তুতিকোরিন বন্দর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
ভি ও চিতাম্বরম বন্দর
A view of Tuticorin Port.jpg
তুতিকোরিন বন্দরে জাহাজের মাল খালাসের দৃশ্য
অবস্থান
দেশ ভারত
অবস্থানতুতিকোরিন,তামিলনাড়ু
বিস্তারিত
চালু১৯৭৪
পরিচালনা করেভি ও চিতাম্বরম বন্দর কর্তিপক্ষ
মালিকভি ও চিতাম্বরম বন্দর কর্তিপক্ষ,জাহাজ মন্ত্রক,ভারত সরকার
পোতাশ্রয়ের ধরনমাঝারি মাপের সমুদ্র বন্দর
সমুদ্র বন্দর
পোতাশ্রয়ের আকার৩.৮৮ বর্গকিলোমিটার (১.৫০ মা)
জমির আয়তন৮.৭০ বর্গকিলোমিটার (৩.৩৬ মা)
আকার১২.৫৮ বর্গকিলোমিটার (৪.৮৬ মা)
উপলব্ধ নোঙরের স্থান১৩[১]
জেটি
Piers
কর্মচারী১,১৬২ (২০০৯-২০১০)
পোতাশ্রয়ের গভীরতা১০.৯ মিটার (৩৬ ফু)
কন্টেইনার জেটি-১২.৮০ মিটার (৪২.০ ফু)
পরিসংখ্যান
জলযানের আগমন১,৪৯২ (২০১১-২০১২)
বার্ষিক কার্গো টন২৮.৬৪ মিলিয়ন টন (২০১৩-২০১৪[২])
বার্ষিক কন্টেইনারের আয়তন৫,৬০,০০০ TEU (2014–2015)[৩]
বার্ষিক আয়৩৮৭.৮ কোটি (US$ ৫২.৩৫ মিলিয়ন)[৪]
প্রধান রপ্তানি দ্রব্যগ্রানাইট,চিনি,বিল্ডিং মেটুরিয়াল
আমদানি দ্রব্যকয়লা,সিমেন্ট,রাসায়নিক সার,ইস্পাত

তুতিকোরিন বন্দর[৫] বা ভি ও চিতাম্বরম বন্দর লহ ভারত-এর তামিলনাড়ু রাজ্যের একটি সমুদ্র বন্দর। এটি মান্নান উপসাগরের তীরে অবস্থিত।বন্দরটি ভারতের প্রথম সারির কন্টেইনার বন্দর।এটি ভারতের চতুর্থ বৃহত্ত কন্টেইনার বন্দর এবং তামিলনাড়ুর দ্বিতীয় বৃহত্ত বন্দর।এই বন্দর দ্বারা শ্রীলঙ্কার সঙ্গে প্রধানত ব্যবসা বাণিজ্য চলে।তবে বন্দরটি থেকে জাহাজ ইউরোপ,আমেরিকা ও আফ্রিকার দেশ গুলিতে পণ্য পরিবহন করে।

অবস্থান[সম্পাদনা]

বন্দরটি ৮.৮২ উত্তর ৭৮.০৭ পূর্বে অবস্থিত।এটি মান্নান সাগের তীরে ভারতের দক্ষিণ প্রান্তে অবস্থিত।এখান থেকে সহজেই জাহাজে শ্রীলঙ্কায় পণ্য পরিবহন করা যায়।বন্দরটি থেকে কেরালা রাজ্যের রাজধানী ত্রিরুবন্তপুরম কাছেই অবস্থিত।এই বন্দর থেকে সামান্য দূরে কুডানকুলাম পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্র গড়ে উঠেছে।

ইতিহাস[সম্পাদনা]

এই বন্দরটি ১৯৭৪ সালে গড়ে তুলা হয় ভারতের সমুদ্র বাণিজ্য প্রসারের কারণে। এরপর বন্দরটিকে কন্টেইনার পরিবহনের উপযোগি করে তুলাহয়। ১২ সেপ্টেম্বর ২০০৮ সালে বন্দরটি প্রথম ১০ মিলিয়ন টন পণ্য পরিবহন করে।

