সিয়েরা লিওন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(Sierra Leone থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

স্থানাঙ্ক: ৮°৩০′০.০০″ উত্তর ১১°৫৫′০.০১″ পশ্চিম / ৮.৫০০০০০০° উত্তর ১১.৯১৬৬৬৯৪° পশ্চিম / 8.5000000; -11.9166694

সিয়েরা লিওন প্রজাতন্ত্র
পতাকা জাতীয় মর্যাদাবাহী নকশা
 সিয়েরা লিওন-এর অবস্থান (dark blue) – Africa-এ (light blue & dark grey) – the African Union-এ (light blue)  –  [ব্যাখ্যা]
 সিয়েরা লিওন-এর অবস্থান (dark blue)

– Africa-এ (light blue & dark grey)
– the African Union-এ (light blue)  –  [ব্যাখ্যা]

রাজধানীফ্রিটাউন
৮°৩১′ উত্তর ১৩°১৫′ পশ্চিম / ৮.৫১৭° উত্তর ১৩.২৫০° পশ্চিম / 8.517; -13.250
বৃহত্তম শহর রাজধানী
সরকারি ভাষা ইংরেজি, বাংলা (সম্মানসূচক) [১]
জাতীয়তাসূচক বিশেষণ সিয়েরা লিওনীয়
সরকার প্রজাতন্ত্র
 •  রাষ্ট্রপতি আর্নেস্ট বাই কোরোমা (অল পিপল'স কংগ্রেস)
 •  উপ-রাষ্ট্রপতি আলহাজি সামুএল সাম-সুমানা (APC)
 •  পার্লামেন্টের স্পিকার Abel Nathaniel Bankole Stronge (APC)
 •  প্রধান বিচারপতি Umu Hawa Tejan Jalloh
 •  মোট  কিমি (১১৭তম)
 বর্গ মাইল
 •  জল/পানি (%) ১.১
জনসংখ্যা
 •  ২০১৫ আদমশুমারি ৭,০৭৫,৬৪১[২] (১০৩তম)
 •  ঘনত্ব ৭৯.৪/কিমি (১১৪তমa)
./বর্গ মাইল
মোট দেশজ উৎপাদন
(ক্রয়ক্ষমতা সমতা)
2017 আনুমানিক
 •  মোট $11.551 billion[৩]
 •  মাথা পিছু $১,৭৬০[৩]
মোট দেশজ উৎপাদন (নামমাত্র) ২০১৭ আনুমানিক
 •  মোট $৪.০৮৮ billion[৩]
 •  মাথা পিছু $৬২৩[৩]
জিনি সহগ (২০১১)35.4[৪]
মাধ্যম
মানব উন্নয়ন সূচক (২০১৫)হ্রাস ০.৪২০[৫]
নিম্ন · ১৭৯তম
মুদ্রা লিওন (এসএলএল)
সময় অঞ্চল জিএমটি (ইউটিসি+০)
কলিং কোড ২৩২
ইন্টারনেট টিএলডি .sl
২০০৭ সালের তথ্যের উপর ভিত্তি করে রাংকিং করা হয়েছে।

সিয়েরা লিওন (/sɪˈɛərə lɪˈni, -lɪˈn/ (এই শব্দ সম্পর্কেশুনুন)),[৬] পশ্চিম আফ্রিকার একটি দেশ। সিয়েরা লিওনের সাংবিধানিক নাম সিয়েরা লিওন প্রজাতন্ত্র। ভূ-রাজনৈতিকভাবে সিয়েরা লিওনের উত্তর সীমান্তে গিনি, দক্ষিণ-পূর্ব সীমান্তে লাইবেরিয়া এবং দক্ষিণ-পশ্চিম উপকূলের দিকে আটলান্টিক মহাসাগর অবস্থিত। সিয়েরা লিওনের বৃক্ষহীন তৃণভূমি অঞ্চল থেকে রেইনফরেস্ট পর্যন্ত একটি বিচিত্র পরিবেশের গ্রীষ্মমন্ডলীয় জলবায়ু বিদ্যমান। সিয়েরা লিওনের মোট আয়তন ৭১,৭৪০ বর্গকিলোমিটার (২৭,৬৯৯ বর্গমাইল)[৭] এবং এর মোট জনসংখ্যা প্রায় ৬ মিলিয়ন (২০১১ জাতিসংঘ পরিসংখ্যান অনুসারে)।[৮][৯] ফ্রিটাউন সিয়েরা লিওনের রাজধানী, সর্ব বৃহত্তম শহর এবং অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক কেন্দ্র। বো সিয়েরা লিওনের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর। ১ লক্ষের বেশি জনসংখ্যাভূক্ত অন্যান্য শহরসমূহ হল : কেনেমা, ম্যাকেনি, কাইদু। সিয়েরা লিওন উত্তর, পূর্ব, দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চল চারটি ভৌগলিক অঞ্চলে বিভক্ত, যেগুলো আবার ১৪টি জেলায় বিভক্ত।

