ব্রুনাই জাতীয় ক্রিকেট দল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
ব্রুনাই
ব্রুনাই দারুসসালাম ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন এর লোগো
ব্রুনাই দারুসসালাম ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন এর লোগো
আইসিসি সদস্যপদ অনুমোদন ১৯৯২
আইসিসি সদস্য মর্যাদা অপসারিত
আইসিসি উন্নয়ন অঞ্চল এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল
বিশ্ব ক্রিকেট লীগ বিভাগ
অধিনায়ক
কোচ
আনুষ্ঠানিকভাবে ১ম খেলা ব্রুনাই ব্রুনাই v. জাপান 
(কুয়ালালামপুর, মালয়েশিয়া; ৬ সেপ্টেম্বর ১৯৯৬)
৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫ হিসাবে

ব্রুনাই জাতীয় ক্রিকেট দল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ব্রুনাই কে প্রতিনিধিত্ব করত। তারা পুর্বে আইসিসি এর সদস্য হিসেবে অন্তর্ভুক্ত থাকলেও, বর্তমানে তাদের সদস্যপদ অপসারিত রয়েছে। ব্রুনাই দারুসসালাম ন্যাশনাল ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন ছিল ব্রুনাই ক্রিকেট দলের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। ব্রুনাই ক্রিকেট দল ১৯৯২ সালে আইসিসি এর অনুমোদিত সদস্যপদ লাভ করে। কিন্তু ২০১৪ সালে তাদের সদস্যপদ স্থগিত করা হয় এবং পরবর্তীতে ২০১৫ সালে তাদের সদস্যপদ অপসারণ করা হয়।[১] সদস্যপদ অপসারণ করার পূর্ব পর্যন্ত ব্রুনাই ছিল এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের অন্তর্ভুক্ত ক্ষুদ্রতম রাষ্ট্র। [২]

ইতিহাস[সম্পাদনা]

ব্রুনাই ১৯৮৩ সালে সর্বপ্রথম কোন খেলায় অংশগ্রহণ করে, যদিও তা কোন স্বীকৃত আন্তর্জাতিক খেলা ছিল না। এর পর ব্রুনাই ১৯৯৬ এসিসি ট্রফি এর পূর্ব পর্যন্ত কোন আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করে নি। কারণ তখনও তারা এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল এর সদস্যপদ অর্জন করতে পারে নি। ১৯৯৬ সালে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের সদস্যপদ অর্জন করার পর তারা ১৯৯৬ এসিসি ট্রফি তে অংশগ্রহণ করে।[২] কিন্তু সেই টুর্নামেন্টে তারা কোন সাফল্য অর্জন করতে পারে নি। টুর্নামেন্টে ব্রুনাই গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নেয়। এরপর আবার বিরতি দিয়ে, ২০০৪ সাল পর্যন্ত তারা কোন স্বীকৃত আন্তর্জাতিক খেলায় অংশগ্রহণ করে নি। পরবর্তীতে তারা ২০০৬ এসিসি ট্রফি তে অংশগ্রহণ করে। কিন্তু এবারো তারা উল্লেখযোগ্য সাফল্য লাভ করতে ব্যর্থ হয় এবং গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নেয়। এরপর ২০১০ সাল পর্যন্ত তারা নিয়মিতভাবেই এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল (এসিসি) কর্তৃক আয়োজিত টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করে। তারা ২০০৯ সালে থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত এসিসি ট্রফি চ্যালেঞ্জে অংশ নিয়ে ৮ দলের মধ্যে ষষ্ঠ স্থান অর্জন করে। ২০১০ সালে থাইল্যান্ডে অনুষ্ঠিত এসিসি ট্রফি চ্যালেঞ্জে তারা ৮ দলের মধ্যে ৭ম স্থান অর্জন করে। তবে ২০১০ এসিসি ট্রফি চ্যালেঞ্জ টুর্নামেন্ট ছিল ব্রুনাই এর অংশগ্রহণ করা সর্বশেষ কোন টুর্নামেন্ট। এই টুর্নামেন্টের পরে ব্রুনাই আর কোন আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত টুর্নামেন্টে বা খেলায় অংশগ্রহণ করে নি।[৩]

২০১০ সালের পর এসিসি ট্রফিতে ব্রুনাইয়ের অংশগ্রহণ না করার কারণ ছিল তৃণমূলে ব্রুনাইয়ের ক্রিকেটের পুনর্গঠন।[২] যার অংশ হিসেবে ব্রুনাইতে বিভন্ন স্কুল টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয় এবং এর পাশাপাশি ব্রুনাইয়ের যুব দল বিষয়ক কার্যক্রম চালু ছিল। এছাড়াও আইসিসি ও এসিসি এর সহায়তায় বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে ক্রিকেটকে ছড়িয়ে দেয়া ও জনপ্রিয় করার প্রচেষ্টা নেয়া হয়। কিন্তু এর পরও ব্রুনাইয়ে ক্রিকেটের উন্নয়নের লক্ষ্যে গৃহীত এসকল কাজের গতি বজায় রাখা সম্ভব হয় নি। যার বড় কিছু কারণ ছিল প্রয়োজনীয় অবকাঠামোর অভাব, ক্রিকেটের জনপ্রিয়তা কমতে থাকা এবং ক্রিকেট খেলার প্রতি খেলোয়াড়দের অনীহা তৈরি হওয়া। যার ফলস্বরুপ ২০১৪ সালে ব্রুনাইয়ের আইসিসি সদস্যপদ স্থগিত করা হয়। আর সবশেষে ২০১৫ সালে তা সম্পূর্ণরূপে অপসারণ করা হয়।[৪][৫]

টুর্নামেন্ট ইতিহাস[সম্পাদনা]

এসিসি ট্রফি[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "ক্রিকেট আর্কাইভ-ব্রুনাই পাতা"ক্রিকেটআর্কাইভ। ৫ ডিসেম্বর ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ৫ ডিসেম্বর ২০১০ 
  2. "ব্রুনাই"এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল 
  3. ব্রুনাই কর্তৃক অংশগ্রহণকৃত অন্যান্য ম্যাচ – ক্রিকেট আর্কাইভ সংগৃহীত ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৫
  4. "Brunei's new gameplan"আইসিসি। ২১ জানুয়ারি ২০১০। 
  5. "Brunei cricket goes to school"আইসিসি। ২১ নভেম্বর ২০১১।