বিল ব্রোকওয়েল

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বিল ব্রোকওয়েল
Bill Brockwell c1895.jpg
আনুমানিক ১৮৯৫ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে বিল ব্রোকওয়েল
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামউইলিয়াম ব্রোকওয়েল
জন্ম(১৮৬৫-০১-২১)২১ জানুয়ারি ১৮৬৫
কিংস্টন আপোন টেমস, সারে, ইংল্যান্ড
মৃত্যু১ জুলাই ১৯৩৫(1935-07-01) (বয়স ৭০)
রিচমন্ড, সারে, ইংল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম
ভূমিকাব্যাটসম্যান
সম্পর্কজর্জ ব্রোকওয়েল (কাকা)
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৮৭)
২৪ আগস্ট ১৮৯৩ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ টেস্ট১৯ জুলাই ১৮৯৯ বনাম অস্ট্রেলিয়া
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৩৫৭
রানের সংখ্যা ২০২ ১৩,২৮৫
ব্যাটিং গড় ১৬.৮৩ ২৭.০০
১০০/৫০ ০/০ ২১/৫৩
সর্বোচ্চ রান ৪৯ ২২৫
বল করেছে ৫৮২ ২৮,৪১৫
উইকেট ৫৫৩
বোলিং গড় ৬১.৭৯ ২৪.৭৩
ইনিংসে ৫ উইকেট ২৪
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৩/৩৩ ৮/২২
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২৫০/১ ২৫০/১
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৩ আগস্ট ২০১৮

উইলিয়াম ব্রোকওয়েল (ইংরেজি: Bill Brockwell; জন্ম: ২১ জানুয়ারি, ১৮৬৫ - মৃত্যু: ১ জুলাই, ১৯৩৫) সারের কিংস্টন আপোন টেমসে জন্মগ্রহণকারী বিখ্যাত ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট তারকা ছিলেন। ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৮৯৩ থেকে ১৮৯৯ সময়কালে ইংল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর কাউন্টি ক্রিকেটে সারের প্রতিনিধিত্ব করেছেন বিলি ব্রোকওয়েল নামে পরিচিত বিল ব্রোকওয়েল। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও ডানহাতে ফাস্ট-মিডিয়াম বোলিংয়ে পারদর্শিতা দেখিয়েছেন তিনি।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সারের কিংস্টন আপোন টেমসে বিল ব্রোকওয়েলের জন্ম। সারের দলীয় সঙ্গী চার্লস মিলসের সাথে তিনিও ১৮৮৯-৯০ মৌসুমে দক্ষিণ আফ্রিকার পথে পাড়ি জমান। কোচ হিসেবে কাজের আশায় তারা উভয়েই উত্তর কেপের কিম্বার্লীতে নিযুক্তি লাভ করেন।[১] ১৯শ শতাব্দীর শেষদিকে অত্যন্ত শক্তিধর সারের পক্ষে কাউন্টি ক্রিকেটে অংশ নেন। খেলোয়াড়ী জীবনের শুরুতে ফাস্ট-মিডিয়াম বোলার হিসেবে নিজেকে পরিচিতি ঘটানোর চেষ্টা চালিয়েছিলেন।