সিয়েরা লিওনে প্রায় ১৬টি জাতিগোষ্ঠী বসবাস করে, যাদের প্রত্যেকের রয়েছে আলাদা ভাষা ও রীতিনীতি। দুটি বৃহত্তম ও সবচেয়ে প্রভাবশালী জাতিগোষ্ঠী হল তেমনেমেন্দে। তেমনে জাতিগোষ্ঠীকে দেশের উত্তরাঞ্চলে প্রাধান্য করতে দেখা যায়, যখন মেন্দেরা দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলে তাদের কর্তৃত্ব বজায় রেখেছে। যদিও দাপ্তরিক ভাষা হিসাবে সরকারি প্রশাসন ও বিদ্যালয়সমূহে ইংরেজীতে কথা বলা হয়, তবুও দেশে এবং দেশের সকল বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর মধ্যে ক্রিও ভাষা সবচেয়ে বেশি কথ্য ভাষা। বিশেষ করে বিভিন্ন জাতিগোষ্ঠীর মধ্যে ব্যবসা বাণিজ্য এবং একে অপরের সাথে সামাজিক যোগাযোগে ক্রিও ভাষা ব্যবহার করে।

সিয়েরা লিওন একটি নামমাত্র মুসলিম দেশ,[১০][১১] যদিও খ্রিস্টান সংখ্যালঘুরা যথেষ্ট প্রভাবশালী। সাধারণভাবে দেশের মোট জনসংখ্যার ৬০% মুসলিম, ৩০% আদিবাসী বিশ্বাসী এবং ১০% খ্রিস্টান ধর্মীয়।[১২] যাহোক, সেখানে আদিবাসী বিশ্বাসের সংগঠিত ধর্মীয় সামঞ্জস্যতা অধিক। সিয়েরা লিওনকে বিশ্বের সবচেয়ে ধর্মীয় সহিষঞ্চু জাতি হিসাবে গন্য করা হয়। মুসলিম ও খ্রিস্টানরা একে অপরের প্রতি সহযোগী ও শান্তিপূর্ণ আচরণ করে। সিয়েরা লিওনে ধর্মীয় সহিংসতা খুবই বিরল।

সিয়েরা লিওন খনিজ সম্পদের উপর নির্ভরশীল, বিশেষ করে হীরা, এটি অর্থনীতির প্রধান ভিত্তি। এছাড়াও রয়েছে অন্যতম পণ্য টাইটানিয়ামবক্সাইট, অন্যতম প্রধান পণ্য সোনা, এবং রয়েছে রুটাইল এর পৃথিবীর বৃহত্তম মজুদের একটি অংশ। সিয়েরা লিওনে রয়েছে পৃথিবীর তৃতীয় বৃহত্তম প্রাকৃতিক হারবর। এত প্রাকৃতিক সম্পদ থাকার পরেও সিয়েরা লিওনের ৭০ শতাংশ মানুষ দারিদ্র্য সীমায় বসবাস করে।[১৩]

সিয়েরা লিওন ১৯৬১ সালে স্বাধীনতা অর্জন করে। সরকারের দুর্নীতি ও প্রাকৃতিক সম্পদের অব্যবস্থাপনার ফলে সিয়েরা লিওনের গৃহযুদ্ধ হয় (১৯৯১ - ২০০২), যার জন্য এক দশকেরও বেশি সময় ধরে দেশে ধংসযজ্ঞ চলে। এ যুদ্ধে ৫০,০০০ বেশি মানুষ মারা যায়, দেশের অবকাঠামো প্রায় ধংস করে, এবং দুই মিলিয়ন মানুষ প্রতিবেশী দেশগুলোতে শরনার্থী হিসাবে বাস্তুহারা হয়।

সাম্প্রতি ২০১৪ এবোলা প্রাদুর্ভাব সিয়েরা লিওনের দুর্বল স্বাস্থ্য সেবা কাঠামোর উপর জটিলতা সৃষ্টি করে, চিকিৎসা খাতে অবহেলিত মনোভাবের কারণে আরও অনেক মৃত্যু ঘটে। এটি একটি মানবিক সংকট সৃষ্টি করে এবং দুর্বল অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিকে আরও ব্যাহত করে। দেশের গড় আয়ু ৫৭.৮ বছর, যা অত্যন্ত কম।[১২]

