অভিনন্দননাথ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অভিনন্দননাথ
৪র্থ জৈন তীর্থঙ্কর
Abhinandananatha
অভিনন্দননাথ জিন
অন্যান্য নামঅভিনন্দন স্বামী
প্রতীকবাঁদর
রঙসোনালি

অভিনন্দননাথ বা অভিনন্দন স্বামী ছিলেন বর্তমান অবসর্পিণী যুগের চতুর্থ তীর্থঙ্কর। কথিত আছে, তিনি ৫০ লক্ষ "পূর্ব", অর্থাৎ ৩৫২.৮০ কুইন্টিলিয়ন বছর জীবিত ছিলেন। অযোধ্যায় ইক্ষ্বাকু বংশীয় রাজা সম্বর ও রাণী সিদ্ধার্থা ছিলেন অভিনন্দননাথের পিতামাতা। ভারতীয় পঞ্জিকা অনুসারে, মাঘ মাসের শুক্লা দ্বিতীয়া তিথিতে তাঁর জন্ম। জৈনদের বিশ্বাস, তিনি আত্মার সকল কর্ম ধ্বংস করে "সিদ্ধ" বা মুক্ত আত্মায় পরিণত হয়েছিলেন।

জীবন[সম্পাদনা]

অভিনন্দননাথ বা অভিনন্দন স্বামী ছিলেন বর্তমান অবসর্পিণী যুগের চতুর্থ তীর্থঙ্কর[১] কথিত আছে, তিনি ৫০ লক্ষ "পূর্ব", অর্থাৎ ৩৫২.৮০ কুইন্টিলিয়ন বছর জীবিত ছিলেন।[২] অযোধ্যায় ইক্ষ্বাকু বংশীয় রাজা সম্বর ও রাণী সিদ্ধার্থা ছিলেন অভিনন্দননাথের পিতামাতা।[৩] ভারতীয় পঞ্জিকা অনুসারে, মাঘ মাসের শুক্লা দ্বিতীয়া তিথিতে তাঁর জন্ম।[১] প্রিয়াঙ্গু বৃক্ষের তলায় বসে তিনি "কেবল জ্ঞান" অর্জন করেন।[৪] জৈনদের বিশ্বাস, তিনি আত্মার সকল কর্ম ধ্বংস করে "সিদ্ধ" বা মুক্ত আত্মায় পরিণত হয়েছিলেন। তাঁদের আরও বিশ্বাস, অভিনন্দননাথের উচ্চতা ছিল ৩৫০ "ধনুষ" (১,০৫০ মিটার)।[৫]

স্তুতি[সম্পাদনা]

জৈন সন্ন্যাসী সামন্তভদ্র তাঁর স্বয়ম্ভুস্তোত্র নামক স্তোত্রে চব্বিশ জন তীর্থঙ্করের গুণকীর্তন করেন। এই স্তোত্রের পাঁচটি শ্লোকে অভিনন্দননাথের গুণাবলি কীর্তিত হয়েছে।[৬] তার মধ্যে একটি শ্লোকের বঙ্গানুবাদ নিম্নরূপ:

খিদের কষ্টের হাত থেকে রেহাই পেয়ে ক্রমাগত দেহে অন্নসংস্থান বা ক্ষণিক ইন্দ্রিয়সুখ চরিতার্থকরণে দেহ ও আত্মা উভয়েরই নিরাপত্তা ক্ষুন্ন হয়। এই ধরনের কর্ম দেহ ও আত্মা কোনওটির উপকার করে না; হে প্রভু অভিনন্দননাথ, এইভাবেই আপনি বাস্তবতার সত্য প্রকৃতি উদ্‌ঘাটিত করেছিলেন।[৭]

উল্লুক প্রতীক, পিয়াল বৃক্ষ, যক্ষেশ্বর ও নায়ক যক্ষ এবং বজ্রশৃঙ্কলা ও কালিকা যক্ষী অভিনন্দননাথের সঙ্গে যুক্ত।[৮]

See also[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. Tukol 1980, পৃ. 31।
  2. Vijay K. Jain 2015, পৃ. 185।
  3. Vijay K. Jain 2015, পৃ. 184।
  4. Krishna ও Amirthalingam 2014, পৃ. 46।
  5. Vijay K. Jain 2015, পৃ. 184-185।
  6. Vijay K. Jain 2015, পৃ. 22-24।
  7. Vijay K. Jain 2015, পৃ. 24।
  8. Tandon 2002, পৃ. 44।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]