মুর্শিদাবাদ বিধানসভা কেন্দ্র

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
মুর্শিদাবাদ
বিধানসভা কেন্দ্র
মুর্শিদাবাদ পশ্চিমবঙ্গ-এ অবস্থিত
মুর্শিদাবাদ
মুর্শিদাবাদ
মুর্শিদাবাদ ভারত-এ অবস্থিত
মুর্শিদাবাদ
মুর্শিদাবাদ
পশ্চিমবঙ্গ
স্থানাঙ্ক: ২৪°১১′ উত্তর ৮৮°১৬′ পূর্ব / ২৪.১৮৩° উত্তর ৮৮.২৬৭° পূর্ব / 24.183; 88.267স্থানাঙ্ক: ২৪°১১′ উত্তর ৮৮°১৬′ পূর্ব / ২৪.১৮৩° উত্তর ৮৮.২৬৭° পূর্ব / 24.183; 88.267
দেশ ভারত
রাজ্যপশ্চিমবঙ্গ
জেলামুর্শিদাবাদ
কেন্দ্র নং.৬৪
আসনখোলা
লোকসভা কেন্দ্র১১.মুর্শিদাবাদ
নির্বাচনী বছর১৮৮,১৪৭ (২০১১)

মুর্শিদাবাদ (বিধানসভা কেন্দ্র) ভারতীয় রাজ্য পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ জেলার একটি বিধানসভা কেন্দ্র

এলাকা[সম্পাদনা]

ভারতের সীমানা পুনর্নির্ধারণ কমিশনের নির্দেশিকা অনুসারে, ৬৪ নং মুর্শিদাবাদ বিধানসভা কেন্দ্রটি মুর্শিদাবাদ পৌরসভা, জিয়াগঞ্জ আজিমগঞ্জ পৌরসভা মুর্শিদাবাদ জিয়াগঞ্জ সমষ্টি উন্নয়ন ব্লক এর অন্তর্গত।[১]

মুর্শিদাবাদ বিধানসভা কেন্দ্রটি ১১ নং মুর্শিদাবাদ লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত।[১]

বিধানসভার বিধায়ক[সম্পাদনা]

নির্বাচন
বছর
কেন্দ্র বিধায়ক রাজনৈতিক দল
১৯৫১ মুর্শিদাবাদ দুর্গাপদ সিংহ ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস[২]
১৯৫৭ দুর্গাপদ সিংহ ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস[৩]
১৯৬২ বীরেন্দ্র নারায়ণ রায় নির্দল[৪]
১৯৬৭ এস.কে.এ. মির্জা ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস[৫]
১৯৬৯ মহম্মদ ইদ্রিস আলি ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস[৬]
১৯৭১ মহম্মদ ইদ্রিস আলি ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস[৭]
১৯৭২ মহম্মদ ইদ্রিস আলি ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস[৮]
১৯৭৭ ছায়া ঘোষ সারা ভারত ফরওয়ার্ড ব্লক[৯]
১৯৮২ ছায়া ঘোষ সারা ভারত ফরওয়ার্ড ব্লক[১০]
১৯৮৭ আব্দুল মান্নান হোসেন ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস[১১]
১৯৯১ ছায়া ঘোষ সারা ভারত ফরওয়ার্ড ব্লক [১২]
১৯৯৬ মাজাম্মেল হক নির্দল[১৩]
২০০১ ছায়া ঘোষ সারা ভারত ফরওয়ার্ড ব্লক[১৪]
২০০৬ বিভাস চক্রবর্তী সারা ভারত ফরওয়ার্ড ব্লক[১৫]
২০১১ শাওনি সিংহ রায় ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস[১৬]

নির্বাচনী ফলাফল[সম্পাদনা]

২০১১[সম্পাদনা]

২০১১ সালের নির্বাচনে, কংগ্রেসের শাওনি সিংহ রায় তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ফরওয়ার্ড ব্লকের বিভাস চক্রবর্তীকে পরাজিত করেন।

