জওহরলাল নেহেরু বন্দর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
নবসেবা
Thane Creek and Elephanta Island 03-2016 - img27 view from Cannon Hill.jpg
নবসেবা কন্টেইনার জাহাজ
অবস্থান
দেশভারত
স্থানাঙ্ক১৮°৫৭′ উত্তর ৭২°৫৭′ পূর্ব / ১৮.৯৫০° উত্তর ৭২.৯৫০° পূর্ব / 18.950; 72.950[১]
বিস্তারিত
পরিচালনা করেজওহরলাল নেহেরু বন্দর ট্রাস্ট
মালিকভারত সরকার
পরিসংখ্যান
বার্ষিক কার্গো টন৭০.৭০৬ মিলিয়ন টন (২০১৮-১৯)[২][৩]
কন্টেইনার: ৫৬.৪৩ মিলিয়ন টন (২০১০-১১)
বার্ষিক কন্টেইনারের আয়তন৫.১৩৩ মিলিয়ন টিইইউ (২০১৮-২০১৯)[২]
ওয়েবসাইট
jnport.gov.in

জওহরলাল নেহেরু বন্দর (এছাড়াও নবসেবা নামে পরিচিত), হচ্ছে ভারতের বৃহত্তম কন্টেইনার বন্দর এবং বিশ্বের ২৯ তম ব্যস্ত কন্টেইনার বন্দর[৪][৫] মহারাষ্ট্রের মুম্বাই (পূর্বে 'বোম্বাই' নামে পরিচিত) শহরের পূর্বে আরব সাগরের তীরে বন্দরটি অবস্থিত। বন্দরটিতে থানে খাঁড়ির মাধ্যমে প্রবেশ করা যায়। এখানেই অবস্থিত নভাকা ও শিভা গ্রাম দুটির নাম থেকে এটির সাধারণ নাম এসেছে নভশেবা। এছাড়াও এই বন্দরটি পশ্চিম ডেডিকেটেড মালবাহী করিডোর টার্মিনাল (নির্মাণে)। জওহরলাল নেহেরু বন্দরটি সাধারণত জেএনপিটি (জওহরলাল নেহেরুর পোর্ট ট্রাস্টের জন্য সংক্ষিপ্ত) নামেও পরিচিত।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

২৬ শে মে, ১৯৮৯ সালে বন্দরটি স্থাপিত হয়।

জওহরলাল নেহেরু বন্দর ভারতের বৃহত্তম কন্টেইনার হ্যান্ডলিং বন্দর,[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] দেশটির কন্টেইনারাইজড পণ্যের প্রায় ৪৪% হস্তান্তর করা হয় এই বন্দর দ্বারা, গত পাঁচ বছরে ধারাবাহিকভাবে ৪ মিলিয়ন টিইইউ কনটেইনার হ্যান্ডলিং-এর ঐতিহাসিক ল্যান্ডমার্ককে অতিক্রম করেছে বন্দরটি।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] ভারতের ওয়েস্ট কোস্টে হাব পোর্ট হিসাবে ভূমিকা, বিশ্বের শীর্ষ ১০০ কনটেইনার বন্দরের মধ্যে জওহরলাল নেহেরু বন্দর ৩১ তম।

২০২০-২১ সালের মধ্যে কনটেইনার পরিবহন ১০ মিলিয়ন টিইইউ অর্জনের একটি দীর্ঘমেয়াদী লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়, আরও দু'টি টার্মিনাল যোগ করার মাধ্যমে। ৩৩০এম স্ট্যান্ড-ল্যান কনটেইনার টার্মিনাল (ডিপি ওয়ার্ল্ড) এবং ৪র্থ কনটেইনার টার্মিনাল (পোর্ট অফ সিঙ্গাপুর অথরিটি) এবং একটি উপগ্রহ বন্দর বা সহকারী বন্দর ভাধবান পয়েন্ট, জেএনপি নৌযান ও শিফার সহ সামুদ্রিক বাণিজ্যের জন্য উপযুক্ত সুযোগগুলির একটি স্থান খুলে দেয়, সারা পৃথিবীতে বিভিন্ন খাতে তাদের পণ্যসম্ভার বহন করতে।

জওহরলাল নেহেরু বন্দর একটি পূর্ণাঙ্গ শুল্কভবন, ৩০ টি কনটেইনার মালবাহী স্টেশন এবং দেশব্যাপী ৫২ টি অভ্যন্তরীণ কনটেইনার ডিপোগুলির সাথে সংযোগ স্থাপন করে। রেল ও সড়ক উভয়ের সঙ্গে বন্দরটির সংযোগ ডেডিকেটেড মালবাহী কেরিয়ার (ডিএফসি) মতো চলমান প্রকল্পগুলির দ্বারা আরও জোরদার হচ্ছে, যা প্রতিদিনের ২৭ থেকে ১০০ টি ট্রেনের বৃদ্ধি বাড়িয়ে দেবে; মাল্টি-মডাল লজিস্টিক পার্ক (এমএমএলপি) এবং বন্দর সড়ক সংযোগ সম্প্রসারণ করা হছে। জাহাজ কর্মীদের জন্য বন্দরটির নিকটতম মুম্বই, নবী মুম্বাই এবং পুনে শহরগুলি বিমানবন্দর; হোটেল, প্রদর্শনী কেন্দ্র, ইত্যাদি পরিষেবা প্রদান করে।

সুযোগ-সুবিধা[সম্পাদনা]

জওহরলাল নেহেরু বন্দর (জেএনপিটি) কন্টেইনার টার্মিনাল জেএনপিটি দ্বারা পরিচালিত হয়। এর ৩ বার্থ-এর সাথে টার্মিনালের দৈর্ঘ্য ৬৮০ মিটার (২,২৩০ ফুট)। [৬]

