সিয়েরা লিওন জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সিয়েরা লিওন
দলের লোগো
ডাকনামলিওন তারা
অ্যাসোসিয়েশনসিয়েরা লিওন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন
কনফেডারেশনক্যাফ (আফ্রিকা)
প্রধান কোচজন কিস্টার
অধিনায়কউমারু বাঙ্গুরা
সর্বাধিক ম্যাচকেমোকাই কায়োন (৫২)
শীর্ষ গোলদাতামুহাম্মদ কায়োন (১৪)
মাঠসিয়েরা লিওন জাতীয় স্টেডিয়াম
ফিফা কোডSLE
ওয়েবসাইটslfa.sl
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ১০৮ হ্রাস ১ (৩১ মার্চ ২০২২)[১]
সর্বোচ্চ৫০ (আগস্ট ২০১৪)
সর্বনিম্ন১৭২ (সেপ্টেম্বর ২০০৭)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ১১৪ বৃদ্ধি ১৭ (৩০ এপ্রিল ২০২২)[২]
সর্বোচ্চ৫৯ (জানুয়ারি ১৯৯৬)
সর্বনিম্ন১৫৬ (জুন ২০০৮)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 সিয়েরা লিওন ০–২ নাইজেরিয়া 
(ফ্রিটাউন, সিয়েরা লিওন; ১০ আগস্ট ১৯৪৯)[৩]
বৃহত্তম জয়
 সিয়েরা লিওন ৫–১ নাইজার 
(ফ্রিটাউন, সিয়েরা লিওন; ৭ মার্চ ১৯৭৬)
 সিয়েরা লিওন ৫–১ নাইজার 
(ফ্রিটাউন, সিয়েরা লিওন; ৩ জুন ১৯৯৫)
 সিয়েরা লিওন ৪–০ সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি  (ফ্রিটাউন, সিয়েরা লিওন; ২২ এপ্রিল ২০০০)
বৃহত্তম পরাজয়
 মালি ৬–০ সিয়েরা লিওন 
(বামাকো, মালি; ১৭ জুন ২০০৭)
আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্স
অংশগ্রহণ২ (১৯৯৪-এ প্রথম)
সেরা সাফল্যগ্রুপ পর্ব ১৯৯৪, ১৯৯৬

সিয়েরা লিওন জাতীয় ফুটবল দল (ইংরেজি: Sierra Leone national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে সিয়েরা লিওনের প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম সিয়েরা লিওনের ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা সিয়েরা লিওন ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯৬০ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং ১৯৬৭ সাল হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা আফ্রিকান ফুটবল কনফেডারেশনের সদস্য হিসেবে রয়েছে।[৪] ১৯৪৯ সালের ১০ই আগস্ট তারিখে, সিয়েরা লিওন প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; সিয়েরা লিওনের ফ্রিটাউনে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে সিয়েরা লিওন নাইজেরিয়ার কাছে ২–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে।

৪৫,০০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট সিয়েরা লিওন জাতীয় স্টেডিয়ামে লিওন তারা নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় সিয়েরা লিওনের রাজধানী ফ্রিটাউনে অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন জন কিস্টার এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন নুশাতেল জামাক্সের মধ্যমাঠের খেলোয়াড় উমারু বাঙ্গুরা

সিয়েরা লিওন এপর্যন্ত একবারও ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করতে পারেনি। অন্যদিকে, আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্সে সিয়েরা লিওন এপর্যন্ত ২ বার অংশগ্রহণ করেছে, যার প্রত্যেকবার তারা শুধুমাত্র গ্রুপ পর্বে অংশগ্রহণ সক্ষম হয়েছে।

কেউলে কোঁতেহ, কেমোকাই কায়োন, উমারু বাঙ্গুরা, কেই কামারা এবং তেতেহ বাঙ্গুরার মতো খেলোয়াড়গণ সিয়েরা লিওনের জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

