সাইপ্রাসের ভূগোল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সাইপ্রাস
Satellite image of Cyprus, cropped.jpg
২০০৮ সালে সাইপ্রাসের উপগ্রহ চিত্র
Island of Cyprus (orthographic projection).svg
সাইপ্রাসের অবস্থান
ভূগোল
অবস্থানভূমধ্যসাগর
স্থানাঙ্ক
বৃহত্তম শহরনিকোসিয়া
আয়তন৯,২৫১ বর্গকিলোমিটার (৩,৫৭২ বর্গমাইল)
তটরেখা৬৪৮ কিমি (৪০২.৬ মাইল)
সর্বোচ্চ উচ্চতা১,৯৫২ মিটার (৬,৪০৪ ফুট)
সর্বোচ্চ বিন্দুঅলিম্পাস পাহাড়
প্রশাসন
রাজধানী ও বৃহত্তর শহরনিকোসিয়া
অন্তর্ভুক্ত এলাকা৯,২৫১ বর্গকিলোমিটার (৩,৫৭২ বর্গমাইল; ১০০%)
উত্তর সাইপ্রাস
(ডি ফ্যাক্টো উত্তর প্রশাসন)
(নিজস্ব এবং কেবল তুরস্কের দ্বারা স্বীকৃত)
রাজধানী ও বৃহত্তর শহরউত্তর নিকোসিয়া
অন্তর্ভুক্ত এলাকা৩,৩৫৫ বর্গকিলোমিটার (১,২৯৫ বর্গমাইল; ৩৬.৩%)
রাজধানী ও বৃহত্তর বসতিএপিস্কোপি সেনানিবাস
অন্তর্ভুক্ত এলাকা২৫৪ বর্গকিলোমিটার (৯৮ বর্গমাইল; ২.৭%)
জনপরিসংখ্যান
জনসংখ্যা১,০৯৯,৪০৬ (২০০৭)
জনঘনত্ব৮৫ /বর্গ কিমি (২২০ /বর্গ মাইল)
জাতিগত গোষ্ঠীসমূহ

সাইপ্রাস হল ভূমধ্যসাগরের পূর্ব অববাহিকার একটি দ্বীপ। ইতালীয় দ্বীপ সিসিলি এবং সার্ডিনিয়ার পরে এটি ভূমধ্যসাগরের তৃতীয় বৃহত্তম দ্বীপ, এবং ক্ষেত্রাঞ্চল অনুযায়ী এটি বিশ্বের ৮০ তম বৃহত্তম অঞ্চল। আনাতুলিয়া উপদ্বীপের দক্ষিণে অবস্থিত হলেও এই দ্বীপটি সাইপ্রাস চাপের অন্তর্গত।[১] সাইপ্রাসকে [২] দক্ষিণ ইউরোপের অন্তর্ভূক্ত করা যেতে পারে:[৩] সাইপ্রাস দক্ষিণ ইউরোপউত্তর আফ্রিকার কাছাকাছি অবস্থিত, এবং এটি দীর্ঘকাল ধরে মূলত গ্রীক এবং মাঝে মাঝে আনাতুলীয়, লেভান্তীয়, বাইজেন্টাইনীয়, তুর্কি এবং পশ্চিম ইউরোপীয় প্রভাবান্বিত ছিল।

দ্বীপটিতে দুটি পর্বতশ্রেণী রয়েছে, সেগুলি হল ট্রুডোস পর্বতমালা এবং কাইরেনিয়া পর্বতমালা বা পেন্টাডাক্টাইলোস, এবং এই দুটির মাঝখানে রয়েছে মেজাওরিয়া সমতলভূমি।[৪] ট্রুডোস পর্বতমালা দ্বীপের দক্ষিণ ও পশ্চিম অংশের বেশিরভাগ জুড়ে বিস্তৃত এবং দ্বীপের প্রায় অর্ধেক অঞ্চল গঠন করেছে।[৪] সঙ্কীর্ণ কাইরেনিয়া পর্বতমালা উত্তর উপকূলরেখা বরাবর প্রসারিত।[৪] এটি ট্রুডোস পর্বতমালার মতো উঁচু নয়, এবং অপেক্ষাকৃত কম জায়গা নিয়ে রয়েছে।[৪] দুটি পর্বতশ্রেণী মোটামুটিভাবে তুর্কি মূল ভূখণ্ডের তোরোস পর্বতমালার সমান্তরালে বিস্তৃত। এর রূপরেখা উত্তর সাইপ্রাস থেকে দৃশ্যমান।[৪] বিভিন্ন প্রস্থের উপকূলীয় নিম্নভূমি দ্বীপটিকে ঘিরে রেখেছে।[৪]

