বিলি নিউহাম

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
বিলি নিউহাম
Billy Newham c1895.jpg
আনুমানিক ১৮৯৫ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে বিলি নিউহাম
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামউইলিয়াম নিউহাম
জন্ম(১৮৬০-১২-১২)১২ ডিসেম্বর ১৮৬০
হলি ক্রস, শ্রিউসবারি, ইংল্যান্ড
মৃত্যু২৬ জুন ১৯৪৪(1944-06-26) (বয়স ৮৩)
পোর্টস্ল্যাড, ইংল্যান্ড
ডাকনামবিলি
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
ভূমিকাব্যাটসম্যান, অধিনায়ক
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ৫৫)
১০ ফেব্রুয়ারি ১৮৮৮ বনাম অস্ট্রেলিয়া
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ৩৬৮
রানের সংখ্যা ২৬ ১৪,৬৫৭
ব্যাটিং গড় ১৩.০০ ২৪.৪২
১০০/৫০ ০/০ ১৯/৭৪
সর্বোচ্চ রান ১৭ ২০১*
বল করেছে ১,১৩৯
উইকেট ১০
বোলিং গড় - ৬১.৫০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং - ৩/৫৭
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/০ ১৮৩/০
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৬ জুন ২০১৯

উইলিয়াম বিলি নিউহাম (ইংরেজি: Billy Newham; জন্ম: ১২ ডিসেম্বর, ১৮৬০ - মৃত্যু: ২৬ জুন, ১৯৪৪) শ্রিউসবারির হলি ক্রস এলাকায় জন্মগ্রহণকারী প্রথিতযশা ইংরেজ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন।[১] ইংল্যান্ড ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৮৮৮ সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে ইংল্যান্ডের পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছিলেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে সাসেক্সের প্রতিনিধিত্ব করেছেন ‘বিলি’ ডাকনামে পরিচিত বিলি নিউহাম। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

আর্ডিংলি কলেজে পড়াশোনা সম্পন্ন করেছিলেন। অধ্যয়নকালীন ক্রিকেট একাদশ দলের সক্রিয় সদস্যের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছিলেন বিলি নিউহাম। ১৮৮১ সালে কাউন্টি দলে প্রথম অংশ নেন। ১৮৮১ থেকে ১৯০৫ সাল পর্যন্ত বিলি নিউহামের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিলেন। এ পর্যায়ে কাউন্টি ক্রিকেটে সাসেক্স দলের পক্ষে খেলেন।

৬৩ বছর ধরে সাসেক্সের পক্ষে শৌখিন খেলোয়াড়, অধিনায়ক ও সাচিবিক দায়িত্ব পালন করে ক্রিকেট রেকর্ড হিসেবে নিজেকে পরিচিত করে তোলেন। তবে, কয়েক মৌসুম অন্যান্য কাজে সম্পৃক্ততার ফলে খুব কম খেলায় অংশ নিয়েছিলেন। ১৯০৫ সাল পর্যন্ত ক্রিকেট খেলেন। এ পর্যায়ে ২৪ গড়ে ১৪,৫০০-এর কাছাকাছি প্রথম-শ্রেণীর রান সংগ্রহ করেছিলেন বিলি নিউহাম।

সাসেক্স দলের অধিনায়কের দায়িত্বে ছিলেন তিনি। ১৮৮৯ সালে সি. অব্রে স্মিথের পরিবর্তে দলকে নেতৃত্ব দেন। এরপর আবারও অব্রে স্মিথ দায়িত্ব ফিরে পান। পরবর্তীতে ১৮৯১ থেকে ১৮৯২ সাল পর্যন্ত বিলি নিউহামকে দল পরিচালনার সুযোগ দেয়া হয়। এরপর বিলি মারডক অধিনায়ক হিসেবে তার স্থলাভিষিক্ত হন।

সাসেক্সে থাকাকালে দ্বিতীয় বছরেই গড়ের দিক দিয়ে শীর্ষে পৌঁছেন। ১৮৮৪ ও ১৮৮৯ সালেও এর পুণরাবৃত্তি ঘটান। ১৯ বছর বয়সে প্রথমবারের মতো তিন অঙ্কের কোটা স্পর্শ করেন। ১৮৯৬ সালে হোভে সমারসেটের বিপক্ষে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ২০১ রান তুলেন। সি. বি. ফ্রাই, কে. এস. রণজিতসিংজী ও জর্জ ব্রানকে সাথে নিয়ে আর্ডিংলিতে বিলি নিউহাম সাসেক্সের ব্যাটিংয়ের মানকে যথেষ্ট উঁচুতে নিয়ে যান। বিশেষ করে হোভের মাঠে বেশ দ্রুতলয়ে রান তোলায় দক্ষতা প্রদর্শন করেন। তবে, প্রতিপক্ষের মাঠেও তিনি কিছু সেরা খেলা প্রদর্শন করেছিলেন।

