আলভিরো পিটারসন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
আলভিরো পিটারসন
Alviro Petersen.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামআলভিরো নাথান পিটারসন
জন্ম (1980-11-25) ২৫ নভেম্বর ১৯৮০ (বয়স ৩৮)
পোর্ট এলিজাবেথ, কেপ প্রদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকা
ডাকনামভিরো
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ ব্রেক
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৩০৮)
১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১০ বনাম ভারত
শেষ টেস্ট২ জানুয়ারি ২০১৫ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৮৫)
১৮ সেপ্টেম্বর ২০০৬ বনাম জিম্বাবুয়ে
শেষ ওডিআই২৬ জুলাই ২০১৩ বনাম শ্রীলঙ্কা
ওডিআই শার্ট নং৭৩
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০১-২০০৬নর্দার্নস
২০০৪-২০০৬টাইটান্স
২০০৬-বর্তমানহাইভেল্ড লায়ন্স (দল নং ৭৩)
২০০৮-২০১০নর্থ ওয়েস্ট
২০১১গ্ল্যামারগন
২০১২এসেক্স
২০১৩-১৪সমারসেট
২০১৫-বর্তমানল্যাঙ্কাশায়ার
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি লিএ
ম্যাচ সংখ্যা ৩৬ ২১ ২১২ ১৯০
রানের সংখ্যা ২,০৯৩ ৫০৪ ১৩,৭১০ ৬,০৯৮
ব্যাটিং গড় ৩৪.৮৮ ২৮.০০ ৩৯.৫১ ৩৬.২৯
১০০/৫০ ৫/৮ ০/৪ ৩৯/৫৪ ১২/৩৩
সর্বোচ্চ রান ১৮২ ৮০ ২৮৬ ১৪৫*
বল করেছে ১১৪ ১,৭৩২ ৫১৭
উইকেট ১৭
বোলিং গড় ৬২.০০ ৫১.৫২ ৫৪.৬৬
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ১/২ ৩/৫৮ ২/৪৮
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৩১/– ৫/– ১৬৭/– ৭৩/–

আলভিরো নাথান পিটারসন (ইংরেজি: Alviro Petersen; জন্ম: ২৫ নভেম্বর, ১৯৮০) কেপ প্রদেশের পোর্ট এলিজাবেথে জন্মগ্রহণকারী দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারদক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য আলভিরো পিটারসন টেস্ট, একদিনের আন্তর্জাতিক (ওডিআই) এবং টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক (টি২০আই) ক্রিকেট খেলায় প্রতিনিধিত্ব করছেন। এছাড়াও তিনি ইংল্যান্ডের কাউন্টি ক্রিকেটে ল্যাঙ্কাশায়ার কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে খেলছেন। দক্ষিণ আফ্রিকার ঘরোয়া ক্রিকেটে হাইভেল্ড লায়ন্সের হয়ে খেলার পাশাপাশি দলের অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করছেন।

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

পোর্ট এলিজাবেথের গেলভেনডেল শহরে পিটারসন জন্মগ্রহণ করেন ও সেখানেই তিনি বড় হন। স্টেট হাই স্কুলের অধ্যয়ন করেন ও সাবেক দক্ষিণ আফ্রিকান টেস্ট ব্যাটসম্যান অ্যাশওয়েল প্রিন্সের অনুসারী তিনি।[১] এক ট্যাক্সি ড্রাইভারের সন্তান তিনি।[২] নর্দান্স ক্রিকেট দলের পক্ষ হয়ে ২০০১ সালে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলতে শুরু করেন।

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

২০০৬ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার এ দলে খেলার পূর্বে দক্ষিণ আফ্রিকার একদিনের দলের সদস্য হিসেবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুইটি ওডিআইয়ে অংশগ্রহণ করেছিলেন। ২০১০ সালে কলকাতায় অনুষ্ঠিত ভারত দলের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক ঘটে তার ও অভিষেক টেস্টেই সেঞ্চুরি করেন তিনি। এরফলে অ্যান্ড্রু হাডসনজ্যাক রুডল্‌ফের পর তৃতীয় দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেকেই সেঞ্চুরি করার গৌরব অর্জন করেন।[৩]

২০১০ সালে বাংলাদেশের জাতীয় ক্রিকেট লীগের টুয়েন্টি২০ প্রতিযোগিতায় কিংস অব খুলনার হয়ে খেলেন।[৪] একই বছরে বিদেশে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৩টি ও পাকিস্তানের বিপক্ষে ২টি টেস্টে অংশগ্রহণ করেন। নিজ দেশে অনুষ্ঠিত সফরকারী ভারতের বিরুদ্ধে অনুষ্ঠিত নিষ্পত্তিবিহীন সিরিজেও খেলেন।[৫] কিন্তু ঐ তিনটি সিরিজের কোনটিতেই সেঞ্চুরি করতে ব্যর্থ হওয়ায় নভেম্বর, ২০১১ সালে নিজ দেশে অনুষ্ঠিত সফরকারী অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজ থেকে বাদ পড়েন।[৬]

অবসর[সম্পাদনা]

৬ জানুয়ারি, ২০১৫ তারিখে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে অনুষ্ঠিত তৃতীয় টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার বিজয়ের পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে তার অবসরের কথা ঘোষণা করেন। আরও ঘোষণা করেন যে, ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে কোলপ্যাক চুক্তিতে খেলবেন।[৭] এরপর ২২ জানুয়ারি, ২০১৫ তারিখে ল্যাঙ্কাশায়ারের সদস্যরূপে দুই বছর মেয়াদে চুক্তিনামায় স্বাক্ষর করেন।[৮]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Sunshine and space have helped make Alviro Petersen and Co a force to be reckoned with"The Daily Telegraph। ১ ডিসেম্বর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১২ 
  2. Chakrabarty, Shamik (১৫ ডিসেম্বর ২০১০)। "Son of a cabbie becomes the story of Eden"Indian Express। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১২ 
  3. "Alviro Petersen: South Africa"ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৩ জানুয়ারি ২০১২ 
  4. "Rangers shatter Kings dream"www.sportsencounter.com। ২২ এপ্রিল ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ৩ জানুয়ারি ২০১২ 
  5. "Statistics / Statsguru / AN Petersen / Test matches"ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১২ 
  6. Adams, Zaahier (৪ জানুয়ারি ২০১২)। "Proteas set to select rookie"The Independent। সংগ্রহের তারিখ ৪ জানুয়ারি ২০১২ 
  7. "Petersen quits international cricket"। ESPNcricinfo। ৬ জানুয়ারি ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ৬ জানুয়ারি ২০১৫ 
  8. "Lancashire confirm Petersen deal"। ESPNcricinfo। ২২ জানুয়ারি ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২২ জানুয়ারি ২০১৫ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]