ভূ-রাজনৈতিকভাবে, দ্বীপটি চারটি বিভাগে বিভক্ত। আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত একমাত্র সরকার সাইপ্রাস প্রজাতন্ত্র এই দ্বীপের দক্ষিণাংশের ৬০% জুড়ে রয়েছে, এবং ২০০৪ সালের ১লা মে থেকে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্য রাষ্ট্র হিসাবে স্বীকৃত। "উত্তর সাইপ্রাসের তুর্কি প্রজাতন্ত্র", কূটনৈতিকভাবে কেবল তুরস্কের দ্বারা স্বীকৃত। এটি এই দ্বীপের উত্তরের এক তৃতীয়াংশ, অর্থাৎ প্রায় ৩৬% অঞ্চল নিয়ে গঠিত। জাতিসংঘ - নিয়ন্ত্রিত গ্রিন লাইন একটি নিরাপত্তা বেষ্টনী যা এই দুটিকে পৃথক করে রেখেছে এবং এটি প্রায় ৪% অঞ্চল নিয়েছে। সর্বশেষে, দুটি অঞ্চল - আক্রোটিরি এবং ডেকিলিয়া সামরিক উদ্দেশ্যে ব্রিটিশ সার্বভৌমত্বের অধীনে রয়েছে, সম্মিলিতভাবে আক্রোটিরি এবং ডেকিলিয়ার (এসবিএ) সার্বভৌম ভিত্তি অঞ্চল গঠন করেছে। এসবিএগুলি দ্বীপের দক্ষিণ উপকূলে অবস্থিত এবং একসাথে ২৫৪ কিলোমিটার বা দ্বীপের ২.৮% ঘিরে রয়েছে।

ভূখণ্ড[সম্পাদনা]

স্কিরিওটিসা খনি
আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন থেকে ২০১৩ সালে তোলা এই চিত্রটিতে, দ্বীপের তিনটি পৃথক ভূতাত্ত্বিক অঞ্চল দেখা যাচ্ছে। দ্বীপের মধ্য ও পশ্চিম অংশে ট্রুডোস ম্যাসিফ, একটি পর্বতশ্রেণী যার পৃষ্ঠতলের বেশিরভাগ অংশ বেসালটিক লাভা পাথর দিয়ে তৈরি, এবং যার সর্বাধিক উচ্চতা ১,৯৫২ মি (৬,৪০৪ ফু)। দ্বীপের উত্তর-পূর্ব সীমানা বরাবর সাইপ্রাসের দ্বিতীয় পর্বতশ্রেণী কাইরেনিয়া পর্বতমালা, যেটি একটি সরু চাপ আকৃতির এবং চুনাপাথর জমে গঠিত হয়েছে। এই দুই পর্বত সীমার মধ্যে আছে রাজধানী নিকোসিয়া, যেটি চিত্রের কেন্দ্র অঞ্চলে ধূসর-বাদামী জমি হিসাবে দৃশ্যমান।
ভূসংস্থান

রুক্ষ ট্রুডোস পর্বতমালা, যার মূল পরিসর উত্তর-পশ্চিমের পোমোস বিন্দু থেকে পূর্বদিকে প্রায় লার্নাকা উপসাগর অবধি বিস্তৃত। এটি এই দ্বীপের একক সবচেয়ে সুস্পষ্ট বৈশিষ্ট্য।[৪] গঠনের সময়ে ব্যাপকভাবে উত্থান এবং ভাঁজ গঠনের ফলে অঞ্চলটি অত্যন্ত ফাটল যুক্ত, এর ফলে সংলগ্ন পর্বতমালা এবং পার্শ্বীয় শাখাগুলি বহু কোণে দিক্পরিবর্তন করেছে, তাদের ঢালে আছে খাড়া-পার্শ্বযুক্ত উপত্যকা।[৪] দক্ষিণ পশ্চিমে, এই পর্বতমালা উপকূলীয় সমভূমিতে ধাপে ধাপে এসে নেমেছে।[৪]

