বহরমপুর বিধানসভা কেন্দ্র

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বরহমপুর
বিধানসভা কেন্দ্র
বরহমপুর পশ্চিমবঙ্গ-এ অবস্থিত
বরহমপুর
বরহমপুর
বরহমপুর ভারত-এ অবস্থিত
বরহমপুর
বরহমপুর
পশ্চিমবঙ্গ
স্থানাঙ্ক: ২৪°০৬′ উত্তর ৮৮°১৫′ পূর্ব / ২৪.১০০° উত্তর ৮৮.২৫০° পূর্ব / 24.100; 88.250স্থানাঙ্ক: ২৪°০৬′ উত্তর ৮৮°১৫′ পূর্ব / ২৪.১০০° উত্তর ৮৮.২৫০° পূর্ব / 24.100; 88.250
দেশ ভারত
রাজ্যপশ্চিমবঙ্গ
জেলামুর্শিদাবাদ
কেন্দ্র নং.৭২
আসনখোলা
লোকসভা কেন্দ্র১০.বহরমপুর
নির্বাচনী বছর২০৫,৬৩৩ (২০১১)

বরহমপুর (বিধানসভা কেন্দ্র) ভারতীয় রাজ্য পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদ জেলার একটি বিধানসভা কেন্দ্র

এলাকা[সম্পাদনা]

ভারতের সীমানা পুনর্নির্ধারণ কমিশনের নির্দেশিকা অনুসারে, ৭২ নং বহরমপুর বিধানসভা কেন্দ্রটি বহরমপুর পৌরসভা এবং ভাকুরি-১, দৌলতাবাদ, গুরুদাসপুর, হাতিনগর এবং মণীন্দ্রনগর গ্রাম পঞ্চায়েত গুলি বহরমপুর সমষ্টি উন্নয়ন ব্লক এর অন্তর্গত।[১]

বহরমপুর বিধানসভা কেন্দ্রটি ১০ নং বহরমপুর লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত।[১]

বিধানসভার বিধায়ক[সম্পাদনা]

নির্বাচন
বছর
কেন্দ্র বিধায়ক রাজনৈতিক দল
১৯৫১ বহরমপুর বিজয় কুমার ঘোষ ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস [২]
১৯৫৭ বিজয় কুমার ঘোষ ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস[৩]
১৯৬২ সনত কুমার রাহা ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি[৪]
১৯৬৭ এস. ভট্টাচার্য ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস [৫]
১৯৬৯ সনত কুমার রাহা ভারতের কমিউনিস্ট পার্টি [৬]
১৯৭১ শঙ্কর দাস পাল ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস[৭]
১৯৭২ শঙ্কর দাস পাল ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস[৮]
১৯৭৭ দেবব্রত বন্দোপাধ্যায় বিপ্লবী সমাজতন্ত্রী দল[৯]
১৯৮২ দেবব্রত বন্দোপাধ্যায় বিপ্লবী সমাজতন্ত্রী দল[১০]
১৯৮৭ দেবব্রত বন্দোপাধ্যায় বিপ্লবী সমাজতন্ত্রী দল[১১]
১৯৯১ শঙ্কর দাস পাল ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস[১২]
১৯৯৬ মায়া রাণী পাল ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস[১৩]
২০০১ মায়া রাণী পাল ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস [১৪]
২০০৬ মনোজ চক্রবর্তী কংগ্রেস-সমর্থিত নির্দল[১৫]
২০১১ বহরমপুর মনোজ চক্রবর্তী ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস[১৬]

নির্বাচনী ফলাফল[সম্পাদনা]

২০১৬[সম্পাদনা]

২০১৬ সালের নির্বাচনে, কংগ্রেসের মনোজ চক্রবর্তী তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল কংগ্রেসের ডা: সুজাতা ব্যানার্জীকে পরাজিত করেন।