১৯৪৯ সালের ১০ই আগস্ট তারিখে সিয়েরা লিওন নিজেদের মাঠে ব্রিটিশ উপনিবেশের অপর এক দেশ নাইজেরিয়ার বিরুদ্ধে নিজেদের প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচে অংশগ্রহণ করেছিল; উক্ত ম্যাচে সিয়েরা লিওন ২–০ গোলে পরাজিত হয়েছিল। ১৯৫৪ সালে ব্রিটিশ উপনিবেশের অন্য এক দেশ এবং ব্রিটিশ শাসিত জাতিসংঘের অঞ্চল গোল্ড কোস্ট ও ট্রান্স ভোল্টা টোগোল্যান্ডের বিরুদ্ধে (বর্তমান ঘানা) ম্যাচে অংশগ্রহণ করেছিল, এই ম্যাচেও সিয়েরা লিওন ২–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিল। ১৯৬১ সালের ২২শে এপ্রিল তারিখে নাইজেরিয়ার মাঠে পুনরায় নাইজেরিয়ার মুখোমুখি হয়েছিল, এই ম্যাচেও তারা ৪–২ গোলে পরাজিত হয়েছিল। অতঃপর ১৯৬৬ সালের ১২ই নভেম্বর তারিখে ব্রিটিশ উপনিবেশ বহির্ভূত দেশ লাইবেরিয়ার মুখোমুখি হয়েছিল; এই ম্যাচেই প্রথমবারের মতো কোন ম্যাচে ড্র করে। এক সপ্তাহ পরে লাইবেরিয়ার সাথে দ্বিতীয় ম্যাচে ২–০ গোলে পরাজিত হয়েছিল। ১৯৭১ সালের ১৩ই জানুয়ারি তারিখে সিয়েরা লিওন প্রথমবারের মতো আফ্রিকা-বহির্ভূত দেশ পূর্ব জার্মানির বিরুদ্ধে খেলে, যেখানে সিয়েরা লিওন ১–০ গোলের ব্যবধানে জয়লাভ করেছিল। সিয়েরা লিওন আফ্রিকার বাইরে এশিয়ার দেশ চীনের সাথে খেলে, ১৯৭৪ সালের ৫ই এপ্রিল তারিখে অনুষ্ঠিত উক্ত খেলায় সিয়েরা লিওন চীনের কাছে ৪–১ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিল।[৫]

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০১৪ সালের আগস্ট মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে সিয়েরা লিওন তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (৫০তম) অর্জন করে এবং ২০০৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ১৭২তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে সিয়েরা লিওনের সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ৫৯তম (যা তারা ১৯৯৬ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ১৫৬। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
৩১ মার্চ ২০২২ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[১]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
১০৬ হ্রাস  ভারত ১১৭৪.০৪
১০৭ বৃদ্ধি  কসোভো ১১৭৩.৯
১০৮ হ্রাস  সিয়েরা লিওন ১১৭৩.৮৯
১০৯ হ্রাস  উত্তর কোরিয়া ১১৬৯.৯৬
১১০ হ্রাস  এস্তোনিয়া ১১৬৯.০৬
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
৩০ এপ্রিল ২০২২ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
১১২ বৃদ্ধি ১২  ত্রিনিদাদ ও টোবাগো ১৩৬১
১১৩ বৃদ্ধি ১৪  নামিবিয়া ১৩৫৯
১১৪ বৃদ্ধি ১৭  সিয়েরা লিওন ১৩৫৮
১১৫ বৃদ্ধি ২৩  টোগো ১৩৪৮
১১৬ হ্রাস ১৪  কুয়েত ১৩৪১

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
ইতালি ১৯৩৪
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪
সুইডেন ১৯৫৮
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪ উত্তীর্ণ হয়নি
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮
স্পেন ১৯৮২
মেক্সিকো ১৯৮৬
ইতালি ১৯৯০ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪ প্রত্যাহার প্রত্যাহার
ফ্রান্স ১৯৯৮ উত্তীর্ণ হয়নি
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২ ১০ ১৭
জার্মানি ২০০৬
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০
ব্রাজিল ২০১৪ ১০ ১০
রাশিয়া ২০১৮
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ০/২১ ৪২ ১০ ২৪ ৩৭ ৬৬

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ৩১ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  2. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ৩০ এপ্রিল ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২২ 
  3. Courtney, Barrie (১৫ আগস্ট ২০০৬)। "Sierra Leone – List of International Matches"। RSSSF। সংগ্রহের তারিখ ৪ নভেম্বর ২০১০ 
  4. The Standard. 11 January 1968.
  5. http://www.rsssf.com/tabless/sier-intres.html

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]