পশ্চৎভূমি[সম্পাদনা]

তামিলনাড়ু ও কেরেলার কিয়দংশ নিয়ে তুতিকোরিন বন্দরের পশ্চাৎ ভূমি গঠিত।

পরিকাঠামো[সম্পাদনা]

বন্দরটি মোট ১৩ টি জেটি বা বার্থ নিয়ে গঠিত।এর মধ্যে ২ টি কন্টেইনার জেটি ও ৩ টি তেল ও কয়লা জেটি।কন্টেইনার জেটির জলের গভীরতা ১২.৮০ মিটার (৪২.০ ফু) এবং বাকি জেটি গুলির গভীরতা ১০.৯ মিটার (৩৬ ফু) ।বন্দরটিতে বড় জাহাজগুলি নোঙর পারে না সেগুলি বন্দর থেকে ৪ কিমি দূরে নোঙর করে, এরপর নোঙর করা বড় জাহাজ থেকে পণ্য ছোট জাহাজে স্থানান্তর করে বন্দরে আনা হয়। বর্তমানে বন্দরটিতে ৩০ হাজার মেট্রিক টন পণ্য বোঝাই জাহাজগুলি আসতে পারে। বন্দরটিকে ৬৫ মেট্রিক টন পণ্য বোঝাই জাহাজের উপযোগি করে তোলার চেষ্টা চলছে।

আমদানি-রপ্তানি[সম্পাদনা]

এটি ভারতের বন্দরগুলির মধ্যে পণ্য পরিবহনের দিক থেকে অষ্টম বৃহত্তম বন্দর এবং কন্টেইনার পরিবহনে চতুর্থ বৃহত্তম বন্দর। ২০১৩-২০১৪ সালে বন্দরটি ২৮.৬৪ মিলিয়ন টন কার্গো ও ২০১৪-২০১৫ সালে ৫.৬ লক্ষ কন্টেইনার পরিবহন করেছে। বন্দরটির প্রধান রপ্তানি দ্রব্য হল- গ্রানাইট ,মশলা, চুনাপাথর, লবণ, চাল ও চিন।আমদানি দ্রব্য হল-কয়লা,রাসায়নিক সার, যন্ত্রপাতি, পেট্রোলিয়াম দ্রব্য।[৬][৭]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Welcome to V.O.Chidambaranar Port Trust ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২ নভেম্বর ২০১৬ তারিখে. Vocport.gov.in.
  2. "সংরক্ষণাগারভুক্ত অনুলিপি"। ৪ মে ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩১ অক্টোবর ২০১৬ 
  3. "India's major ports see 6.7 percent growth in container volumes"। JOC.com.। ৭ এপ্রিল ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুন ২০১৫ 
  4. Tuticorin Port posts Rs 367.80 crore operating income in 2012–13 – Times Of India ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০১৩-০৪-১১ তারিখে. The Times of India. (8 April 2013).
  5. New Delhi News : Tuticorin Port Trust renamed ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২৯ অক্টোবর ২০১৩ তারিখে. The Hindu (28 January 2011).
  6. "তুতিকোরিন বন্দরে আটক মার্কিন জাহাজ নিয়ে ধোঁয়াশা অব্যাহত"। সংগ্রহের তারিখ ৩১-১০-২০১৬  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  7. প্রকল্ "কুডানকুলাম পরমাণু প্রকল্প বাতিলের দাবিতে মৎসজীবীদের তুতিকোরিন বন্দর দখল" |ইউআরএল= এর মান পরীক্ষা করুন (সাহায্য)সংবাদমন্থন। সংগ্রহের তারিখ ৩১-১০-২০১৬  এখানে তারিখের মান পরীক্ষা করুন: |সংগ্রহের-তারিখ= (সাহায্য)

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]