টুলু ভাষা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
টুলু
ತುಳು ಭಾಷೆ
দেশোদ্ভব ভারত
অঞ্চল টুলু নাড়ু[১][২]
মহারাষ্ট্র[৩]
উপসাগরীয় দেশসমূহ[৪][৫]
নৃতাত্ত্বিক টুলুভা
দ্রাবিড়ীয়
  • দক্ষিণ দ্রাবিড়ীয়
    • টুকু ভাষা
      • টুলু
কন্নড় লিপি[৬]
টুলু লিপি
ভাষা কোডসমূহ
আইএসও ৬৩৯-৩ tcy
গ্লোটোলগ tulu1258[৭]
Tuluspeakers.PNG
ভারতে টুলু ভাষী লোকের অবস্থানচিত্র

টুলু দ্রাবিড়ীয় ভাষা পরিবারের একটি ভাষা। এই ভাষায় দুই মিলিয়ন মানুষ কথা বলে,[৮] প্রধানত ভারতের কর্ণাটক প্রদেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অংশ এবং উত্তর কেরালার টুলু নাড়ু নামে পরিচিত সামান্য কিছু অংশের মানুষ এই ভাষায় কথা বলে। ২০১১ সালের হিসেবে ভারতের দুই মিলিয়ন লোক টুলু ভাষাকে মাতৃভাষা হিসেবে ব্যবহার করে। ২০০১ সালে এই সংখ্যা ছিলো ১,৭২২,৭৮৬ জন।[৯] ১৯৯১ সালের আদম শুমারির হিসেব অনুযায়ী ১০% বৃদ্ধি পায়।[১০] ২০০৯ সালের তথ্যমতে পৃথিবীতে ৩-৫ মিলিয়ন লোক টুলু ভাষাকে মাতৃভাষা হিসেবে ব্যবহার করে।[১১] টুলু ভাষায় কথা বলা জনগোষ্ঠীকে টুলুভা বা টুলু জনগোষ্ঠী বলা হয়। টুলু ভাষায় অনলাইন বিশ্বকোষ উইকিপিডিয়া বিনির্মানের প্রচেষ্টা চলছে।[১২]

শ্রেণীবিভাগ[সম্পাদনা]

টুলু দ্রাবিড়ীয় ভাষা পরিবারের দক্ষিণাংশ থেকে উৎপত্তি লাভ করেছে।

উৎপত্তি[সম্পাদনা]

ভাষাবিদদের মতে টুলু, কন্নড়, তামিল এবং মালয়ালম শব্দের উপর ভিত্তি করে টুলু শব্দের অর্থ যা পানির সাথে যুক্ত থাকে। টুলু ভাষায় টুলাভু শব্দের অর্থ জলীয়। টুলু ভাষায় পানি সম্পর্কিত অন্যান্য শব্দাবলি হচ্ছে টালিপু, টেলি, টেলী, তেলপু, টুলিপু, টুলাভু এবং তামেল। কন্নড় ভাষায় টুলুকু এবং টোলে বলে শব্দ আছে। তামিল এবং মালয়ালম ভাষায় তুলি মানে পানির ফোঁটা। ঐতিহ্যগতভাবে টুলু ভাষী জনগোষ্ঠী উপকূলীয় এলাকায় বাস করে। টুলুকে তাই বলা হয় পানির ভাষা।

উপভাষা[সম্পাদনা]

টুলু ভাষায় চারটি কথ্যরূপ আছে, যা খুবই কাছাকাছি উচ্চারণ রীতি প্রদর্শন করে।

  • সাধারণ টুলু[১৩]
  • ব্রাম্মণ টুলু[১৩]
  • জৈন কথ্যরূপ[১৪]
  • গিরিজান কথ্যরূপ[১৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. http://www.ciil-ebooks.net/html/piil/acharya1b.html
  2. [১]
  3. "Language in India"। Language in India। ২০০৩-০৫-০৫। সংগৃহীত ২০১২-০৫-২১ 
  4. "Serving Mangaloreans Around The World!"। Mangalorean.Com। সংগৃহীত ২০১২-০৫-২১ 
  5. "Dr Veerendra Heggade in Dubai to Unite Tuluvas for Tulu Sammelan"Daijiworld। Daijiworld Media। আগস্ট ৯, ২০০৯। 
  6. "Indian Multilingualism, Language Policy" (PDF)। সংগৃহীত ২০১২-০৫-২১ 
  7. নোরধোফ, সেবাস্টিয়ান; হামারস্ট্রাম, হারাল্ড; ফোস্কেল, রবার্ট; হাস্পেলম্যার্থ, মার্টিন, সম্পাদকবৃন্দ (২০১৩)। "টুলু"গ্লোটোলগ। লিপজিগ: বিবর্তনীয় নৃতত্ত্বে ম্যাক্স প্লাংক ইনস্টিটিউট। 
  8. Lewis, M. Paul, সম্পাদক (২০০৯)। "Tulu"Ethnologue: Languages of the World (16th সংস্করণ)। SIL International। সংগৃহীত ২০০৯-১১-১২�. 
  9. "Census of India - Statement 1"। Registrar General & Census Commissioner, India। সংগৃহীত ২০০৯-১১-১৩ 
  10. "Non-Scheduled Languages"। Central Institute of Indian Languages। সংগৃহীত ২০০৯-১১-১৩ 
  11. Mannan, Moiz (আগস্ট ৩০, ২০০৯)। "Convention to Draw Attention to Tulu Culture"The Peninsula On-line (The Peninsula)। 
  12. http://www.thehindu.com/news/national/karnataka/tulu-wikipedia-in-incubation-stage-600-articles-uploaded-says-ub-pavanaja/article6636113.ece?homepage=true
  13. "Ethnologue report for language code: tcy"। Ethnologue.com। সংগৃহীত ২০১২-০৫-২১ 
  14. "Places"। Boloji.com। সংগৃহীত ২০১২-০৫-২১ 

কাগজে পড়ুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]