অজিতনাথ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
অজিতনাথ
২য় জৈন তীর্থঙ্কর
Ajitanatha
অজিতনাথ (মথুরা চৌরাসি)
পূর্বসূরি ঋষভনাথ
উত্তরসূরি সম্ভবনাথ
রাজপরিবার
রাজবংশ/বংশ ইক্ষ্বাকু
পূর্বসূরি জিতশত্রু
উত্তরসূরি সগর
পরিবার
পিতামাতা জিতশত্রু (পিতা)
বিজয়াদেবী (মাতা)
্কল্যাণক / গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাবলি
চ্যবন তারিখ বৈশাখ সুদ ১৩
চ্যবন স্থান অযোধ্যা
জন্ম মাহা সুদ ৮ (৫ x ১০২২৩ বছর আগে)
অযোধ্যা
দীক্ষার তারিখ মাহা সুদ ৯
দীক্ষার স্থান অযোধ্যা
কেবল জ্ঞানের তারিখ পোষ সুদ ১১
কেবল জ্ঞানের স্থান অযোধ্যা
মোক্ষের তারিখ চৈত্র সুদ ৫
মোক্ষের স্থান শিখরজি
বৈশিষ্ট্য
বর্ণ সোনালি
প্রতীক হস্তী
উচ্চতা ৪৫০ ধনুষ (১,৩৫০ মিটার)
বয়স ১৭ লাখ পূর্ব (৫০৮.০৩২ x ১০১৮ বছর বয়স)
কেবলকাল
যক্ষ মহাযক্ষ
যক্ষিণী অজিতা
গণধর সিংহসেন ও ফল্গু

অজিতনাথ ছিলেন জৈন বিশ্বতত্ত্ব অনুসারে বর্তমান ‘অবসর্পিণী’ (কাল চক্রার্ধের নাম) যুগের দ্বিতীয় তীর্থঙ্কর[১] যে আত্মাটি অজিতনাথ হন, তিনি পূর্বজন্মে ছিলেন মহাবিদেহ অঞ্চলের সুসিমা শহরের রাজা বিমলবাহন। অজিতনাথের পিতা ছিলেন রাজা জিতশত্রু ও মাতা ছিলেন রাজি বিজয়া। তিনি অযোধ্যায় ইক্ষ্বাকু রাজবংশে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। রাজকীয় শৌর্য থাকা সত্ত্বেও অজিতনাথ পবিত্র জীবন যাপন করতেন। যথাসময়ে তিনি অরিন্দম সূরির অধীনে সন্ন্যাস গ্রহণ করেন।[১]

কিংবদন্তি[সম্পাদনা]

যজুর্বেদ গ্রন্থে ‘অজিতনাথ’ নামটির উল্লেখ পাওয়া যায়। তবে সেখানে এই নামটির অর্থ স্পষ্ট নয়। জৈন বিশ্বাস অনুসারে, অজিতনাথের কনিষ্ঠ ভ্রাতা ছিলেন সগর। সগর দ্বিতীয় চক্রবর্তী হয়েছিলেন। হিন্দু ও জৈন উভয় শাস্ত্রেই সগরের উল্লেখ রয়েছে।[২]

হিন্দু ধর্মগ্রন্থ থেকে জানা যায় যে, সগরের একাধিক পুত্র ছিলেন। তাঁদের অন্যতম ভগীরথ গঙ্গাকে স্বর্গ থেকে মর্ত্যে নিয়ে আসেন। জৈন ধর্মগ্রন্থ থেকে জানা যায় যে, সগর শেষ জীবনে অজিতনাথের অধীনে সন্ন্যাস গ্রহণ করেন এবং সংসার পরিত্যাগ করেন।

মূর্তিতত্ত্ব[সম্পাদনা]

অজিতনাথের সঙ্গে তাঁর হস্তী প্রতীক, সপ্তপর্ণ বৃক্ষ, মহাযক্ষ যক্ষ এবং যোগিনী ও অজিতাবালা যক্ষী যুক্ত।[৩]

বিখ্যাত মন্দির[সম্পাদনা]

ছবি[সম্পাদনা]

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

পাদটীকা[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]