সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি জাতীয় ফুটবল দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি
ডাকনামফালকন ও তোতার দল
অ্যাসোসিয়েশনসাঁউ তুমীয় ফুটবল ফেডারেশন
কনফেডারেশনক্যাফ (আফ্রিকা)
প্রধান কোচআদ্রিয়ানো এউসেবিও
অধিনায়কলুইস লেয়ান আনজোস
সর্বাধিক ম্যাচজোয়াজিফেল সোয়ারেস (২৭)
শীর্ষ গোলদাতালুইস লেয়ান আনজোস (৬)
মাঠ১২ই জুলাই জাতীয় স্টেডিয়াম
ফিফা কোডSTP
ওয়েবসাইটwww.fsf.st
প্রথম জার্সি
দ্বিতীয় জার্সি
ফিফা র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ১৮৩ বৃদ্ধি ৬ (৩১ মার্চ ২০২২)[১]
সর্বোচ্চ১১৫ (মার্চ ২০১২)
সর্বনিম্ন২০০ (সেপ্টেম্বর–অক্টোবর ২০০৭)
এলো র‌্যাঙ্কিং
বর্তমান ১৮০ বৃদ্ধি ৩ (৩০ এপ্রিল ২০২২)[২]
সর্বোচ্চ১৬৬ (জুন ১৯৭৬)
সর্বনিম্ন১৯৪ (আগস্ট ১৯৯৮)
প্রথম আন্তর্জাতিক খেলা
 গ্যাবন ৬–১ সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি 
(গ্যাবন; ২ মে ১৯৭৬)
বৃহত্তম জয়
 সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি ২–০ বিষুবীয় গিনি 
(লিব্রেভিল, গ্যাবন; ১৪ নভেম্বর ১৯৯৯)
 সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি ২–০ সিয়েরা লিওন 
(সাঁউ তুমি, সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি; ৮ এপ্রিল ২০০০)
 মরিশাস ১–৩ সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি 
(বেলে ভুয়ে হারেল, মরিশাস; ৯ অক্টোবর ২০১৯)
বৃহত্তম পরাজয়
 কঙ্গো ১১–০ সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি 
(গ্যাবন; ৭ জুলাই ১৯৭৬)

সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি জাতীয় ফুটবল দল (ইংরেজি: São Tomé and Príncipe national football team) হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফুটবলে সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপির প্রতিনিধিত্বকারী পুরুষদের জাতীয় দল, যার সকল কার্যক্রম সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপির ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা সাঁউ তুমীয় ফুটবল ফেডারেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। এই দলটি ১৯৮৫ সাল হতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা ফিফার এবং একই বছর হতে তাদের আঞ্চলিক সংস্থা আফ্রিকান ফুটবল কনফেডারেশনের সদস্য হিসেবে রয়েছে।[৩] ১৯৭৬ সালের ২রা মে তারিখে, সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি প্রথমবারের মতো আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করেছে; গ্যাবনে অনুষ্ঠিত উক্ত ম্যাচে সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি গ্যাবনের কাছে ৬–১ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছে।

৭,০০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট ১২ই জুলাই জাতীয় স্টেডিয়ামে ফালকন ও তোতার দল নামে পরিচিত এই দলটি তাদের সকল হোম ম্যাচ আয়োজন করে থাকে। এই দলের প্রধান কার্যালয় সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপির রাজধানী সাঁউ তুমিতে অবস্থিত। বর্তমানে এই দলের ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করছেন আদ্রিয়ানো এউসেবিও এবং অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন তিহুয়ানার আক্রমণভাগের খেলোয়াড় লুইস লেয়ান আনজোস

সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি এপর্যন্ত একবারও ফিফা বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করতে পারেনি। অন্যদিকে, আফ্রিকা কাপ অফ নেশন্সেও সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি এপর্যন্ত একবারও অংশগ্রহণ করতে সক্ষম হয়নি।

জোয়াজিফেল সোয়ারেস, জে ভারেলা, হুয়ারি কারদোসো, লুইস লেয়ান আনজোস এবং হাইর নুনেসের মতো খেলোয়াড়গণ সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপির জার্সি গায়ে মাঠ কাঁপিয়েছেন।

