পূজা ভাট

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
পূজা ভাট
হিন্দি: पूजा भट्ट
পূজা ভাটের আবক্ষ আলোকচিত্র
২০১৯ সালে পূজা ভাট
জন্ম
পূজা মহেষ ভাট

(1972-02-24) ২৪ ফেব্রুয়ারি ১৯৭২ (বয়স ৪৭)
বম্বে (বর্তমানে মুম্বই), মহারাষ্ট্র, ভারত
জাতীয়তাভারতীয়
অন্যান্য নামভূত
পেশা
কার্যকাল১৯৮৯-২০১৩[১]
উল্লেখযোগ্য কর্ম
নিচে দেখুন
আদি নিবাসমুম্বই
দাম্পত্য সঙ্গীমনিষ মাখিযা (বি. ২০০৩; বিচ্ছেদ. ২০১৪)
পিতা-মাতা
আত্মীয়দেখুন ভাট পরিবার
পুরস্কারসম্পূর্ণ তালিকা

পূজা ভাট (জন্ম ১২ ফেব্রুয়ারি ১৯৭২) একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেত্রী, কণ্ঠস্বর অভিনেত্রী, মডেল, প্রযোজক এবং পরিচালক। তিনি একাধিক পুরস্কার অর্জন করেছেন, তন্মধ্যে রয়েছে দুটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ও একটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার

ভাট পরিবারে জন্মগ্রহণকারী পূজা ভারতীয় চলচ্চিত্রনির্মাতা মহেশ ভাট এবং কিরণ ভাটের কন্যা। ১৯৮৯ সালে পিতা মহেশ ভাটের ড্যাডি টেলিভিশন চলচ্চিত্রে পূজা চরিত্রে উপস্থিতির মাধ্যমে অভিনয়ে তার আত্মপ্রকাশ ঘটে। এই কাজের জন্য তিনি লাক্স বর্ষসেরা নতুন মুখ বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার অর্জন করেন। পরবর্তীকালে আমির খানের বিপরীতে মহেশ ভাট পরিচালিত প্রণয়ধর্মী দিল হ্যায় কে মানতা নেহি (১৯৯১) চলচ্চিত্রের মাধ্যমে নিয়মিত অভিনয় শুরু করেন তিনি। তিনি মহেশ ভাটের বেশকয়েকটি চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে অভিনেত্রী হিসাবে বলিউড চলচ্চিত্র শিল্পে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। যার মধ্যে ১৯৯৯ সালে, জখম চলচ্চিত্রে দেশাই চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে বাংলা চলচ্চিত্র সাংবাদিক সমিতি পুরস্কার পুুরস্কার লাভ করেন।

প্রাথমিক জীবন[সম্পাদনা]

পূজা মহেষ ভাট ১৯৭২ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি ভারতের বম্বেতে (বর্তমানে মুম্বই) জন্মগ্রহণ করেন।[২] তার বাবা ভারতীয় চলচ্চিত্র পরিচালক মহেশ ভাট এবং মা কিরণ ভাট। বাবার দিক থেকে ভাট মূলত গুজরাতি এবং মায়ের দিক থেকে তিনি ব্রিটিশ, স্কটিশ, আর্মেনিয় ও বার্মি বংশদ্ভূত।[৩][৪][৫][৬] তিনি অভিনেত্রী সোনি রাজদানের সৎ কন্যা। তার ডাকনাম ভূত।[৭] ভারতীয় পরিচালক নানাভাই ভাট তার পিতামহ। তার ভাই চলচ্চিত্র অভিনেতা রাহুল ভাট। ভারতীয় লেখক শাহীন (জন্ম ১৯৮৮),[৮] এবং চলচ্চিত্র অভিনেত্রী আলিয়া ভাট তার সৎবোন।[৯][১০] অভিনেতা ইমরান হাশমী ও চলচ্চিত্র পরিচালক মোহিত সুরি তার চাচাতো ভাই এবং প্রযোজক মুকেশ ভাট তার চাচা।[১১]

কর্মজীবন[সম্পাদনা]