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন, ২০১১: মুর্শিদাবাদ কেন্দ্র[১৬][১৭]
দল প্রার্থী ভোট % ±%
কংগ্রেস শাওনি সিংহ রায় ৭৫,৪৪১ ৪৬.০৩ #
ফরওয়ার্ড ব্লক বিভাষ চক্রবর্তী ৬৯.০৮৯ ৪২.১৫ -৬.৮৩
বিজেপি রঞ্জিত কুমার দাস ৯,৯৪৬ ৬.০৭
নির্দল শ্যামল কৃষ্ণ দাস ৪,৪৯৫
পার্টি অফ ডেমোক্রেটিক সোশ্যালিজম (ইন্ডিয়া) এমডি. কাশিমুদ্দিন শেখ ২,৭৫৩
এসইউসিআই(সি) গুলশানারা ইভা ২,১৬৯
ভোটার উপস্থিতি ১৬৩,৮৯৩ ৮৭.১১
ফরওয়ার্ড ব্লক থেকে কংগ্রেস অর্জন করেছে ঘুরে যাওয়া

১৯৭৭-২০০৬[সম্পাদনা]

২০০৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে[১৫], ফরওয়ার্ড ব্লকের বিভাস চক্রবর্তী মুর্শিদাবাদ কেন্দ্র থেকে জয়লাভ করেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আইপিএফবি জয়ন্ত রায়কে পরাজিত করেন। অধিকাংশ বছরে প্রতিযোগিতাগুলিতে প্রার্থীদের বিভিন্ন ধরনের কোণঠাসা করে ছিল কিন্তু শুধুমাত্র বিজয়ী ও রানার্সকে উল্লেখ করা হচ্ছে। ২০০১ সালে ফরওয়ার্ড ব্লকের ছায়া ঘোষ নির্দলের আবদুল মান্নান হোসেনকে পরাজিত করেন।[১৪] ১৯৯৬ সালে নির্দলের মাজাম্মেল হক কংগ্রেসের আব্দুল ওহাব মণ্ডলকে পরাজিত করেন[১৩], ফরওয়ার্ড ব্লকের ছায়া ঘোষ ১৯৯১ সালে কংগ্রেসের আসাক আলীকে পরাজিত করেন।[১২] কংগ্রেসের আবদুল মান্নান হোসেন ১৯৮৭ সালে নির্দলের মদন মোহন রায়কে পরাজিত করেন।[১১] ফরওয়ার্ড ব্লকের ছায়া ঘোষ ১৯৮২ সালে আইসিএসের দীদার বক্সীকে পরাজিত করেন[১০] এবং ১৯৭৭ সালে জনতা পার্টির সৈয়দ নবাব জানি মির্জা পরাজিত করেন।[৯][১৮]

১৯৫১-১৯৭২[সম্পাদনা]

১৯৭২[৮] , ১৯৭১[৭] এবং ১৯৬৯ সালে[৬] কংগ্রেসের মহম্মদ ইদ্রিস আলী জয়ী হন। কংগ্রেসের এস.কে. এ. মির্জা ১৯৬৭ সালে জয়ী হন।[৫] নির্দলের বীরেন্দ্র নারায়ণ রায় ১৯৬২ সালে জয়ী হন।[৪] কংগ্রেসের দুর্গাপদ সিংহ ১৯৫৭ সালে জয়ী হন[৩] এবং স্বাধীন ভারতের প্রথম নির্বাচন ১৯৫১ সালে জয়ী হন।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Delimitation Commission Order No. 18" (PDF)পশ্চিমবঙ্গ (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুন ২০১৪ 
  2. "General Elections, India, 1951, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  3. "General Elections, India, 1957, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  4. "General Elections, India, 1962, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  5. "General Elections, India, 1967, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  6. "General Elections, India, 1969, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  7. "General Elections, India, 1971, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  8. "General Elections, India, 1972, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  9. "General Elections, India, 1977, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  10. "General Elections, India, 1982, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  11. "General Elections, India, 1987, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  12. "General Elections, India, 1991, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  13. "General Elections, India, 1996, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  14. "General Elections, India, 2001, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  15. "General Elections, India, 2006, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  16. "General Elections, India, 2011, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  17. "West Bengal Assembly Election 2011"Murshidabad (ইংরেজি ভাষায়)। Empowering India। সংগ্রহের তারিখ ২০ এপ্রিল ২০১১ 
  18. "58 - Murshidabad Assembly Constituency"১৯৭৭ থেকে দল অনুযায়ী তুলনা (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১০