নভসেবা আন্তর্জাতিক কনটেইনার টার্মিনাল (এনএসআইসিটি) পিএন্ড ও ওর নেতৃত্বে একটি কনসোর্টিয়ামের কাছে লিজ দেওয়া হয়, এখন এটি ডিপি ওয়ার্ল্ডের একটি অংশ। জুলাই ২০০০ সালে কমিশনযুক্ত, এটিতে ৬০০ মিটার (২,০০০ ফুট) টার্মিনালটি দৈর্ঘ্য রয়েছে যা দুইটি ব্যারথের সাথে গঠিত। এটি ১৫.৬ মিলিয়ন টন কার্গো পর্যন্ত পরিচালনা করতে পারে। [৭] এনএসআইসিটি ভারতের প্রথম বেসরকারী পরিচালিত কন্টেইনার টার্মিনাল ছিল। ২০০৬ সালে, জিটিআই (গেটওয়ে টার্মিনাল ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেড), ১.৩ মিলিয়ন টিইইউ হ্যান্ডেল করার ক্ষমতা নিয়ে এপিএম টার্মিনালের পরিচালিত একটি তৃতীয় কন্টেইনার টার্মিনাল চালু করে। এনএসআইজিটির নামে একটি নতুন স্ট্যাটএলোন কন্টেইনার টার্মিনাল ৩৩০ মিটার দৈর্ঘ্যের এবং ১২.৫ মিলিয়ন টন ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন হবে যা ২০১৬ সালের জুলাই মাসের মধ্যে কার্যকর হবে। ২০০০ মিটার দৈর্ঘ্যের চতুর্থ কন্টেইনার টার্মিনালে কাজ শুরু হয়েছে। এই টার্মিনাল পিএসএ দ্বারা পরিচালিত হবে এবং ৪.৮ মিলিয়ন টিইইউ (৬০ MTPA) এর কনটেইনার পরিবহন একটি ক্ষমতা থাকবে। প্রকল্পটি ১ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের একটি অংশ দিয়ে ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে চালু হবে।

২০০৬ সালে বন্দরটি কনটেইনারের ট্যাগিং তথ্য সরবরাহ বাস্তবায়ন করে। [৮]

পোতাশ্রয়[সম্পাদনা]

নবসেবা বন্দরের পোতাশ্রয়টি প্রাকৃতিক বা স্বাভাবিক পোতাশ্রয়। এটি নবি মুম্বাই এলাকায় অবস্থিত। পোতাশ্রয়টি ১৫ মিটারের বেশি গভীর।

পণ্য পরিবহন[সম্পাদনা]

জওহরলাল নেহেরু বন্দরের পার্শ দৃশ্য।

জওহরলাল নেহেরু বন্দর ভারতের মোট ১২টি বৃহত্ত বন্দরের মধ্যে বেশী কন্টেইনার পরিচালনা করে এবং যা দেশের সামগ্রিক কন্টেইনারজাত সমুদ্রের বাণিজ্যের প্রায় ৪০ শতাংশ। [৪] জওহরলাল নেহেরুর বন্দর থেকে বস্ত্র, খেলাধুলা পণ্য, কার্পেট, টেক্সটাইল যন্ত্রপাতি, মাংস, রাসায়নিক ও ওষুধপত্রগুলি রপ্তানি করা হয়। বন্দর দ্বারা রাসায়নিক, যন্ত্রপাতি, প্লাস্টিক, বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতি, উদ্ভিজ্জ তেল এবং অ্যালুমিনিয়াম এবং অন্যান্য অ লৌহঘটিত ধাতু আমদানি হয়। বন্দরটি প্রধানত মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশ, গুজরাট, কর্ণাটক এবং উত্তর ভারতের বেশিরভাগ অংশ থেকে উদ্ভূত মালামাল পরিবহন করে।

পোর্টসাইড থেকে জেএনপিটি দেখুন

পশ্চাৎভূমি[সম্পাদনা]

মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশগুজরাট এই বন্দরের পশ্চাৎভূমি। এটি ভারতের বৃহত্তম কন্টেইনার বন্দর।[৯]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Geographic Location" (ইংরেজি ভাষায়)। জওয়াহারলাল নেহেরু বন্দর ট্রাস্ট। ১৭ অক্টোবর ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ অক্টোবর ২০১৬ 
  2. "Containers handled at major ports up 8% at 9.876 million TEUs in FY19"। Business Line। ৩ এপ্রিল ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ৩ এপ্রিল ২০১৯ 
  3. "Cummulative Traffic April 2010 to March 2011" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। Jawaharlal Nehru Port Trust। ১৯ মার্চ ২০১২ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ অক্টোবর ২০১৬ 
  4. "India's major ports see 6.7 percent growth in container volumes" (ইংরেজি ভাষায়)। JOC.com.। ৭ এপ্রিল ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২৮ অক্টোবর ২০১৬ 
  5. "The biggest ports of India"Rediff Business (ইংরেজি ভাষায়)। Rediff.com.। ৮ অক্টোবর ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ২৮ অক্টোবর ২০১৬ 
  6. "JNPT Container Terminal"। Jawaharlal Nehru Port Trust। ২০১১-১০-১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৯-২৩ 
  7. "NSICT Private Terminal"। Jawaharlal Nehru Port Trust। ২০১১-১০-১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১১-০৯-২৩ 
  8. Arora, Rajat। "JNPT becomes first port in logistics data tagging of containers"। The Economics Times। সংগ্রহের তারিখ ১১ মে ২০১৮ 
  9. "www.jnport.gov.in" (ইংরেজি ভাষায়)। 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]