২০০৪ সালে পিতা মহেশ ভাট এবং অভিনেত্রী মল্লিকা শেরাওয়াতের সঙ্গে ভাট।

পূজা ভাটের টেলিভিশন পর্দায় অভিনয়ের সূচনা ঘটে সতেরো বছর বয়সে, ১৯৯৯ সালে মহেশ ভাট পরিচালিত নাট্যধর্মী ড্যাডি চলচ্চিত্রে পূজা চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে। এই চলচ্চিত্রে তিনি অনুপম খের অভিনীত এক মাতাল পিতার সাথে বিচ্ছিন্ন সম্পর্কের আত্ম-সন্ধানকারী কিশোরীর চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন। চলচ্চিত্রটি বক্স অফিসে সাফল্য অর্জন করতে ব্যর্থ হলেও, ভাট ৩৬তম ফিল্মফেয়ার পুরস্কার অনুষ্ঠানে লাক্স বর্ষসেরা নতুন মুখ বিভাগে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার অর্জন করেন।[১২]

১৯৯১ সালে রূপালি পর্দার ভাটের আত্মপ্রকাশ ঘটে তার মিউজিকাল হিট মহেশ ভাট পরিচালিত দিল হ্যায় কে মানতা নেহি চলচ্চিত্রের মাধ্যমে,[১০] যেট ছিল ফ্রাংক কাপরা। পরিচালিত অস্কারজয়ী ১৯৩৪ সালের মার্কিন প্রণয়ধর্মী হাস্যরস ইট হ্যাপেন্ড ওয়ান নাইট চলচ্চিত্রের পুননির্মাণ।

চলচ্চিত্রের তালিকা[সম্পাদনা]

অভিনেত্রী হিসেবে[সম্পাদনা]

সূত্র
dagger মুক্তি প্রতিক্ষিত চলচ্চিত্র নির্দেশ করে
double-dagger টেলিভিশন চলচ্চিত্র নির্দেশ করে
শিরোনাম বছর চরিত্র ভাষা টীকা
ড্যাডি ১৯৮৯ পূজা হিন্দি অভিনয়ে অভিষেক
দিল হ্যায় কে মানতা নেহি ১৯৯১ পূজা ধর্মচাঁদ চলচ্চিত্রে অভিষেক
সড়ক পূজা
সাতবা আসমান ১৯৯২ পূজা মালহোত্রা
জুনুন ড. নিতা ভি. চৌহান
জনম অঞ্জলী ভাট
প্রেম দিওয়ানে রাধা
স্যার ১৯৯৩ পূজা
ফির তেরি কাহানি ইয়াদ আয়ি পূজা
চোর অউর চাঁদ রীমা ডি. শেঠ
পহেলা নেশা মনিকা শার্মা
তড়িপার মোহিনীদেবী/নামকিন
নারাজ ১৯৯৪ সোনিয়া
ক্রান্তি ক্ষেত্র পূজা শার্মা
বয়ফ্রেন্ড
গুনেগার ১৯৯৫ পূজা ঠাকুর
হাম দোনো পিয়াঙ্কা সুরেন্দ্র গুপ্ত
অঙ্গরক্ষক পিয়াঙ্কা চৌধুরী/প্রিয়া
কল্লুরি বাসল ১৯৯৬ পূজা তামিল
চাহাত পূজা হিন্দি
খিলোনা
তামান্না ১৯৯৭ তামান্না আলী সাইদা
বর্ডার কাম্মো
ওয়ান প্লাস ওয়ান
কভি না কভি ১৯৯৮ টিনা
অঙ্গারে পূজা
জখম মিসেস. দেশাই
ইয়ে আশিকি মেরি অঞ্জু
ধুন্দ ১৯৯৯
এভরিবডি সেস আই'ম ফাইন! ২০০১ তানিয়া
সনম তেরি কসম ২০০৯ সীমা খান্না
সড়ক ২ ২০২০ ঘোষিত হবে চিত্রগ্রহণ

প্রযোজক হিশেবে চলচ্চিত্র তালিকা[সম্পাদনা]