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন, ২০১৬: বহরমপুর কেন্দ্র[১৬][১৭]
দল প্রার্থী ভোট % ±%
কংগ্রেস মনোজ চক্রবর্তী ১২৭,৭৬২ ৬৯.২০%
তৃণমূল কংগ্রেস ডা: সুজাতা ব্যানার্জী ৩৫,৪৮৯ ১৯.২০%
বিজেপি মালা ব্যানার্জী ১৮,৮০৫ ১০.২০%
এসইউসিআই (সি) কৌশিক চ্যাটার্জী ১,৭২৭ ০.৯০%
নির্দল সুজিত কুমার দাস ৮৮১ ০.৫০%
সংখ্যাগরিষ্ঠতা ৯২,২৭৩ ৫০.০০%
ভোটার উপস্থিতি ১,৮৪,৬৬৪ ৮০.২০%
কংগ্রেস নির্বাচনী এলাকা ধরে রাখে সুইং +৩.৩৪#

২০১১[সম্পাদনা]

২০১১ সালের নির্বাচনে, কংগ্রেসের মনোজ চক্রবর্তী তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আরএসপি'র তড়িৎ ব্রহ্মচারীকে পরাজিত করেন।

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন, ২০১১: বহরমপুর কেন্দ্র[১৬][১৭]
দল প্রার্থী ভোট % ±%
কংগ্রেস মনোজ চক্রবর্তী ৯১,৫৭৮ ৫৪.৯০ -৪.৫২#
আরএসপি তড়িৎ ব্রহ্মচারী ৪৮,২৬৫ ২৮.৯৩ -৭.৮৬
বিজেপি দেবাশিষ সরকার ১২,৭৫৮ ৭.৬৫
নির্দল দেবযানী সাহা ৮,১৬২ ৪.৮৯
এসডিপিআই তায়েবদুল ইসলাম ৩,৭৮৭ ২.৩০
আইপিএফবি সুজিত কুমার দাস ১,৩৩১ ০.৮০
জেডি(ইউ) সুনিল কুমার মণ্ডল ৯৪০ ০.৬০
সংখ্যাগরিষ্ঠতা ৪৩,৩১৩ ২৬.০
ভোটার উপস্থিতি ১৬৬,৮২১ ৮১.১৩
কংগ্রেস নির্বাচনী এলাকা ধরে রাখে সুইং +৩.৩৪#

২০০৬[সম্পাদনা]

২০০৬ সালের নির্বাচনে, নির্দলের মনোজ চক্রবর্তী বহরমপুর কেন্দ্রের কংগ্রেস এমপি অধীর রঞ্জন চৌধুরী সমর্থিত তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আরএসপি'র অমল কর্মকারকে পরাজিত করেন।

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন, ২০১১: বহরমপুর কেন্দ্র [১৬][১৮]
দল প্রার্থী ভোট % ±%
নির্দল মনোজ চক্রবর্তী ৯৪,৫৬২ ৫০.৬০
আরএসপি অমল কর্মকার ৬৮,৮৩৬ ৩৬.৮০
কংগ্রেস মায়া রাণী পাল ১৬,৫৯৬ ৮.৯০
নির্দল অপূর্ব ব্যানার্জী ২,৮৩৪ ১.৫০
নির্দল সুনিল কুমার মণ্ডল ২,৭৩৭ ১.৫০
নির্দল এমডি. হায়াতুর রহমান ১,৫১৬ ০.৮০
ভোটার উপস্থিতি ১৮৭,০৮১ ৮১.১৩
কংগ্রেস নির্বাচনী এলাকা ধরে রাখে সুইং +৩.৩৪#

১৯৭৭-২০০৬[সম্পাদনা]

