ড্রিস মের্টেনস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ড্রিস মের্টেনস
Mertens PSV 2012.jpg
২০১২ সালে ড্রিস মের্টেনস
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম ড্রিস মের্টেনস[১]
জন্ম (1987-05-06) ৬ মে ১৯৮৭ (বয়স ৩১)
জন্ম স্থান লিউভেন, বেলজিয়াম
উচ্চতা ১.৬৯ মি (৫ ফু ৭ ইঞ্চি)[২]
মাঠে অবস্থান আক্রমণভাগের খেলোয়াড়
ক্লাবের তথ্য
বর্তমান ক্লাব নাপোলি
জার্সি নম্বর ১৪
যুব পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন
১৯৯৬–১৯৯৮ স্তাদ লিউভেন
১৯৯৮–২০০৩ আন্ডারলেচ
২০০৩–২০০৫ গেন্ট
জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন*
বছর দল উপস্থিতি (গোল)
২০০৫–২০০৭ গেন্ট (০)
২০০৫–২০০৬এন্ড্রাচ আলস্ট (ধার) ১৪ (৪)
২০০৬–২০০৭এজিওভিভি (ধার) ৩৫ (২)
২০০৭–২০০৯ এজিওভিভি ৭৩ (২৮)
২০০৯–২০১১ উত্রেচ ৬৯ (১৭)
২০১১–২০১৩ পিএসভি ৬২ (৩৭)
২০১৩– নাপোলি ১৬২ (৬৭)
জাতীয় দল
২০০৪ বেলজিয়াম অনূর্ধ্ব-১৭ (০)
২০১১– বেলজিয়াম ৭০ (১৫)
  • পেশাদারী ক্লাবের উপস্থিতি ও গোলসংখ্যা শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগের জন্য গণনা করা হয়েছে এবং ১৮ই জুন ২০১৮ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

† উপস্থিতি(গোল সংখ্যা)।

‡ জাতীয় দলের হয়ে খেলার সংখ্যা এবং গোল ১৮ই জুন ২০১৮ তারিখ অনুযায়ী সঠিক।

ড্রিস মের্টেনস (ওলন্দাজ উচ্চারণ: [ˈdris ˈmɛrtə(n)s], জন্ম: ৬ মে ১৯৮৭) হলেন বেলজিয়ামের একজন পেশাদার ফুটবলার, যিনি ইতালীয় ক্লাব নাপোলি এবং বেলজিয়াম জাতীয় দলে একজন আক্রমণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেন। ২০১৩ সালে নাপোলির সাথে চুক্তিবদ্ধ হবার পূর্বে, তিনি গেন্ট, এন্ড্রাচ আলস্ট, এজিওভিভি, উত্রেচ এবং পিএসভির মতো ক্লাবে খেলেছেন।

২০১১ সালে, তিনি আন্তর্জাতিক পর্যায়ে বেলজিয়াম জাতীয় দলে হয়ে অভিষেক এবং এপর্যন্ত তিনি ৫০-এর অধিক ম্যাচ খেলেছেন। তিনি ২০১৪ ফিফা বিশ্বকাপ এবং ২০১৬ উয়েফা ইউরোয় বেলজিয়াম দলের সদস্য ছিলেন।

ক্লাব ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

প্রারম্ভিক ক্যারিয়ার[সম্পাদনা]

বেলজিয়ামের লিউভেনে জন্মগ্রহণকারী মের্টেনস বর্তমানে বিলুপ্ত স্থানীয় ক্লাব স্তাদ লিউভেনের হয়ে খেলার মাধ্যমে তার ক্যারিয়ার শুরু করেন।[৩] আন্ডারলেচের স্কাউটরা তাকে প্রথম দেখেছিল, পরবর্তীতে চূড়ান্তভাবে ১৯৯৮ সালে ক্লাবের যুব একাডেমীতে তিনি অংশগ্রহণ করার সুযোগ পান। ২০০৩ সালে উক্ত ক্লাব ছেড়ে দেওয়ার পুর্বে তিনি পাঁচ বছর উক্ত ক্লাবের যুব পর্যায়ের খেলোয়াড়দের সাথে ছিলেন। উক্ত সময় কোচেরা তাকে স্বল্প এবং শারীরিকভাবে দুর্বল হওয়ায় পেশাদারী পর্যায়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা অক্ষম হওয়ার জন্য তাকে ছেড়ে দেয়।[৪] আন্ডারলেচ থেকে চলে আসার পর, মের্টেনসকে বেলজীয় প্রো লীগের অন্য দল, গেন্ট তাকে দলে নিয়ে নেয়। গেন্টের যুব পর্যায়ের সাথে দুই মৌসুম কাটানোর পর, মের্টেনসকে এন্ড্রাচ আলস্টে ধারে প্রেরণ করা হয়েছিল, সেখানে তিনি বেলজীয় তৃতীয় বিভাগের দলের সাথে খেলেছিলেন এবং উক্ত মৌসুমে বছরের সেরা খেলোয়াড় নির্বাচিত হয়েছিলেন।[৪] গেন্টের কোচেরা পূর্বের আন্ডারলেচের কোচেদের মতো শুরু করে দিয়েছিল। অতঃপর ২০০৭ সালে তিনি নেদারল্যান্ডের ক্লাব এজিওভিভির সাথে চুক্তিবদ্ধ হন।[৪]

ক্যারিয়ার পরিসংখ্যান[সম্পাদনা]

আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

২৭ মার্চ ২০১৮ পর্যন্ত হালনাগাদকৃত।[৫][৬]
জাতীয় দল সাল উপস্থিতি গোল
বেলজিয়াম ২০১১
২০১২
২০১৩
২০১৪ ১৩
২০১৫
২০১৬ ১৩
২০১৭ ১০
২০১৮
সর্বমোট ৭০ ১৫

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "2014 FIFA World Cup Brazil: List of Players" (PDF)FIFA। ১১ জুন ২০১৪। পৃষ্ঠা 4। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০১৪ 
  2. "Prima Squadra - Dries Mertens"SSC Napoli। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  3. http://www.mijnleuven.be/artikel/dries-mertens-over-zijn-leven-als-voetballer
  4. De Kock, Bjorn (৩০ এপ্রিল ২০১৪)। "Why Napoli's winger Dries Mertens should start for Belgium at the World Cup"BeneFoot। ১৫ জুলাই ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  5. "Dries Mertens"Royal Belgian Football Association। সংগ্রহের তারিখ ১৪ অক্টোবর ২০১৬ 
  6. "Dries Mertens - National Football Teams"National Football Teams। সংগ্রহের তারিখ ১ এপ্রিল ২০১৮ 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]

টেমপ্লেট:এস.এস.সি. নাপোলি দল