বিষয়বস্তুতে চলুন

মার্গারেট সুলাভান: সংশোধিত সংস্করণের মধ্যে পার্থক্য

তথ্যছক
(পাতা তৈরি)
 
(তথ্যছক)
{{তথ্যছক ব্যক্তি
 
| name = মার্গারেট সুলাভান
| native_name = Margaret Sullavan
| image = Studio publicity Margaret Sullavan.jpg
| image_size =
| caption = ১৯৪০ সালে সুলাভান
| birth_name = মার্গারেট ব্রুক সুলাভান
| birth_date = {{জন্ম তারিখ|১৯০৯|৫|১৬|mf=yes}}
| birth_place = নরফোক, [[ভার্জিনিয়া]], [[মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র]]
| death_date = {{মৃত্যু তারিখ ও বয়স|১৯৬০|১|১|১৯০৯|৫|১৬|mf=yes}}
| death_place = নিউ হেভেন, [[কানেটিকাট]], মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
| death_cause = অতিরিক্ত বার্বিচুয়ারেট গ্রহণ
| resting_place = সেন্ট ম্যারিস হোয়াইটচ্যাপেল এপিস্কোপাল চার্চইয়ার্র
| nationality = মার্কিন
| occupation = অভিনেত্রী
| years_active = ১৯২৯-১৯৬০
| spouse = {{বিবাহ|[[হেনরি ফন্ডা]]<br>|১৯৩১|১৯৩৩|কারণ=তালাক}}<br>{{বিবাহ|[[উইলিয়াম ওয়াইলার]]<br>|১৯৩৪|১৯৩৬|কারণ=তালাক}}<br>{{বিবাহ|[[লিল্যান্ড হেওয়ার্ড]]<br>|১৯৩৬|১৯৪৮|কারণ=তালাক}}<br>{{বিবাহ|কেনেথ ওয়েগ<br>|১৯৫০}}
| children = ৩, [[ব্রুক হেওয়ার্ড]]-সহ
}}
'''মার্গারেট ব্রুক সুলাভান''' (১৬ মে ১৯০৯ - ১ জানুয়ারি ১৯৬০)<ref>Studio publicity incorrectly reported her year of birth as 1911 as per Lawrence J. Quirk's ''Child of Fate – Margaret Sullavan'', সেন্ট মার্টিন্‌স প্রেস, নিউ ইয়র্ক, ১৯৮৬, {{ISBN|0-312-51442-5}}, পৃষ্ঠা ৫।</ref> ছিলেন একজন মার্কিন অভিনেত্রী। তিনি ১৯২৯ সালে মঞ্চে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে তার কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৩৩ সালে তিনি পরিচালক জন এম. স্টালের নজর কাড়েন এবং একই বছর ''অনলি ইস্টারডে'' চলচ্চিত্র দিয়ে বড় পর্দায় তার অভিষেক ঘটে।
 
সুলাভান মূলত মঞ্চে কাজ করতে পছন্দ করতেন এবং মাত্র ১৬টি চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন, তন্মধ্যে চারটি [[জেমস স্টুয়ার্ট]]ের বিপরীতে। তাদের এই যুগল বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করে, এবং এই যুগলের উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্র হল ''দ্য মর্টাল স্ট্রর্ম'' ও ''দ্য শপ অ্যারাউন্ড দ্য কর্নার''। তিনি ১৯৩৮ সালের ''থ্রি কমরেডস'' চলচ্চিত্রে তার কাজের জন্য [[শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কার]]ের মনোনয়ন লাভ করেন। ১৯৪০-এর দশকের শুরুতে তিনি বড় পর্দায় থেকে অবসরে যান, কিন্তু ১৯৫০ সালে তিনি পুনরায় ফিরে আসেন এবং তার শেষ চলচ্চিত্র ''নো স্যাড সংস ফর মি''-এ কাজ করেন। এরপর তিনি কেবল মঞ্চেই কাজ করেছেন।
 
সুলাভান ১৯৫০-এর দশক জুড়ে শ্রবণ-জনিত জটিলতা, হতাশাহতাশায় ভোগেন এবং মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েন। তিনি অতিরিক্ত বার্বিচুয়ারেটস গ্রহণের ফলে ১৯৬০ সালের ১লা জানুয়ারি ৫০ বছর বয়সে মারা যান।
 
==তথ্যসূত্র==