সিয়েরা লিওন জাতিসংঘ, আফ্রিকান ইউনিয়ন, ওআইসি, ইকোওয়াস, কমনওয়েলথ সহ অনেক আন্তর্জাতিক সংস্থার সদস্য রাষ্ট্র।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

রাজনীতি[সম্পাদনা]

প্রশাসনিক অঞ্চলসমূহ[সম্পাদনা]

সিয়েরা লিওনে মোট চারটি প্রদেশ রয়েছে, এগুলো হল- উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ, দক্ষিণাঞ্চলীয় প্রদেশ, পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ এবং পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ । এর মধ্যে পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশকে দুটি জেলায় এবং বাকি প্রদেশগুলোকে ১২ টি জেলায় ভাগ করে মোট ১৪ টি জেলা নিয়ে প্রশাসনিক অঞ্চল নির্ধারণ করা হয়েছে ।

সিয়েরা লিওনের প্রশাসনিক অঞ্চলসমূহ
জেলা রাজধানী এলাকা (কিমি) প্রদেশ জনসংখ্যা (২০১৫ আদমশুমারী)
বোমবালি মাকেনি ৭৯৮৫ উত্তরাঞ্চলীয় ৬০৬১৮৩
কোইনাডুগু কাবালা ১২১২১ ৪০৮০৯৭
পোর্ট লোকো পোর্ট লোকো ৫৭১৯ ৬১৪০৬৩
টোঙ্কোলিলি মাগবুরাকা ৭০০৩ ৫৩০৭৭৬
কাম্বিয়া কাম্বিয়া ৩১০৮ ৩৪৩৬৮৬
কেনেমা কেনেমা ৬০৫৩ পূর্বাঞ্চলীয় ৬০৯৮৭৩
কোনো কইডু ৫৬৪১ ৫০৫৭৬৭
কাইলাহুন কাইলাহুন ৩৮৫৯ ৫২৫৩৭২
বো বো ৫২১৯ দক্ষিণাঞ্চলীয় ৫৭৪২০১
বোনথে মাট্ট্রু ৩৪৬৮ ২০০৭৩০
পুজেহুন পুজেহুন ৪১০৫ ৩৪৫৫৭৭
মোয়াম্বা মোয়াম্বা ৬৯০২ ৩১৮০৬৪
পশ্চিম শহুরে ফ্রিটাউন ১৩ পশ্চিমাঞ্চলীয় ১০৫০৩০১
পশ্চিম গ্রামীণ ওয়াটারলু ৫৪৪ ৪৪২৯৫১

গোল[সম্পাদনা]

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

১৯৯০ সালের পর থেকে সিয়েরা লিওনের অর্থনীতি পড়তির দিকে চলতে থাকে । বিশেষ করে ১৯৯০ এর পর থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত চলা গৃহযুদ্ধে এর অর্থনৈতিক অবকাঠামো সম্পূর্ণ রূপে ভেঙ্গে পড়ে । গৃহযুদ্ধ শেষ হওয়ার পর থেকে সিয়েরা লিওনের ভঙ্গুর অর্থনীতি আবার ঘুরে দাঁড়াতে শুরু করে । কিন্তু এসব কিছুই নির্ভর করছে সরকারের দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণ নীতির উপরে, কেননা অনেকেই ধারণা করেন যে এই গৃহযুদ্ধ সংঘটিত হওয়ার পেছনে সরকারের দুর্নীতি অনেক বড় একটা নিয়ামক হিসেবে কাজ করেছিল ।

সিয়েরা লিওনের মুদ্রার নাম লিওন । জাতীয় ব্যাংকের নাম ব্যাংক অফ সিয়েরা লিওন । সিয়েরা লিওন একটি কৃষি ভিত্তিক দেশ । দেশের মোট জিডিপির প্রায় ৫৮ শতাংশ আসে কৃষি থেকে । দেশের মোট জনগোষ্ঠীর প্রায় ৮০ শতাংশ কৃষি কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে । প্রধান শস্য পণ্য হল ধান, প্রায় ৮৫ শতাংশ কৃষক ধান চাষ করেন । দেশে বছরে জনপ্রতি ৭৬ কেজি ধান খাওয়ার জন্য ব্যবহার করা হয়।

