জাস্টিন অনটং

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
জাস্টিন অনটং
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম জাস্টিন লি অনটং
জন্ম (১৯৮০-০১-০৪) ৪ জানুয়ারি ১৯৮০ (বয়স ৩৭)
পার্ল, কেপ প্রদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকা
ডাকনাম রোডি
ব্যাটিংয়ের ধরন ডানহাতি
বোলিংয়ের ধরন ডানহাতি অফ-স্পিন
ভূমিকা ব্যাটসম্যান, মাঝে-মধ্যে বোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২৮২)
২ জানুয়ারি ২০০২ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট ২৮ নভেম্বর ২০০৪ বনাম ভারত
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৬৪)

২৮ এপ্রিল ২০০১ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ

      
শেষ ওডিআই ৭ নভেম্বর ২০০৮ বনাম বাংলাদেশ
ওডিআই শার্ট নং ১৪
টি২০আই অভিষেক
(ক্যাপ ৩৩)

১৮ জানুয়ারি ২০০৮ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ

      
শেষ টি২০আই

১৪ জানুয়ারি ২০১৫ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ

      
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছর দল
১৯৯৭/৯৮-২০০৩/০৪ বোল্যান্ড
২০০৪/০৫-২০০৭/০৮ লায়ন্স
২০০৮/০৯- কেপ কোবরাস
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই টি২০আই এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ২৮ ১৪ ১৬৭
রানের সংখ্যা ৫৭ ১৮৪ ১৫৮ ৯,৯৭৮
ব্যাটিং গড় ১৯.০০ ১৩.১৪ ১৫.৮০ ৪০.৫৪
১০০/৫০ ০/০ ০/০ ০/০ ১৯/৫৪
সর্বোচ্চ রান ৩২ ৩২ ৪৮ ১৬৬
বল করেছে ১৮৫ ৫৩৮ ৩৬ ১০,৩৫৮
উইকেট ১২৮
বোলিং গড় ১৩৩.০০ ৪৪.০০ ৬৬.০০ ৪২.৪৭
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ১/৭৯ ৩/৩০ ১/২৫ ৫/৬২
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/– ১৫/– ৭/– ১১৭/–
উৎস: ক্রিকইনফো, ১৪ জানুয়ারি ২০১৫

জাস্টিন লি অনটং (ইংরেজি: Justin Ontong; জন্ম: ৪ জানুয়ারি, ১৯৮০) কেপ প্র্রদেশের পার্লে জন্মগ্রহণকারী দক্ষিণ আফ্রিকার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। দলে তিনি মূলতঃ অল-রাউন্ডার হিসেবে খেলছেন।[১] ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি মাঝে-মাঝে ডানহাতে অফ-স্পিন বোলিং করে থাকেন জাস্টিন অনটং। ঘরোয়া ক্রিকেটে কেপ কোবরাস দলে প্রতিনিধিত্ব করছেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

বোল্যান্ড দলের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে পদার্পণ করেন। ফেব্রুয়ারি, ১৯৯৮ সালে পার্লের বোল্যান্ড পার্কে অনুষ্ঠিত খেলায় নাটালের বিপক্ষে তার অভিষেক ঘটে। ফেব্রুয়ারি, ১৯৯৯ সালে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সদস্যরূপে পাকিস্তানসহ আয়ারল্যান্ড সফর করেন। তারপর দক্ষিণ আফ্রিকা একাডেমির সদস্যরূপে স্কটল্যান্ড যান।

জানুয়ারি, ২০০০ সালে সফরকারী ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকা আমন্ত্রিত একাদশের প্রতিনিধিত্ব করেন। এরপর আগস্ট-সেপ্টেম্বরে দক্ষিণ আফ্রিকা এ-দলের সদস্য হিসেবে ওয়েস্ট ইন্ডিজে সফর করেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০০১ সালের শুরুর দিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের জন্য প্রথমবারের মতো দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় দলে অন্তর্ভুক্ত হন। জ্যামাইকার সাবিনা পার্কে অনুষ্ঠিত প্রথম একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে তার। খেলায় নয় নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে ১১ রান তোলেন ও ৫ ওভার বোলিং করেন। ৭ খেলার ওডিআই সিরিজে তিনি ছয়টিতে অংশগ্রহণ করেন। পুরো সিরিজে তিনি ১৩ রান ও ২ উইকেট লাভ করেন।

সেপ্টেম্বর, ২০০১ সালে জিম্বাবুয়ে সফরে তিনি আরও একটি ওডিআই খেলায় অংশ নেন। এরপরই তিনি অস্ট্রেলিয়া সফরের জন্য মনোনীত হন। প্রথম দুই টেস্টে অংশ না নিলেও সিডনি টেস্টে তার অন্তর্ভুক্তি বিতর্কে পরিণত হয়। নির্বাচকমণ্ডলী জ্যাকুয়েস রুডল্ফকে দলে রাখলেও তৎকালীন ইউসিবি সভাপতি পার্সি সনের হস্তক্ষেপে এ সিদ্ধান্ত বাতিল হয়ে যায়। এ প্রসঙ্গে পার্সি সন জানান যে, বর্ণজনিত খেলোয়াড় অন্তর্ভুক্তির নিয়মের কারণে অনটংকে দলে রাখা হয়েছে।[২] অবশেষে সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে তার টেস্ট অভিষেক হয়। খেলায় তিনি ৯ ও ৩২ রান তোলেন যাতে তার দল বিশাল ব্যবধানে পরাজিত হয়।

২০১১-১২ মৌসুমে ঘরোয়া ক্রিকেটে কেপ কোবরাস দলে চমৎকার ক্রীড়ানৈপুণ্য প্রদর্শন করেন। এরফলে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে অভিজ্ঞ গ্রেইম স্মিথের নেতৃত্বাধীন দক্ষিণ আফ্রিকার টুয়েন্টি২০ ও একদিনের আন্তর্জাতিক দলে খেলার জন্য পুণরায় ডাক পান।[৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. [১] Cricinfo, 3 January 2015
  2. Cricket chief dies, inthenews.co.uk, 27 May 2007.
  3. Justin Ontong recalled to limited-overs squads ESPNCricinfo. Retrieved 25 January 2012

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]