রাসায়নিক বিক্রিয়া

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে

রাসায়নিক বিক্রিয়া (ইংরেজি: Chemical reaction) হলো এমন একটি প্রক্রিয়া যার মাধ্যমে এক বা একাধিক পদার্থ ভিন্ন পদার্থে রূপান্তরিত হয়। রাসায়নিক বিক্রিয়ায় অংশগ্রহণকারী পদার্থগুলোকে বিকারক বা বিক্রিয়ক পদার্থ বা রিঅ্যাকটেন্ট (Reactants) বলা হয়। অপরদিকে রাসায়নিক বিক্রিয়ার ফলে নতুন ধর্মবিশিষ্ট যেসব পদার্থ উত্পন্ন হয়, তাদের বিক্রিয়াজাত পদার্থ বা উৎপাদ বা প্রোডাক্ট (Products) বলা হয়। রাসায়নিক বিক্রিয়া বিকারক পদার্থগুলোর মধ্যে ইলেকট্রনের আদান-প্রদানের ফলে হয়ে থাকে। পদার্থের নিউক্লিয়াসের পরিবর্তন হলে তাকে সাধারণত রাসায়নিক বিক্রিয়া হিসেবে গণ্য করা হয় না।

প্রকারভেদ[সম্পাদনা]

রাসায়নিক বিক্রিয়া মূলত চার ধরণের; এগুলো হলোঃ

  1. সংযোজন বিক্রিয়া,(Additional Reaction)
  2. বিয়োজন বিক্রিয়া,(Decomposition Reaction)
  3. প্রতিস্থাপন বিক্রিয়া (Substitution Reaction)
  4. দহন বিক্রিয়া (Combustion Reaction)

সংযোজন বিক্রিয়া[সম্পাদনা]

যে রাসায়নিক বিক্রিয়ায় দুই বা ততোধিক মৌলিক বা যৌগিক পদার্থ যুক্ত হয়ে যৌগ উৎপন্ন করে তােক সংযোজন বিক্রিয়া বলে।

  • 2FeCl2 (aq) + Cl2 (g) = 2FeCl3 (aq)

বিয়োজন বিক্রিয়া[সম্পাদনা]

কোন যৌগকে ভেঙে একাধিক যৌগ বা মৌলে পরিনত হওয়ার প্রক্রিয়াকে বিয়োজন বিক্রিয়া বলে।

  • PCl5 (l) +(তাপ) = PCl3 (l) + Cl2 (g)

প্রতিস্থাপন বিক্রিয়া[সম্পাদনা]

কোন যৌগের একটি মৌল বা যৌগমুলক্কে অপর মৌল বা যৌগমুলক দিয়ে প্রতিস্থাপন করে নতুন যৌগ উৎপন্ন করার প্রক্রিয়াকে প্রতিস্থাপন বিক্রিয়া বলে।

  • Zn (s) + H2SO4(aq) = ZnSO4 (aq) + H2(g)

দহন বিক্রিয়া[সম্পাদনা]

কোনো মৌল বা যৌগকে বায়ুর অক্সিজেনের উপস্থিতিতে পুড়িয়ে তার উপাদান মৌলের অক্সাইডে পরিনত করার প্রক্রিয়াকে দহন বিক্রিয়া বলে । এতে তাপ উৎপন্ন হয় ।

  • CH4 (g) + 2O2 (g) = CO2 (g) +2H2O (g)

প্রশমন বিক্রিয়া[সম্পাদনা]

যে রাসায়নিক বিক্রিয়ার এসিড ও ক্ষার যুক্ত হয়ে লবণ ও পানি উৎপন্ন করে তাকে প্রশমন বিক্রিয়া বলে। এসিড + ক্ষার = লবণ + পানি

  • NaCl + HCl = NaCl + H2O

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]