সিয়েরা লিওন খনিজ সম্পদের উপর নির্ভরশীল, বিশেষ করে হীরা, এটি অর্থনীতির প্রধান ভিত্তি। এছাড়াও রয়েছে অন্যতম পণ্য টাইটানিয়াম ও বক্সাইট, অন্যতম প্রধান পণ্য সোনা, এবং রয়েছে রুটাইল এর পৃথিবীর বৃহত্তম মজুদের একটি অংশ। সিয়েরা লিওনে রয়েছে পৃথিবীর তৃতীয় বৃহত্তম প্রাকৃতিক হারবর। এত প্রাকৃতিক সম্পদ থাকার পরেও সিয়েরা লিওনের ৭০ শতাংশ মানুষ দারিদ্র্য সীমায় বসবাস করে।

জনসংখ্যা[সম্পাদনা]

সিয়েরা লিওনের মোট জনসংখ্যা ৭৩ লক্ষ ৯৬ হাজার ১৯০ জন, যা জনসংখ্যার দিক দিয়ে বিশ্বে ১০৩ তম । প্রায় ১৫.৪০% (২০০৪-২০১৪ সালের হিসাব) জনসংখ্যার হার নিয়ে এর প্রতি কিলোমিটার এলাকায় ৭৯.৪০ জন লোক বসবাস করে । গড় আয়ু ৫৭.৩৯ বছর, পুরুষ গড় আয়ু ৫৪.৮৫ বছর এবং মহিলা গড় আয়ু ৬০ বছর ।

সংস্কৃতি[সম্পাদনা]

ভাষা[সম্পাদনা]

ইংরেজি ভাষা সিয়েরা লিওনের সরকারি ভাষা। তাছাড়া সিয়েরা লিওন ২০০২ সালে বাংলা ভাষাকে সেখানকার সম্মানসূচক সরকারি ভাষার মর্যাদা দেয়। [১] এখানে আরও প্রায় ২০টি ভাষা প্রচলিত। এদের মধ্যে মেন্দে ভাষা ও তেমনে ভাষা উল্লেখযোগ্য। প্রায় ১০% লোক ইংরেজি ভাষাভিত্তিক একটি ক্রেওল ভাষা ক্রিও-তে কথা বলেন। এই ক্রেওলটি সিয়েরা লিওনের প্রায় সবার দ্বিতীয় ভাষা। মেন্দা ভাষা দক্ষিণাঞ্চলে, তেমনে ভাষা মধাঞ্চলে এবং ক্রিও ভাষা প্রায় সর্বত্র সার্বজনীন ভাষা বা লিঙ্গুয়া ফ্রাংকা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। আন্তর্জাতিক কাজকর্মে ইংরেজি ভাষা ব্যবহার করা হয়।

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. https://www.dhakatribune.com/bangladesh/foreign-affairs/2017/02/23/bangla-language-sierra-leone
  2. Official projection (medium variant) for the year 2013 based on the population and housing census held in Sierra Leone on 4 December 2004 ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৩০ জুলাই ২০১৩ তারিখে. statistics.sl. page 13.
  3. "Sierra Leone"। International Monetary Fund। সংগ্রহের তারিখ ১৮ এপ্রিল ২০১৩ 
  4. "Gini Index"। World Bank। সংগ্রহের তারিখ ২ মার্চ ২০১১ 
  5. "2016 Human Development Report" (PDF)। United Nations Development Programme। ২০১৬। সংগ্রহের তারিখ ২১ মার্চ ২০১৭ 
  6. "Sierra Leone"Dictionary.com। ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ১৮ জুন ২০১২ 
  7. Encarta Encyclopedia। Sierra Leone। ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ 
  8. Sierra Leone profile. Bbc.co.uk (8 December 2011). Retrieved on 15 August 2012.
  9. The World Guide। "Sierra Leone Geography"। ১২ জানুয়ারি ২০০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০০৮ 
  10. Islam In Sierra Leone: Information, Videos, Pictures and News[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]. Rtbot.net. Retrieved on 15 August 2012.
  11. "Sama Banya wants Awareness Times to call Tom Nyuma a Buffoon" ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৬ অক্টোবর ২০১৪ তারিখে, News.sl (18 April 2012). Retrieved on 15 August 2012.
  12. "The World Factbook"www.cia.gov। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-১০-০৭ 
  13. "Sierra Leone Population below poverty line – Economy"। Indexmundi.com। ৯ জানুয়ারি ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০১২ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

সরকারী
সাধারণ তথ্য
সংবাদ মিডিয়া
পর্যটন
অন্যান্য