লিউ জিয়াওবো

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
লিও জিয়াওবো
স্থানীয় নাম 刘晓波
জন্ম (১৯৫৫-১২-২৮)ডিসেম্বর ২৮, ১৯৫৫
চাংচুং, গণচীন
মৃত্যু ১৩ জুলাই ২০১৭(২০১৭-০৭-১৩) (৬১ বছর)
Shenyang, Liaoning, গণচীন
জাতীয়তা চীনা
শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জিলিং বিশ্ববিদ্যালয়
বেইজিং নরমাল বিশ্ববিদ্যালয়
পেশা লেখক, রাজনৈতিক সমালোচন, মানবাধিকার কর্মী
দাম্পত্য সঙ্গী লিও জিয়া (১৯৯৬-বর্তমান)
পুরস্কার Nobel Prize.png শান্তিতে নোবেল পুরস্কার (২০১০)

লিও জিয়াওবো (ইংরেজি: Liu Xiaobo চীনা ভাষায়: 刘晓波) (২৮ ডিসেম্বর, ১৯৫৫ - ১৩ জুলাই, ২০১৭)[১] একজন চীনা অধ্যাপক, লেখক, চীনা সাহিত্য সমালোচক এবং মানবাধিকার কর্মী। তার লেখার মূল বিষয় চীনের রাজনৈতিক সংস্কার ও কমিউনিস্ট একদলীয় শাসনের অবসান।[২] তিনি বর্তমানে জিনজৌর লিয়াওনিং-এ রাজনৈতিক বন্দী হিসাবে বন্দী আছেন।[৩][৪][৫]

প্রাথমিক জীবন ও কর্ম[সম্পাদনা]

লিও ১৯৫৫ সালের ২৮ ডিসেম্বর চীনের জিলিন প্রদেশের চাংচুং শহরে এক শিক্ষিত পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। ১৯৬৯ সালে ’’ডাউন টু কান্ট্রিসাইট মুভমেন্ট’’এর সময় লিওর বাবা তাকে ’’Horqin Right Front Banner’’ এর সামনে তুলে ধরেন। ১৯৭৪ সালে লিও তার মাধ্যমিক স্কুল শেষ করলে, তাকে জিলিনের গ্রামে একটি খামারে কাজ করার জন্য পাঠানো হয়।

১৯৭৭ সালে লিও জিলিন বিশ্ববিদ্যালয়ে চীনা সাহিত্য বিভাগে ভর্তি হন। সেখানে তিনি তার ছয়জন বন্ধু নিয়ে ’দ্যা ইনোসেন্ট হার্টস’ কবিতা গ্রুপ গঠন করেন।[৬][৭] ১৯৮২ সালে লিও তার গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেন এবং বেইজিং নরমাল বিশ্ববিদ্যালয়ে চীনা সাহিত্যের গবেষণা ছাত্র হিসাবে ভর্তি হন। ১৯৮৪ সালে এম.এ. সম্পন্ন করেন এবং একই বিভাগের শিক্ষক হিসাবে যোগ দেন।[৮] একই বছর তিনি তাও লিকে বিয়ে করেন, এবং তাদের ঘরে ১৯৮৫ সালে লিও তাও নামে একটি সন্তানের জন্ম হয়।

গ্রফতার, বিচার ও সাজা[সম্পাদনা]

গ্রেফতার[সম্পাদনা]

বিচার[সম্পাদনা]

thumb|150x150px|২০১০ সালের ১৬ অক্টোবর জাপানের টোকিওতে চীনা দুতাবাসের সামনে ‘’ ফ্রী লিও জিয়াওবো’’ লেখা প্লেকার্ড হাতে জাপানি বিক্ষোপকারীরা

নোবেল শান্তি পুরুস্কার[সম্পাদনা]

thumb|২০১০ সালের ১০ ডিসেম্বর হংকং-এ নোবেল শান্তি পুরুস্কার অনুষ্ঠান

উল্লেখযোগ্য প্রকাশনা[সম্পাদনা]

পুরুস্কার ও সম্মাননা[সম্পাদনা]

আরোদেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Verdict Against Liu Xiaobo"
  2. Biography of Liu Xiaobo.
  3. Frances Romero, Top 10 Political Prisoners, Time, 15 November 2010.
  4. Mark McDonald, An inside look at China's most famous political prisoner, New York Times, 23 July 2012.
  5. Congressional-Executive Commission on China, Political Prisoner Database:Liu Xiaobo.
  6. "赤子心诗社"। Baidu। ২২ এপ্রিল ২০০৯। 
  7. "5 things you need to know about Liu Xiaobo"। pbs.org। ১০ ডিসেম্বর ২০১০। 
  8. 明報記者陳陽、方德豪। October 2010 http://specials.mingpao.com/cfm/News.cfm?Specialsessdate=12 October 2010  |title= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)[অকার্যকর সংযোগ]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]