২০১৬ এশিয়া কাপ বাছাইপর্ব

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
২০১৬ এশিয়া কাপ বাছাইপর্ব
তারিখ১৯ – ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬
ব্যবস্থাপকএশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল
ক্রিকেটের ধরনটুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক
প্রতিযোগিতার ধরনরাউন্ড-রবিন
আয়োজক বাংলাদেশ
বিজয়ী সংযুক্ত আরব আমিরাত (২০১৬ এশিয়া কাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন)
অংশগ্রহণকারী
খেলার সংখ্যা
সর্বোচ্চ রানহংকং বাবর হায়াত (১৯৪)
সর্বোচ্চ উইকেটসংযুক্ত আরব আমিরাত মোহাম্মদ নাভিদ (৭)

২০১৬ এশিয়া কাপ বাছাইপর্ব ক্রিকেট প্রতিযোগিতা ১৯-২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬ তারিখে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতাবিশেষ। এ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে একই মাসের শেষদিকে বাংলাদেশে অনুষ্ঠিত ২০১৬ সালের এশিয়া কাপের মূল পর্বে শীর্ষস্থানীয় দল খেলার সুযোগ পায়। রাউন্ড-রবিন পদ্ধতিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে মর্যাদা লাভকারী চারটি এশীয় দেশ অংশগ্রহণ করে। বিজয়ী সংযুক্ত আরব আমিরাত তিনটি খেলাতেই জয়লাভ করে স্বাগতিক বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তানশ্রীলঙ্কার সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অবতীর্ণ হয়।[১][২]

প্রেক্ষাপট[সম্পাদনা]

নভেম্বর, ২০১৫ সালে প্রতিযোগিতাটি সংযুক্ত আরব আমিরাতে অনুষ্ঠিত হবার কথা ছিল।[৩][৪] কিন্তু, সময়সূচী জটিলতার কারণে কয়েক মাস পিছিয়ে নেয়া হয় ও মূল প্রতিযোগিতার পূর্বে আয়োজনের সিদ্ধান্ত হয়।[১] পূর্ববর্তী বছরগুলোয় সহযোগী সদস্য দলের অংশগ্রহণের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট মানদণ্ড প্রণীত হয়নি। দলগুলো এসিসি ট্রফি (২০০৪, ২০০৮) অথবা, আমন্ত্রণের (২০১৪) মাধ্যমে অংশ নিতো।[৫] চারদলের মধ্যে ওমানের এশিয়া কাপে অভিষেক ঘটে।[৬]

দলসমূহ[সম্পাদনা]

দলীয় সদস্য[সম্পাদনা]

 আফগানিস্তান[৭]  হংকং[৮]  ওমান[৯]  সংযুক্ত আরব আমিরাত[১০]

দলীয় অবস্থান[সম্পাদনা]

অব. দল খে পরা ফ.হ. এনআরআর
 সংযুক্ত আরব আমিরাত +১.৬৭৮
 আফগানিস্তান +০.৯৫৪
 ওমান -১.২২২
 হংকং -১.৪১৬

     ২০১৬ এশিয়া কাপে খেলার যোগ্যতা লাভ করে।

খেলা[সম্পাদনা]

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬
১৫:০০
স্কোরকার্ড
সংযুক্ত আরব আমিরাত 
১৭৪/৪ (২০ ওভার)
 আফগানিস্তান
১৬০ (১৯.৫ ওভার)
রোহান মুস্তাফা ৭৭ (৫০)
রশীদ খান ৩/২৫ (৪ ওভার)
করিম সাদিক ৭২ (৪৮)
রোহান মুস্তাফা ৩/১৯ (২.৫ ওভার)
সংযুক্ত আরব আমিরাত ১৬ রানে বিজয়ী
খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম, ফতুল্লা
আম্পায়ার: সারিকা প্রসাদ (সিঙ্গাপুর) ও শরফুদ্দৌলা (বাংলাদেশ)
  • সংযুক্ত আরব আমিরাত টসে জয়ী হয় এবং ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়।
  • সংযুক্ত আরব আমিরাত এশিয়া কাপে তাদের প্রথম বিজয় লাভ করে।[১১]
  • রোহান মুস্তাফা'র ৭৭ রান টি২০আইতে আমিরাতি খেলোয়াড়দের মধ্যে সর্বোচ্চ রান।[১২]
  • সংযুক্ত আরব আমিরাত টি২০আইয়ে তাদের দলীয় সর্বোচ্চ রান করে।[১৩]

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬
১৯:৩০
স্কোরকার্ড
ওমান 
১৮০/৫ (২০ ওভার)
 হংকং
১৭৫/৭ (২০ ওভার)
যতীন্দার সিং ৪২ (৩৫)
নাদিম আহমেদ ৩/২৭ (৪ ওভার)
বাবর হায়াত ১২২ (৬০)
আমির আলী ১/৬ (১ ওভার)