২০০৬ সালের রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনে[১৫], নির্দলের মনোজ চক্রবর্তী বহরমপুর কেন্দ্র থেকে জয়লাভ করেন তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আরএসপি এর অমল কর্মকারকে পরাজিত করেন। মনোজ চক্রবর্তী নির্দল প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলেন, বিরোধী কংগ্রেস প্রার্থী অধীর চৌধুরী তুলে ধরেন কংগ্রেস প্রার্থী মায়া রাণী পাল পুনরায় আপত্তি করেন।[১৯] পরে তিনি কংগ্রেসে ফিরে আসেন।[২০] অধিকাংশ বছরে প্রতিযোগিতাগুলিতে প্রার্থীদের বিভিন্ন ধরনের কোণঠাসা করে ছিল কিন্তু শুধুমাত্র বিজয়ী ও রানার্সকে উল্লেখ করা হচ্ছে। কংগ্রেসের মায়া রাণী পাল ২০০১ সালে আরএসপি'র কার্তিক সাহানাকে[১৪] এবং ১৯৯৬ সালে আরএসপি'র বিশ্বনাথ ব্যানার্জীকে পরাজিত করেন।[১৩] ১৯৯১ সালে কংগ্রেসের শঙ্কর দাস পাল আরএসপি'র ইপ্সিতা গুপ্তকে পরাজিত করেন।[১২] আরএসপি'র দেবব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় ১৯৮৭[১১] এবং ১৯৮২ সালে[১০] কংগ্রেসের শঙ্কর দাস পালকে পরাজিত করেন এবং কংগ্রেসের সুব্রত সাহাকে ১৯৭৭ সালে পরাজিত করেন।[৯][২১]

১৯৫১-১৯৭২[সম্পাদনা]

১৯৭২[৮] এবং ১৯৭১ সালে[৭] কংগ্রেস শঙ্কর দাস পাল জয়ী হন। সিপিআই এর সনত কুমার রাহা ১৯৬৯ সালে জয়ী হন।[৬] কংগ্রেসের এস ভট্টাচার্য ১৯৬৭ সালে জয়ী হন।[৫] সিপিআই এর সনত কুমার রাহা ১৯৬২ সালে জয়ী হন।[৪] কংগ্রেসের বিজয় কুমার ঘোষ ১৯৫৭ সালে[৩] এবং স্বাধীন ভারতের প্রথম নির্বাচন ১৯৫১ সালে জয়ী হন।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Delimitation Commission Order No. 18" (PDF)West Bengal (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুন ২০১৪ 
  2. "General Elections, India, 1951, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  3. "General Elections, India, 1957, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  4. "General Elections, India, 1962, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  5. "General Elections, India, 1967, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  6. "General Elections, India, 1969, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  7. "General Elections, India, 1971, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  8. "General Elections, India, 1972, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  9. "General Elections, India, 1977, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  10. "General Elections, India, 1982, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  11. "General Elections, India, 1987, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  12. "General Elections, India, 1991, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  13. "General Elections, India, 1996, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  14. "General Elections, India, 2001, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  15. "General Elections, India, 2006, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  16. "General Elections, India, 2011, to the Legislative Assembly of West Bengal" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুলাই ২০১৪ 
  17. "West Bengal Assembly Election 2011"Baharampur (ইংরেজি ভাষায়)। Empowering India। সংগ্রহের তারিখ ২০ এপ্রিল ২০১১ 
  18. "West Bengal Assembly Election 2006"Baharampur (ইংরেজি ভাষায়)। Empowering India। সংগ্রহের তারিখ ২০ এপ্রিল ২০১১ 
  19. "Adhir beats Cong at home" (ইংরেজি ভাষায়)। Calcutta, India: The Telegraph 12 May 2006। ১২ মে ২০০৬। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মে ২০১১ 
  20. Hussain, Alamgir (১৭ এপ্রিল ২০১১)। "Didi turns up heat on dissidents" (ইংরেজি ভাষায়)। Calcutta, India: The Telegraph 17 April 2011। সংগ্রহের তারিখ ২৫ মে ২০১১ 
  21. "63 - Berhampore Assembly Constituency"১৯৭৭ থেকে দল অনুযায়ী তুলনা (ইংরেজি ভাষায়)। ভারতের নির্বাচন কমিশন। সংগ্রহের তারিখ ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১০