২০০৫ আইসিসি সুপার সিরিজ

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
আইসিসি সুপার সিরিজ
২০০৫ আইসিসি সুপার সিরিজের লোগো.png
জনি ওয়াকার সুপার সিরিজ
ব্যবস্থাপকআন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল
খেলার ধরনটেস্ট এবং ওডিআই
প্রথম টুর্নামেন্ট২০০৫
শেষ টুর্নামেন্ট২০০৫
প্রতিযোগিতার ধরনসিরিজ
দলের সংখ্যা
বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া (টেস্ট ও ওডিআই উভয়তেই)
সর্বাধিক সফল অস্ট্রেলিয়া ২টি শিরোপা (টেস্ট ও ওডিআই)
সর্বাধিক রান অ্যাডাম গিলক্রিস্ট (২৭৫)
সর্বাধিক উইকেট স্টুয়ার্ট ম্যাকগিল (৯)

২০০৫ আইসিসি সুপার সিরিজ হল অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত একটি ক্রিকেট সিরিজ যা অস্ট্রেলিয়া ও বিশ্ব একাদশের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয়েছিল। সিরিজে তিনটি ওডিআই ও একটি টেস্ট ম্যাচ ছিল, প্রতিটিতেই অস্ট্রেলিয়া জয়লাভ করেছিল।

পটভূমি[সম্পাদনা]

১৯৯০-এর দশকের শেষের দিকে এবং ২০০০-এর দশকের গোড়ার দিকে, অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেট দল বিশ্ব ক্রিকেটে সম্পূর্ণভাবে প্রভাবশালী হয়ে উঠেছিল এবং অপরাজেয় বলে খ্যাতি ছিল। এমতাবস্থায়, বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়দের একটি দলে একত্রিত করে তাদের চ্যালেঞ্জ করার ধারণার জন্ম হয় এবং আইসিসি সুপার সিরিজ তৈরি হয়।

সূচি[সম্পাদনা]

দল[সম্পাদনা]

বিশ্ব একাদশ নির্বাচনী কমিটি[সম্পাদনা]

১১ জনের টেস্ট দল তৈরীর জন্য কমিটি গঠিত হয়েছিল:[১]

টেস্ট দলীয় সদস্য[সম্পাদনা]

 অস্ট্রেলিয়া বিশ্ব একাদশ
রিকি পন্টিং (অধিঃ) গ্রেইম স্মিথ (অধিঃ)
অ্যাডাম গিলক্রিস্ট (সহঃ, উইঃ) মার্ক বুচার (উইঃ)
মাইকেল ক্লার্ক রাহুল দ্রাবিড়
ম্যাথু হেইডেন ব্রায়ান লারা
গ্লেন ম্যাকগ্রা শোয়েব আখতার
শেন ওয়ার্ন মুত্তিয়া মুরালিধরন
সাইমন ক্যাটিচ স্টিভ হার্মিসন
ব্র্যাড হজ অ্যান্ড্রু ফ্লিনটফ
স্টুয়ার্ট ম্যাকগিল ড্যানিয়েল ভেট্টোরি
শেন ওয়াটসন বীরেন্দ্র সেহবাগ
জাস্টিন ল্যাঙ্গার শন পোলক
ব্রেট লি জ্যাক কালিস
ইনজামাম-উল-হক

ওডিআই দলীয় সদস্য[সম্পাদনা]

 অস্ট্রেলিয়া বিশ্ব একাদশ
রিকি পন্টিং (অধিঃ) শন পোলক (অধিঃ)
অ্যাডাম গিলক্রিস্ট (সহঃ, উইঃ) কুমার সাঙ্গাকারা (উইঃ)
মাইকেল ক্লার্ক রাহুল দ্রাবিড়
স্টুয়ার্ট ক্লার্ক ব্রায়ান লারা
গ্লেন ম্যাকগ্রা মাখায়া এনটিনি
মাইকেল হাসি মুত্তিয়া মুরালিধরন
সাইমন ক্যাটিচ কেভিন পিটারসেন
ড্যামিয়েন মার্টিন অ্যান্ড্রু ফ্লিনটফ
ক্যামেরন হোয়াইট ড্যানিয়েল ভেট্টোরি
শেন ওয়াটসন বীরেন্দ্র সেহবাগ
জেমস হোপস শোয়েব আখতার
ব্রেট লি জ্যাক কালিস
নাথান ব্র্যাকেন শহীদ আফ্রিদি
অ্যান্ড্রু সাইমন্ডস ক্রিস গেইল

প্রস্তুতিমূলক ম্যাচ[সম্পাদনা]