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬
১৫:০০
স্কোরকার্ড
ওমান 
১৬৫/৪ (২০ ওভার)
 আফগানিস্তান
১৬৮/৭ (১৯.৩ ওভার)
নূর আলী ৬৩ (৪৪)
মেহরান খান ৩/১৮ (৪ ওভার)
আফগানিস্তান ৩ উইকেটে বিজয়ী
খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম, ফতুল্লা
আম্পায়ার: আনিসুর রহমান (বাংলাদেশ) ও সারিকা প্রসাদ (সিঙ্গাপুর)
  • ওমান টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • জিশান মাকসুদ প্রথম ওমানী ক্রিকেটার হিসেবে টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে ৫০ ঊর্ধ্ব রান করেন।[২০]
  • আদনান ইলিয়াসের ৫৪ রান যে-কোন ওমানী ক্রিকেটারের টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ।[২০]

২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬
১:০০
স্কোরকার্ড
হংকং 
১৪৬/৭ (২০ ওভার)
 সংযুক্ত আরব আমিরাত
১৪৭/৪ (১৮.৩ ওভার)
সংযুক্ত আরব আমিরাত ৬ উইকেটে বিজয়ী
খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়াম, ফতুল্লা
আম্পায়ার: বুদ্ধি প্রধান (নেপাল) ও শরফুদ্দৌলা (বাংলাদেশ)
  • হংকং টসে জয়ী হয়ে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • এই খেলার ফলাফলের ভিত্তিতে হংকং বাদ পড়ে[২১]

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬
১৫:০০
স্কোরকার্ড
আফগানিস্তান 
১৭৮/৭ (২০ ওভার)
 হংকং
১১২ (১৭.১ ওভার)
অংশুমান রথ ৪১ (৩৮)
মোহাম্মাদ নবী ৪/১৭ (৪ ওভার)
আফগানিস্তান ৬৬ রানে জয়লাভ করে।
শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, ঢাকা
আম্পায়ার: এনামুল হক (বাংলাদেশ) ও বুদ্ধি প্রধান (নেপাল)

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৬
১৯:৩০
স্কোরকার্ড
সংযুক্ত আরব আমিরাত 
১৭২/৬ (২০ ওভার)
 ওমান
১০১/৮ (২০ ওভার)
মুহাম্মদ কালিম ৫০ (৪০)
আমির কালিম ৪/৩১ (৩.৪ ওভার)
সংযুক্ত আরব আমিরাত ৭১ রানে বিজয়ী।
শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম, ঢাকা
আম্পায়ার: সারিকা প্রসাদ (সিঙ্গাপুর) ও শরফুদ্দৌলা (বাংলাদেশ)
  • ওমান টসে জয়ী হয়ে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয়।
  • খেলার ফলাফলে ওমান ও আফগানিস্তান বিদায় নেয়; অন্যদিকে সংযুক্ত আরব আমিরাত এশিয়া কাপে খেলার সুযোগ পায়।[২২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Peter Della Penna (4 November 2015). "Asia Cup T20 Qualifier scheduled for February" – ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগৃহীত ৫ নভেম্বর ২০১৫।
  2. "UAE storm to main draw with convincing win" (ইংরেজি ভাষায়)। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  3. http://www.cricbuzz.com/cricket-news/72877/asia-cup-2016-likely-to-be-played-in-uae
  4. Peter Della Penna (4 September 2015). "One Associate to feature in 2016 Asia Cup" – ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগৃহীত ৫ নভেম্বর ২০১৫।
  5. Paul Radley (4 January 2014). "Afghanistan cricket boosted with spot in the Asia Cup"The National (ইংরেজি ভাষায়)। সংগৃহীত ৫ নভেম্বর ২০১৫।
  6. "Afghanistan's pedigree, Oman's debut"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  7. "Shapoor, Hassan return to Afghanistan squad for World T20"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  8. "Hong Kong pick ex-Australia keeper Campbell for WT20"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৮ জানুয়ারি ২০১৬ 
  9. "Oman Squad, Asia Cup 2016"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  10. "United Arab Emirates Squad, Asia Cup 2016"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  11. Maiden Victory
  12. "Mustafa magic shocks Afghanistan"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  13. "UAE scored their highest T20Is total"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  14. "Records: Asia Cup"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  15. "Oman scored their highest T20Is total"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  16. "HK scored their highest T20Is total"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  17. "Hong Kong: Records: Twenty20 Internationals"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  18. "Debutants Oman survive Hayat 122"ESPN Cricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  19. "HK coach fuming at 'cowardly' Oman-kad"ESPN Cricinfo (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  20. "Oman: Records: Twenty20 Internationals"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  21. "Naveed, Shahzad take UAE closer to Asia Cup berth"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ 
  22. "UAE storm to main draw with convincing win"ইএসপিএন ক্রিকইনফো (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৬