চার্লি ডেভিস

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
চার্লি ডেভিস
ক্রিকেট তথ্য
ব্যাটিংয়ের ধরন ডানহাতি
বোলিংয়ের ধরন ডানহাতি মিডিয়াম
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৫ ৯০
রানের সংখ্যা ১,৩০১ ৫,৫৩৮ ১২
ব্যাটিং গড় ৫৪.২০ ৪১.৩২ ১২.০০
১০০/৫০ ৪/৪ ১৪/২৮ ১৪/২৮
সর্বোচ্চ রান ১৮৩ ১৮৩ ১২
বল করেছে ৮৯৪ ৫,৭৮৩ ৩০
উইকেট ৬৩
বোলিং গড় ১৬৫.০০ ৩৯.৩৬ ২৭.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ১/২৭ ৭/১০৬ ২/৫৪
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৪/০ ৪৪/০ ১/০
উৎস: ক্রিকইনফো, ১৩ জুন ২০১৬

চার্লস অ্যালান (চার্লি) ডেভিস (জন্ম: ১ জানুয়ারি, ১৯৪৪) পোর্ট অব স্পেনের বেলমন্টে জন্মগ্রহণকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক ক্রিকেটার। ১৯৬৮ থেকে ১৯৭৩ মেয়াদকালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দলের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশ নিয়েছিলেন। দলে তিনি মূলতঃ ব্যাটসম্যান হিসেবে ভূমিকা রাখতেন। পাশাপাশি কার্যকরী বোলিংও দলের সফলতায় উল্লেখযোগ্য অবদান রাখতো। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ত্রিনিদাদের প্রতিনিধিত্ব করেন চার্লি ডেভিস

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

১৭ বছর বয়স থেকে ত্রিনিদাদের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলতে শুরু করেন। ১৯৬৮ মৌসুমে শেল শীল্ডে চমৎকার ক্রীড়ানৈপুণ্য প্রদর্শন করায় ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে খেলার জন্য মনোনীত হন। টেস্ট ক্রিকেটে তাঁর সেরা সফলতা ছিল সফরকারী ভারতের বিপক্ষে চমৎকার ব্যাটিং নৈপুণ্য প্রদর্শন করা। চার টেস্টের সিরিজে ১৩২.২৫ গড়ে তিনি ৫২৯ রান তুলেছিলেন। কার্যকরী বোলার হিসেবেও সম্যক প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছেন তিনি। প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে ৬৩ উইকেট পান।

নভেম্বর, ১৯৬৮ থেকে ফেব্রুয়ারি, ১৯৬৯ পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়া সফরের জন্য তিনি অন্তর্ভুক্ত হন। এ সফরে রয় ফ্রেডেরিক্সপ্রোফ এডওয়ার্ডসের সাথে তিনিও তরুণ খেলোয়াড় হিসেবে দলে যোগ দেন। প্রথম টেস্টে পরাজয়ের পর ফ্রেদেরিক্স ও এডওয়ার্ডসের সাথে তাঁরও টেস্ট অভিষেক ঘটে। ৭ম উইকেটে ব্যাটিংয়ে নেমে তিনি ১৮ ও ১০ রান তোলেন। কিন্তু তাঁর এ রান ইনিংস পরাজয় এড়াতে পারেনি। ঐ টেস্টে অস্ট্রেলিয়া একটিমাত্র ইনিংস খেলে। ডেভিস ২৪ ওভার বোলিং করে ৯৪ রান দিয়ে উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান বিল লরি’র উইকেট লাভ করেছিলেন।[১][২][৩]

১৯৬৯ সালে ইংল্যান্ড সফরে যান। ১৬-সদস্যের মধ্যে কেবলমাত্র ৫জন ইতোপূর্বে ইংল্যান্ডে গিয়েছিলেন। উদ্বোধনী টেস্টে পূর্বের টেস্টের তুলনায় একটু ভালো করেন। দ্বিতীয় উইকেট পতনের পর ৩৪ ও ২৪ তুলেছিলেন তিনি। কিন্তু দ্বিতীয় টেস্টে তিনি তাঁর প্রথম সেঞ্চুরি করেন যা ঐ সফরে কেবল তাঁরই ছিল।[৪][৫][৬]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Henry Blofeld"West Indies in Australia, 1968–69"Wisden। সংগৃহীত ২২ সেপ্টেম্বর ২০১২ 
  2. "Australia v West Indies 1968–69: Second Test"Wisden। সংগৃহীত ২২ সেপ্টেম্বর ২০১২ 
  3. "Australia v West Indies 1968–69: Second Test scorecard"ESPNCricinfo। সংগৃহীত ২২ সেপ্টেম্বর ২০১২ 
  4. Norman Preston"West Indies in England, 1969"Wisden। সংগৃহীত ২২ সেপ্টেম্বর ২০১২ 
  5. "Test Matches played by Charlie Davis (15)"Cricket Archive। সংগৃহীত ২২ সেপ্টেম্বর ২০১২ 
  6. "West Indies in England, 1969: First Test scorecard"ESPNCricinfo। সংগৃহীত ২২ সেপ্টেম্বর ২০১২ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]