চেতনা '৭১' (ভাস্কর্য)

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
চেতনা '৭১'
চেতনা '৭১' ভাস্কর্য
শিল্পীমোবারক হোসেন নৃপাল
বছর২০১১, ৩০শে জুলাই
অবস্থানসিলেট

চেতনা '৭১'মুক্তিযুদ্ধের স্মরণে নির্মিত ভাস্কর্য যা শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে অবস্থিত। ২০০৫-০৬ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা ২০০৯ সালের ২৬ মার্চ মিনি অডিটোরিয়ামের পশ্চিম পাশে চেতনা ’৭১ নামে একটি অস্থায়ী ভাস্কর্য নির্মাণ করেন। অস্থায়ী ভাস্কর্যটি স্থায়ী ভাস্কর্যে পুনঃস্থাপনের লক্ষ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ব্যাচের শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ে গঠন করা হয় “ভাস্কর্য পুনঃস্থাপন কমিটি”। পরবর্তীতে স্থায়ী ভাস্কর্য নির্মাণের প্রক্রিয়া শুরু হয়, আর তারই প্রতিফলিত রূপ চেতনা '৭১' ।[১]

অবস্থান[সম্পাদনা]

প্রায় ৬ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা ব্যয়ে এ বিল্ডিংয়ের উত্তরপাশে ভাস্কর্যটি নির্মিত হয়েছে। ২০০৫-০৬ সেশনের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগের পাশাপাশি অর্থায়ন করেছে প্রথম ব্যাচের সাবেক শিক্ষার্থীরাও। এছাড়া ডাচ-বাংলা ব্যাংকও অর্থায়ন করেছে। ৩০ জুলাই ২০১১ খ্রিস্টাব্দে ভাস্কর্যের উদ্বোধন করেন শাবিপ্রবির ভিসি অধ্যাপক সালেহ উদ্দিন।[২][৩]

আকার[সম্পাদনা]

ভাস্কর্যের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধির জন্য এবং একাডেমিক ভবন গুলোর লাল ইটের সাথে মিল রেখে ভিত্তি বেদির ৩ টি ধাপ বানানো হয়েছে লাল ও কালো সিরামিক ইট দিয়ে। এর মধ্যে নিচের ধাপের ব্যাস ১৫ ফুট, মাঝের ধাপ সাড়ে ১৩ ফুট এবং উপরের ধাপ ১২ ফুট। প্রত্যেকটি ধাপ ১০ ইঞ্চি করে উচু। বেদির ধাপ ৩টির উপরে মুল বেদিটি ৪ ফুট উচু, তার উপরে ৮ ফুট উঁচু মূল ফিগার। ভাস্কর্যের নকশা প্রণয়ন এবং নির্মাণ সম্পন্ন করেন ঢাকার নারায়নগঞ্জে স্থাপিত ‘নৃ-স্কুল অব স্কালপচার’ এর প্রতিষ্ঠাতা এবং শিল্পী মোবারক হোসেন নৃপাল।[৪][৫]

স্থাপত্য তাৎপর্য[সম্পাদনা]

ভাস্কর্যে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উচ্চে তুলে ধরার ভঙ্গিমায় একজন ছাত্র এবং সংবিধানের প্রতীকী বই হাতে একজন ছাত্রী রয়েছে। দূর থেকে দেখলে মনে হয় খোলা আকাশের নিচে ভাস্কর্যটি নির্ভীক প্রহরীর মত স্বাধীনতা এবং সার্বভৌমত্ব রক্ষা করার জন্য মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে।[৪][৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. চেতনা ’৭১,মুন্সী মো. মিছবাহ্ উদ্দিন, দৈনিক প্রথম আলো। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: ০৭-০৯-২০১১ খ্রিস্টাব্দ।
  2. শাবি শিক্ষার্থীদের উদ্যোগ সিলেটে নির্মিত হচ্ছে ‘চেতনা ৭১[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ],এনামুল হক, বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: জুলাই ২৬, ২০১১ খ্রিস্টাব্দ।
  3. শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে সিলেটের প্রথম ভাস্কর্য চেতনা ৭১[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ], সিলেট এক্সপ্রেস। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: জুলাই ২৪, ২০১১ খ্রিস্টাব্দ।
  4. মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্য ‘চেতনা ৭১’ ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৪ মার্চ ২০১৬ তারিখে,আহমেদ রুজেল, দৈনিক আমার দেশ। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: ৬ আগস্ট ২০১১ খ্রিস্টাব্দ।
  5. শাবিতে ‘চেতনা ৭১’ উদ্বোধন[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ],বাংলাটাইমস টুয়েন্টিফোর ডটকম। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: ৩০ জুলাই, ২০১১ খ্রিস্টাব্দ।