১৯০২ সালে লেটনে রণজিতসিংজীর (২৩০) সাথে ৩৪৪ রানের জুটি গড়েন। অদ্যাবধি সপ্তম উইকেটে এ সংগ্রহটি রেকর্ডরূপে গণ্য হয়ে আছে। নিউহাম করেন ১৫৩। ১৮৯৪ সালে ওল্ড ট্রাফোর্ডে তিনি আরও উন্নত খেলা উপহার দেন। দলীয় সংগ্রহ ১৭৪ রানের মধ্যে তিনি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত ব্যাটিংয়ে নেমে ১১০ রানে অপরাজিত থাকেন। আর্থার মোল্ডজনি ব্রিগসের বল মোকাবেলান্ত তার এ সংগ্রহটি সবিশেষ প্রশংসার দাবীদার ছিল। ৫২ বছর বয়সী আলফ্রেড শ আবাসিক শর্তাবলী পূরণের পর সাসেক্সের পক্ষে প্রথমবারের মতো অংশ নেন। শেষদিকে তিনি মাঠে নামেন ও ১৬ রান তোলেন। অন্য সকলেই দুই অঙ্কের কোটা স্পর্শ করতে সমর্থ হন। ফলো-অনের কবলে পড়ে সাসেক্স দল ৩৮ রানে গুটিয়ে যায়। সি. অব্রে স্মিথের ১০ রানের পর তিনি করেন ৯ রান।

জেন্টলম্যানের সদস্য[সম্পাদনা]

লর্ডসে জেন্টলম্যানের সদস্যরূপে একবার খেলায় অংশ নেন। প্লেয়ার্সের বিপক্ষে তার সংগৃহীত ২৫ রান জেন্টলম্যানের সর্বোচ্চ রান ছিল। চিত্তাকর্ষক খেলাটিতে তার দল মাত্র পাঁচ রানের ব্যবধানে জয় পায়। ওভালে চারবার ও হ্যাস্টিংসে তিনবার জেন্টলম্যানের পক্ষে খেলেন। ১৮৮৭ সালের শীতকালে সফররত অস্ট্রেলিয়া একাদশের বিপক্ষে খেলার জন্যে আলফ্রেড শ ও আর্থার শ্রিউসবারি দল গঠন করেন। ডব্লিউ. ডব্লিউ. রিডের নেতৃত্বে ঐ দলটিতে তিনি খেলেন। একমাত্র প্রতিনিধিত্বমূলক খেলাটিতে ১২৬ রানে জয় পায়।

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণের সুযোগ লাভ করেছিলেন বিলি নিউহাম। ১০ ফেব্রুয়ারি, ১৮৮৮ তারিখে সিডনিতে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার।

খেলার ধরন[সম্পাদনা]

ফিল্ডার হিসেবে সমান দক্ষতা প্রদর্শন করেছিলেন তিনি। মাঝারী উচ্চতার অধিকারী হলেও বেশ মজবুত ছিল তার শারীরিক গড়ন। ফাস্ট বোলিংয়ের বিপক্ষেই তিনি অধিক সফল ছিলেন। উইকেটের উভয় পার্শ্বেই তার সমান দক্ষতা পরিলক্ষিত হয়। চমৎকারভাবে কাট মারতেন, মিড-অন অঞ্চলে কিংবা লেগের দিকেও সফল ছিলেন।

মৃত্যু পূর্ব-পর্যন্ত সাসেক্স ক্লাবে নিষ্ঠার সাথে সহকারী সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছিলেন। এ দলটির সাথে ১৮৮৯ সাল থেকে সম্পর্ক গড়ে তোলেন। এ মৌসুমেই তিনি সম্পাদক ও অধিনায়কের যৌথ দায়িত্ব পালন করেন। ৩১ ইনিংসে ৩০.২০ গড়ে রান তুলে শীর্ষে আরোহণ করেন। শিক্ষকতা পেশা থেকে চলে আসার দুই বছর পর সম্পাদক হিসেবে নিযুক্ত হন। ১৯০৭ সালে দায়িত্ব থেকে অব্যহতি নেন। পরবর্তীকালে সম্মানীয় সম্পাদক কর্নেল ই. এ. ব্রুস তাকে সহকারী সম্পাদক হিসেবে নিযুক্ত করেন।

ব্যক্তিগত জীবন[সম্পাদনা]

ক্রিকেটের পাশাপাশি ফুটবল খেলায়ও তিনি সিদ্ধহস্তের পরিচয় তুলে ধরেছেন। করিন্থিয়ান ক্লাবের সদস্য ছিলেন তিনি। ১৮৮৭ সাল পর্যন্ত আর্ডিংলি কলেজে সহকারী শিক্ষক হিসেবে কর্মজীবন অতিবাহিত করেন। ২৬ জুন, ১৯৪৪ তারিখে ৮৩ বছর বয়সে পোর্টস্ল্যাড এলাকায় বিলি নিউহামের দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. [১] ESPNcricinfo, ESPN, সংগ্রহের তারিখ: ১৬ জুন ২০১৯

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]