যেখানে ট্রুডোস পর্বতমালা হল গলিত আগ্নেয় শিলা দ্বারা গঠিত ম্যাসিফ, কাইরেনিয়া পর্বতশ্রেণীটি একটি সরু চুনাপাথরের শৈলশিরা যা হঠাৎ করে সমভূমি থেকে উঠে এসেছে।[৪] এর পূর্বতম প্রসারিত অংশটি কার্পাস উপদ্বীপের ওপর পর্বতমালার পাদদেশের ছোটো পাহাড়ে পরিণত হয়েছে।[৪] সেই উপদ্বীপটি এশিয়া মাইনরটির দিকে নির্দেশ করে, যেখানে সাইপ্রাস ভূতাত্ত্বিকভাবে অন্তর্ভুক্ত।[৪]

কাইরেনিয়া পর্বতমালার সর্বোচ্চ শিখরগুলিও অলিম্পাস পাহাড়ের (১,৯৫২ মি অথবা ৬,৪০৪ ফু) ট্রুডোস ম্যাসিফের বৃহৎ গম্বুজটির অর্ধেক উচ্চতার বেশি নয়।[৫] কিন্তু তাদের দুর্গম, খাঁজকাটা ঢালের কারণে সেগুলি যথেষ্ট দর্শনীয় হয়ে উঠেছে।[৪] ব্রিটিশ লেখক লরেন্স ডুরেল, ট্রুডোস সম্বন্ধে বিটার লেমনসএ লিখেছিলেন, "দুরারোহ পাহাড় এবং ভারী শিলার একটি নিরর্থক মিশ্রণ" এবং কাইরেনিয়া পর্বতমালা সম্বন্ধে লিখেছিলেন এটি "ইউরোপের গথিক শিল্পের অংশ, এর উঁচু চূড়াগুলি যোদ্ধা খচিত দুর্গের অংশ।"[৪]

ট্রুডোসের ঢালে সমৃদ্ধ তামার খনির সন্ধান পাওয়া গিয়েছে।[৪] ভূমধ্যসাগরের নিচে মধ্য-মহাসাগর শৈলশিরায় ওফিওলাইট যৌগের অংশ হিসাবে প্রচুর সালফাইড অধঃক্ষেপ তৈরি হয়েছে। এটি প্লাইস্টোসিন যুগে ভূত্বক সংস্থানীয় পদ্ধতিতে উন্নীত হয়েছিল এবং তার বর্তমান অবস্থানে এসে স্থিত হয়েছিল।[৬]

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

অতিরিক্ত তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://faculty.fiu.edu/~swdowins/research-eastmed.html
  2. http://millenniumindicators.un.org/unsd/methods/m49/m49regin.htm#asia UN
  3. https://www.cia.gov/library/publications/the-world-factbook/geos/cy.html CIA World Factbook
  4. Solsten, Eric, সম্পাদক (১৯৯৩)। Cyprus: a country study (4th সংস্করণ)। Washington, D.C.: Federal Research Division, Library of Congress। পৃষ্ঠা 50–53। আইএসবিএন 0-8444-0752-6ওসিএলসি 27014039. এই উৎস থেকে এই নিবন্ধে লেখা অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে, যা পাবলিক ডোমেইনে রয়েছে। 
  5. "Country Profile: Climate"। Official Website of the Embassy of the Republic of Cyprus in Washington D.C.। ২০১২-০৪-০৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-১০-১১ 
  6. http://www.moa.gov.cy/moa/gsd/gsd.nsf/dmlTroodos_en/dmlTroodos_en?OpenDocument Cyprus Geologic Survey

টেমপ্লেট:Cyprus topics টেমপ্লেট:Geography of Europe টেমপ্লেট:Geography of Asia