অভিনন্দননাথ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
অভিনন্দননাথ
৪র্থ জৈন তীর্থঙ্কর
Abhinandananatha
অভিনন্দননাথ জিন
অন্যান্য নামঅভিনন্দন স্বামী
প্রতীকবাঁদর
রঙসোনালি
মাতাপিতা
  • সম্বর (পিতা)
  • সিদ্ধার্থা (মাতা)

অভিনন্দননাথ বা অভিনন্দন স্বামী ছিলেন বর্তমান অবসর্পিণী যুগের চতুর্থ তীর্থঙ্কর। কথিত আছে, তিনি ৫০ লক্ষ "পূর্ব", অর্থাৎ ৩৫২.৮০ কুইন্টিলিয়ন বছর জীবিত ছিলেন। অযোধ্যায় ইক্ষ্বাকু বংশীয় রাজা সম্বর ও রাণী সিদ্ধার্থা ছিলেন অভিনন্দননাথের পিতামাতা। ভারতীয় পঞ্জিকা অনুসারে, মাঘ মাসের শুক্লা দ্বিতীয়া তিথিতে তাঁর জন্ম। জৈনদের বিশ্বাস, তিনি আত্মার সকল কর্ম ধ্বংস করে "সিদ্ধ" বা মুক্ত আত্মায় পরিণত হয়েছিলেন।

জীবন[সম্পাদনা]

অভিনন্দননাথ বা অভিনন্দন স্বামী ছিলেন বর্তমান অবসর্পিণী যুগের চতুর্থ তীর্থঙ্কর[১] কথিত আছে, তিনি ৫০ লক্ষ "পূর্ব", অর্থাৎ ৩৫২.৮০ কুইন্টিলিয়ন বছর জীবিত ছিলেন।[২] অযোধ্যায় ইক্ষ্বাকু বংশীয় রাজা সম্বর ও রাণী সিদ্ধার্থা ছিলেন অভিনন্দননাথের পিতামাতা।[৩] ভারতীয় পঞ্জিকা অনুসারে, মাঘ মাসের শুক্লা দ্বিতীয়া তিথিতে তাঁর জন্ম।[১] প্রিয়াঙ্গু বৃক্ষের তলায় বসে তিনি "কেবল জ্ঞান" অর্জন করেন।[৪] জৈনদের বিশ্বাস, তিনি আত্মার সকল কর্ম ধ্বংস করে "সিদ্ধ" বা মুক্ত আত্মায় পরিণত হয়েছিলেন। তাঁদের আরও বিশ্বাস, অভিনন্দননাথের উচ্চতা ছিল ৩৫০ "ধনুষ" (১,০৫০ মিটার)।[৫]

স্তুতি[সম্পাদনা]

জৈন সন্ন্যাসী সামন্তভদ্র তাঁর স্বয়ম্ভুস্তোত্র নামক স্তোত্রে চব্বিশ জন তীর্থঙ্করের গুণকীর্তন করেন। এই স্তোত্রের পাঁচটি শ্লোকে অভিনন্দননাথের গুণাবলি কীর্তিত হয়েছে।[৬] তার মধ্যে একটি শ্লোকের বঙ্গানুবাদ নিম্নরূপ:

উল্লুক প্রতীক, পিয়াল বৃক্ষ, যক্ষেশ্বর ও নায়ক যক্ষ এবং বজ্রশৃঙ্কলা ও কালিকা যক্ষী অভিনন্দননাথের সঙ্গে যুক্ত।[৮]

See also[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

  1. Tukol 1980, পৃ. 31।
  2. Vijay K. Jain 2015, পৃ. 185।
  3. Vijay K. Jain 2015, পৃ. 184।
  4. Krishna ও Amirthalingam 2014, পৃ. 46।
  5. Vijay K. Jain 2015, পৃ. 184-185।
  6. Vijay K. Jain 2015, পৃ. 22-24।
  7. Vijay K. Jain 2015, পৃ. 24।
  8. Tandon 2002, পৃ. 44।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]