১৮৮৬ সালে ডার্বিশায়ারের বিপক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ১৮৯০ সাল পর্যন্ত মাঝে-মধ্যে খেলতেন। কিন্তু ১৮৯১ ও ১৮৯২ সালে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন তিনি। এ সময়ে সারে দল স্বর্ণালী শিখরে আরোহণ করেছিল। তবে ১৮৯৩ সালের পূর্ব-পর্যন্ত কিছুটা ম্রিয়মাণ ছিলেন। এরপর থেকেই সারের প্রথম একাদশের গুরুত্বপূর্ণ সদস্যের মর্যাদা পান। একই গড়ে ৫১ উইকেট নিয়ে অপ্রতিদ্বন্দ্বী টম রিচার্ডসনের সমমানে চলে আসেন। প্রায়শই মাঝামাঝি পর্যায়ে মাঠে নামলেও অন্যতম সেরা ধারাবাহিক ব্যাটসম্যানের পরিচিতি লাভ করেন। ১৮৯৪ সালের অত্যন্ত ব্যাটিং অনুপযোগী পিচে বেশ অগ্রগতি ঘটে তার। অন্য যে-কোন খেলোয়াড়ের তুলনায় অধিক রান তোলেন বিল ব্রোকওয়েল। পাঁচ সেঞ্চুরি সহযোগে সংগৃহীত ১৪৯১ রান তুলেছিলেন। ফলশ্রুতিতে উইজডেনের বিবেচনায় অন্যতম বর্ষসেরা ক্রিকেটারের সম্মাননায় ভূষিত হন তিনি। ১৮৯৫ সালে তেমন সুবিধে করতে পারেননি। তবে, ১৮৯৯ সাল পর্যন্ত রানের ফল্গুধারা ছুটতে থাকে তার ব্যাট দিয়ে। ববি অ্যাবলটম হেওয়ার্ডকে সাথে তিনজনের অবিস্মরণীয় ব্যাটিংশৈলী গড়েন। তারা সারেকে ওভাল পিচে অপরাজেয় করে তোলেন।

জর্জ লোহম্যান, টম রিচার্ডসনউইলিয়াম লকউডের দাপটে তিনি খুব কমই খেলার সুযোগ লাভ করতেন। তবে, ১৮৯৭ সালের পর থেকে তিনি বেশ কার্যকর বোলার হিসেবে উপস্থাপন করতে সচেষ্ট হন। রিচার্ডসনের দূর্বল ক্রীড়াশৈলী ও লকউডের আঘাতপ্রাপ্তি অনেকাংশেই তার জন্য শাপে বর হয়ে দাঁড়ায়। ১৮৯৯ সালে ১০৫ উইকেট পান। এমনকি ১৯০২ সালে চমৎকার ব্যাটিং উপযোগী পিচে ওয়ারউইকশায়ারের বিপক্ষে ৬/৩৭ পেয়েছিলেন।

টেস্ট ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে সাতটি টেস্টে অংশগ্রহণের সুযোগ ঘটে বিল ব্রোকওয়েলের। সবগুলো টেস্টেই প্রতিপক্ষ ছিল অস্ট্রেলিয়া দল। ১৮৯৩ সালে একটি, ১৮৯৪-৯৫ মৌসুমে অস্ট্রেলিয়া সফরে পাঁচটি ও ১৮৯৯ সালে সর্বশেষ টেস্টে অংশগ্রহণ করেন। তবে, এ স্তরের ক্রিকেটে সফলতার মুখ দেখেননি তিনি। ১৭-এর নিচে কম গড়ে রান তুলেছেন। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রান করেন মাত্র ৪৯।

অবসর[সম্পাদনা]

১৯০৩ সাল পর্যন্ত সারে দলের পক্ষে খেলেন। তবে, ১৯০০ সালের পর থেকে তার ব্যাটিংয়ের মান ক্রমশঃ নিম্নমূখী হতে থাকে। লন্ডন কাউন্টির পক্ষে শেষ দুইটি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশগ্রহণের পর ক্রিকেট জগৎ থেকে অবসর গ্রহণ করেন বিল ব্রোকওয়েল।

জীবনের শেষদিকে পনেরোটি বছর গৃহহীন অবস্থায় দিনযাপন করেন। অত্যন্ত দারিদ্র্যতার মধ্যে ১ জুলাই, ১৯৩৫ তারিখে ৭০ বছর বয়সে লন্ডনের রিচমন্ডে দেহাবসান ঘটে বিল ব্রোকওয়েলের।[২]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. W. A. Bettesworth, "Chats on the Cricket Field: C. Mills", Cricket, 1 June 1905, pp. 161-62.
  2. "Flight of fancy"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৪ জানুয়ারি ২০১৭ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]