র‌্যাঙ্কিং[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিংয়ে, ২০১২ সালের মার্চ মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি তাদের ইতিহাসে সর্বোচ্চ অবস্থান (১১৫তম) অর্জন করে এবং ২০০৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসে প্রকাশিত র‌্যাঙ্কিংয়ে তারা ২০০তম স্থান অধিকার করে, যা তাদের ইতিহাসে সর্বনিম্ন। অন্যদিকে, বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপির সর্বোচ্চ অবস্থান হচ্ছে ১৬৬তম (যা তারা ১৯৭৬ সালে অর্জন করেছিল) এবং সর্বনিম্ন অবস্থান হচ্ছে ১৯৪। নিম্নে বর্তমানে ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং এবং বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিংয়ে অবস্থান উল্লেখ করা হলো:

ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং
৩১ মার্চ ২০২২ অনুযায়ী ফিফা বিশ্ব র‌্যাঙ্কিং[১]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
১৮১ হ্রাস  চাদ ৯৩১.৯৮
১৮২ অপরিবর্তিত  মাকাও ৯২২.১
১৮৩ বৃদ্ধি  সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি ৯১৭.৬২
১৮৪ হ্রাস  ডোমিনিকা ৯১৬.৭২
১৮৫ বৃদ্ধি  লাওস ৯১৪.৬৬
বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং
৩০ এপ্রিল ২০২২ অনুযায়ী বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং[২]
অবস্থান পরিবর্তন দল পয়েন্ট
১৭৮ বৃদ্ধি  দক্ষিণ সুদান ১১০৭
১৭৯ হ্রাস  ফিলিপাইন ১০৯২
১৮০ বৃদ্ধি  সাঁউ তুমি ও প্রিন্সিপি ১০৮৭
১৮১ হ্রাস  লিশটেনস্টাইন ১০৮৪
১৮২ বৃদ্ধি  অ্যান্ডোরা ১০৭৫

প্রতিযোগিতামূলক তথ্য[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ[সম্পাদনা]

ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
সাল পর্ব অবস্থান ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো ম্যাচ জয় ড্র হার স্বগো বিগো
উরুগুয়ে ১৯৩০ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
ইতালি ১৯৩৪
ফ্রান্স ১৯৩৮
ব্রাজিল ১৯৫০
সুইজারল্যান্ড ১৯৫৪
সুইডেন ১৯৫৮
চিলি ১৯৬২
ইংল্যান্ড ১৯৬৬
মেক্সিকো ১৯৭০
পশ্চিম জার্মানি ১৯৭৪
আর্জেন্টিনা ১৯৭৮
স্পেন ১৯৮২
মেক্সিকো ১৯৮৬
ইতালি ১৯৯০
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৯৪ প্রত্যাহার প্রত্যাহার
ফ্রান্স ১৯৯৮ অংশগ্রহণ করেনি অংশগ্রহণ করেনি
দক্ষিণ কোরিয়া জাপান ২০০২ উত্তীর্ণ হয়নি
জার্মানি ২০০৬
দক্ষিণ আফ্রিকা ২০১০ প্রত্যাহার প্রত্যাহার
ব্রাজিল ২০১৪ উত্তীর্ণ হয়নি
রাশিয়া ২০১৮
কাতার ২০২২ অনির্ধারিত অনির্ধারিত
মোট ০/২২ ২২

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ফিফা/কোকা-কোলা বিশ্ব র‍্যাঙ্কিং"ফিফা। ৩১ মার্চ ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩১ মার্চ ২০২২ 
  2. গত এক বছরে এলো রেটিং পরিবর্তন "বিশ্ব ফুটবল এলো রেটিং"eloratings.net। ৩০ এপ্রিল ২০২২। সংগ্রহের তারিখ ৩০ এপ্রিল ২০২২ 
  3. "BBC Sport − São Tomé e Príncipe rocket up Fifa rankings"bbc.co.uk। BBC। ৭ মার্চ ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ৩ ডিসেম্বর ২০১৩ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]