চলচ্চিত্র বছর প্রযোজক পরিচালক উৎপাদন ডিজাইনার
তামান্না ১৯৯৭ হ্যাঁ না না
দুশমন ১৯৯৮ হ্যাঁ না না
জখম হ্যাঁ না না
সুর: দ্য মেলোডি অব লাইফ ২০০২ হ্যাঁ না না
জিস্‌ম ২০০৩ হ্যাঁ না হ্যাঁ
পাপ হ্যাঁ হ্যাঁ হ্যাঁ
রোগ ২০০৫ হ্যাঁ না না
হলিডে ২০০৬ হ্যাঁ হ্যাঁ না
Dhokha ২০০৭ না হ্যাঁ না
কাজরারে ২০১০ না হ্যাঁ না
জিস্‌ম ২ ২০১২ হ্যাঁ হ্যাঁ না
ক্যাবারে ২০১৯ হ্যাঁ না না

পুরস্কার ও স্বীকৃতি[সম্পাদনা]

বছর চলচ্চিত্র পুরস্কার বিভাগ ফল
১৯৯১ ড্যাডি ফিল্মফেয়ার পুরস্কার লাক্স বর্ষসেরা নতুন মুখ বিজয়ী
১৯৯৭ তামান্না জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অন্যান্য সামাজিক বিষয়ে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র বিজয়ী
১৯৯৯ জখম নার্গিস দত্ত পুরস্কার শ্রেষ্ঠ ফিচার চলচ্চিত্র বিজয়ী

আরো দেখুন[সম্পাদনা]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Pooja Bhatt"। cinemawale.com। ৩১ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৪-০৬ 
  2. AP/AFP/PTI/Agencies/Twitter/Movie stills (২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৩)। "Birthday Exclusive: Pooja Bhatt"Deccan Chronicle। ২২ নভেম্বর ২০১৫ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুলাই ২০১৯ 
  3. Bollywood Trade News Network (জুলাই ২০০৭)। "Tulip's one exciting girl to watch for!"GlamSham। ১১ আগস্ট ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০১৪ 
  4. Jha, Subhash K (২৩ মে ২০১৩)। "Pooja Bhatt auctions role for women's cause"Bollywood Hungama। ৯ আগস্ট ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০১৪ 
  5. Bhatt, Pooja (২১ নভেম্বর ২০১৩)। "My mother is Scottish, Burmese, Armenian, English. My father is half Brahmin, half Muslim & Soni is Half Kashmiri & half German."Twitter। ১৮ আগস্ট ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০১৪ 
  6. Bhatt, Pooja (১৩ আগস্ট ২০১৩)। "Did you know my maternal great-grandmother was Burmese? I now have the chance to celebrate my roots. Come join me!"Twitter। ১৮ আগস্ট ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৭ জুলাই ২০১৪ 
  7. "Biography"আইএমডিবি। ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০৪-০৬ 
  8. শর্মা, নেহা (২ মে ২০১০)। "Another Bhatt on the block" (ইংরেজি ভাষায়)। হিন্দুস্তান টাইমস। ১৭ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  9. জোশি ২০১৫, পৃ. ২৩৭।
  10. "Pooja Bhatt: Lesser known facts | The Times of India"দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া। ২ জুলাই ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুন ২০১৮ 
  11. সাহোনই, অনুভা (১৮ জানুয়ারি ২০১৩)। "The Saraansh of Mahesh Bhatt's life" (ইংরেজি ভাষায়)। দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়া। ১০ এপ্রিল ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  12. "Filmfare winners of the year 1991" (ইংরেজি ভাষায়)। ফিল্মফেয়ার। ১৯৯১। সংগ্রহের তারিখ ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ 

উৎস[সম্পাদনা]

  • জোশি, সুমিত (২০১৫)। "আলিয়া ভাট"। Bollywood Through Ages (ইংরেজি ভাষায়) (১ম সংস্করণ)। বেস্ট বুক রিড্‌স। পৃষ্ঠা ২৩৭। আইএসবিএন 9781311676696 

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]