২ অক্টোবর ২০০৫
স্কোরকার্ড
বিশ্ব একাদশ
২৮১/৮ (৫০ ওভার)
 ভিক্টোরিয়া
২৬৯/৯ (৫০ ওভার)
রাহুল দ্রাবিড় ৬৬ (৮০)
শেন হারউড ৪/৩৭ (১০ ওভার)
ব্র্যাড হজ ৯২ (১১৬)
শোয়েব আখতার ২/২৯ (১০ ওভার)
বিশ্ব একাদশ ১২ রানে জয়ী
জাংশান ওভাল, মেলবোর্ন
আম্পায়ার: আলীম দার (পাকিস্তান) এবং রুডি কর্টজেন (দক্ষিণ আফ্রিকা)
ম্যাচসেরা: নেই
  • টস হয়নি। সকলের ইচ্ছা মতো বিশ্ব একাদশ প্রথমে ব্যাট করে।
  • প্রতি দলে ১৩ (ব্যাট ও ফিল্ডিংয়ে ১১)

ওডিআই সিরিজ[সম্পাদনা]

প্রথম ওডিআই[সম্পাদনা]

৫ অক্টোবর ২০০৫ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
২৫৫/৮ (৫০ ওভার)
বিশ্ব একাদশ
১৬২ (৪১.৩ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৯৩ রানে জয়ী
টেলস্ট্রা ডোম, মেলবোর্ন
আম্পায়ার: আলীম দার (পাকিস্তান) ও সাইমন টাওফেল (অস্ট্রেলিয়া)
ম্যাচসেরা: শেন ওয়াটসন (অস্ট্রেলিয়া)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • ক্যামেরন হোয়াইট-এর (অস্ট্রেলিয়া) ওডিআই অভিষেক হয়।

দ্বিতীয় ওডিআই[সম্পাদনা]

৭ অক্টোবর ২০০৫ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
৩২৮/৪ (৫০ ওভার)
বিশ্ব একাদশ
২৭৩ (৪৫.৩ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ৫৫ রানে জয়ী
টেলস্ট্রা ডোম, মেলবোর্ন
আম্পায়ার: রুডি কর্টজেন (দক্ষিণ আফ্রিকা) ও ড্যারেল হেয়ার (অস্ট্রেলিয়া)
ম্যাচসেরা: অ্যাডাম গিলক্রিস্ট (অস্ট্রেলিয়া)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • স্টুয়ার্ট ক্লার্ক-এর (অস্ট্রেলিয়া) ওডিআই অভিষেক হয়।

তৃতীয় ওডিআই[সম্পাদনা]

৯ অক্টোবর ২০০৫ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
অস্ট্রেলিয়া 
২৯৩/৫ (৫০ ওভার)
বিশ্ব একাদশ
১৩৭ (২৭.৫ ওভার)
বীরেন্দ্র সেহবাগ ৩৭ (৪০)
ব্রেট লি ৪/৩০ (৯ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ১৫৬ রানে জয়ী
টেলস্ট্রা ডোম, মেলবোর্ন
আম্পায়ার: আলীম দার (পাকিস্তান) and ড্যারেল হেয়ার (অস্ট্রেলিয়া)
ম্যাচসেরা: শেন ওয়াটসন (অস্ট্রেলিয়া)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।

সুপার টেস্ট[সম্পাদনা]

১৪–১৭ অক্টোবর ২০০৫ (৬–দিনের ম্যাচ)
স্কোরকার্ড
বিশ্ব একাদশ
৩৪৫ (৯০ ওভার)
ম্যাথু হেইডেন ১১১ (১৮০)
অ্যান্ড্রু ফ্লিনটফ ৪/৫৯ (১৮ ওভার)
১৯০ (৪৭.১ ওভার)
বীরেন্দ্র সেহবাগ ৭৬ (৮২)
স্টুয়ার্ট ম্যাকগিল ৪/৩৯ (৯.১ ওভার)
১৯৯ (৬৫.৩ ওভার)
ম্যাথু হেইডেন ৭৭ (১২০)
স্টিভ হার্মিসন ৩/৪১ (১২.৩ ওভার)
১৪৪ (৫০ ওভার)
জ্যাক কালিস ৩৯* (৮৬)
স্টুয়ার্ট ম্যাকগিল ৫/৪৩ (১৫ ওভার)
অস্ট্রেলিয়া ২১০ রানে জয়ী
সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ড, সিডনি, নিউ সাউথ ওয়েলস
আম্পায়ার: রুডি কর্টজেন (দক্ষিণ আফ্রিকা) ও সাইমন টাওফেল (অস্ট্রেলিয়া)
ম্যাচসেরা: ম্যাথু হেইডেন (অস্ট্রেলিয়া)
  • অস্ট্রেলিয়া টসে জিতে ব্যাটিং-এর সিদ্ধান্ত নেয়।
  • সূচি অনুযায়ী ছয়দিন হবার কথা ছিল, কিন্তু চতুর্থ দিনেই শেষ হয়ে যায়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. Wisden 2006, p. 1156.

গ্রন্থপঞ্জী[সম্পাদনা]