অদম্য বাংলা (ভাস্কর্য)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
শিল্পীগোপাল চন্দ্র পাল
বছর২০১২ সাল
অবস্থানখুলনা

অদম্য বাংলা খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে অবস্থিত মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক ভাস্কর্য। এর স্থপতি শিল্পী গোপাল চন্দ্র পাল। ২০১১ সালে ৩৯ লাখ টাকা ব্যয় সাপেক্ষে এর নির্মাণ কাজ শুরু হয় এবং ২০১২ সালের জানুয়ারিতে তা শেষ হয়। শেষ পর্যন্ত নির্মাণ ব্যয় দাঁড়ায় ৪২ লাখ টাকা।[১][২]

অবস্থান[সম্পাদনা]

আকার[সম্পাদনা]

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে নির্মিত মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্যটির উচ্চতা ২৩ ফুট।[১][২]

স্থাপত্য তাৎপর্য[সম্পাদনা]

আধুনিক দৃষ্টিনন্দন ২৩ ফুট উচ্চতার মুক্তিযুদ্ধের এ ভাস্কর্যটি নির্মাণে ব্যয় হয়েছে ৪২ লাখ টাকা। ভাস্কর্যটির মূল অংশে স্থাপিত হয়েছে একজন নারীসহ বলিষ্ঠ ও তেজোদীপ্ত চার মুক্তিযোদ্ধার প্রতিকৃতি, যা বাঙালি জাতির শৌর্য-বীর্যের মূর্ত প্রতীক। ভাস্কর্যটি মহান মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীনতাকামী মানুষের তথা নারী-পুরুষের সক্রিয় অংশগ্রহণের সম্মিলিত ভূমিকার প্রতিচ্ছবি হিসেবে প্রতিফলিত হয়েছে। বেদির চারদিকের ম্যুরালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ, জাতীয় চার নেতার প্রতিকৃতি, বধ্যভূমির বর্বরতা ও পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর আত্মসমর্পণের চিত্র পোড়া মাটির ফলকে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে।[১][২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাস্কর্য অদম্য বাংলা,শাহনেওয়াজ খান সুমন, দৈনিক ডেসটিনি। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: ৮ আগস্ট ২০১২ খ্রিস্টাব্দ।
  2. মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্য অদম্য বাংলা’র নির্মাণ সম্পন্ন, শীঘ্রই উদ্বোধন ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০১৩-০৩-২৫ তারিখে, খুলনা নিউজ। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: ১১-০৭-২০১২ খ্রিস্টাব্দ।