ্রেম হৃদয়ে আশা জাগায়: হারুন হাবীব- দৈনিক ভোরের কাগজ" 
  4. "হারুন হাবীবের প্রামাণ্য গ্রন্থ গণমাধ্যম '৭১- দৈনিক জনকণ্ঠ" 
  5. "কলাম লেখক- দৈনিক মানবকন্ঠ"। ১৫ জানুয়ারি ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৯ এপ্রিল ২০১৯ 
  6. "কাঁধে অস্ত্র হাতে ক্যামেরা নিয়ে যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন হারুন হাবীব- পরিবর্তন কলাম" 
  7. "তরুণদের দেশপ্রেম হৃদয়ে আশা জাগায়: হারুন হাবীব- দৈনিক ভোরের কাগজ" 
  8. "বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার ঘোষণা- ঢাকা টাইমস" 
  9. ISBN|9789847390116