প্রবেশদ্বার:বলিউড

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

ভূমিকা

বলিউড হচ্ছে ভারতের মহারাষ্ট্রের মুম্বাই (পূর্বে বোম্বে নামে পরিচিত) ভিত্তিক হিন্দি ভাষার চলচ্চিত্র শিল্পের জন্য জনপ্রিয়ভাবে ব্যবহৃত একটি অনানুষ্ঠানিক শব্দ। "বলিউড" নামটি একটি পোর্টম্যান্ট্, যেটি ভারতের বোম্বে এবং মার্কিন চলচ্চিত্র ইন্ডাস্ট্রি, হলিউড (বি (ওম্বে-এইচ) ওলিউড) থেকে উত্পন্ন। একটি শারীরিক স্থান হিসাবে হলিউডের মতো বলিউডেরও কোন অস্তিত্ব নেই। বলিউড হচ্ছে ভারতে বৃহত্তম চলচ্চিত্র পরিবেশক এবং বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম চলচ্চিত্র উৎপাদন কেন্দ্র।

বলিউডকে আনুষ্ঠানিকভাবে হিন্দি সিনেমা হিসাবে উল্লেখ করা হয়ে থাকে। এর চলচ্চিত্রের কথোপকথন বা সংলাপ সাধারণত নিরলংকার হিন্দিতে লেখা হয়ে থাকে, যা সর্বাধিক সম্ভাব্য শ্রোতারা বোঝে। সংলাপ ও গানগুলোতেও ভারতীয় ইংরেজির ক্রমবর্ধমান উপস্থিতি পূর্বের তুলনায় বৃদ্ধি পেয়েছে। বলিউডের চলচ্চিত্রগুলোর বেশিরভাগই সঙ্গীতধর্মী হয় এবং প্রত্যাশা করা হয় যে, সংগীত ও নৃত্য সংকলনের মাধ্যমে ভারতীয় এবং পাশ্চাত্য সংগীতের মিশ্রণে আকর্ষণীয় সংগীত এই সকল চলচ্চিত্রে উপস্থাপন করা হয়। পূর্বের তুলনায় বলিউডের কাহিনীগুলো অতিনাটকীয় হয়ে উঠেছে। এই সকল চলচ্চিত্রে প্রায়শই তারকাদের ত্রিকোণী প্রেম এবং ক্রুদ্ধ বাবা-মা, পারিবারিক বন্ধন, আত্মাহুতি, দুর্নীতিবাজ রাজনীতিবিদ, অপহরণকারী, কুমারী খলনায়ক, দীর্ঘস্থায়ী আত্মীয় এবং ভাগ্যবর্গের মাধ্যমে বিভক্ত ভাইবোন, নাটকীয় বিপর্যয় ভাগ্য এবং সুবিধাজনক কাকতালীয়তা লক্ষ্য করা যায়। বলিউড সিনেমার বিশ্বজুড়ে লক্ষ লক্ষ দর্শক উপভগ করে থাকে।

নির্বাচিত চলচ্চিত্র

Ashutosh Gowariker.jpg
লগান, আশুতোষ গোয়ারিকর রচিত এবং পরিচালিত ২০০১ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত হিন্দি ক্রীড়া চলচ্চিত্র। এটির প্রযোজক ছিলেন আমির খান, যিনি প্রধান চরিত্রে গ্রেসি সিংয়ের বিপরীতে অভিনয় করেছেন; পাশ্বচরিত্রে অভিনয় করেছেন ব্রিটিশ অভিনেতা রাচেল শেলি এবং পল ব্লাকথোরন২৫ কোটি (US$৩.৪৮ মিলিয়ন) বাজেটে নির্মিত চলচ্চিত্রটির দৃশ্য ধারণ করা হয়েছিল ভারতের ভূজের নিকটবর্তী একটি প্রাচীন গ্রামে। চলচ্চিত্রটি ব্রিটিশ রাজের ভিক্টোরিয় যুগের পটরভূমিতে নির্মাণ করা হয়েছিল এবং যেখানে এক অনুর্বর গ্রামের কৃষকরা তাদের শাসকদের দ্বারা আরোপিত উচ্চতর খাজনার দ্বারা নিপীড়িত হয়। কৃষিজমি অনুর্বর থাকায় তারা ব্রিটিশ শাসকদের করের হার হ্রাস করার দাবি জানালে ব্রিটিশরা একটি শর্তে বাজির প্রস্তার জানায়। যদি তাদের গ্রামের দল ক্রিকেট খেলায় ব্রিটিশ দলকে পরাজিত করে, তবে তিন বছরের জন্য তাদের কর বাতিল করা হবে। বাজিটি গ্রহণ করার পরে, গ্রামবাসীরা একটি বিদেশি খেলা শেখে এবং ফলস্বরূপ খেলার কঠোর পরিস্থিতির মুখোমুখি হয় যা তাদের গ্রামের ভাগ্য নির্ধারণ করবে। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে চলচ্চিত্রটি সমালোচকদের প্রশংসা ও পুরষ্কারের পাশাপাশি অনেক ভারতীয় চলচ্চিত্র পুরষ্কার লাভ করে। এটি শেষ্ঠ বিদেশী ভাষার চলচ্চিত্র বিভাগে একাডেমি পুরষ্কারের জন্য মনোনীত তৃতীয় হিন্দি ভাষার চলচ্চিত্র। ২০১০ সালে, এম্পায়ার ম্যাগাজিন তাদের "দ্য হান্ড্রেড বেস্ট ফিল্মস অব ওয়ার্ল্ড সিনেমা" তালিকায় চলচ্চিত্রটি #৫৫ তম স্থানে রেখেছিল। ২০১১ সালে, চলচ্চিত্রটি টাইম ম্যাগাজিনের বিশেষ "দ্য অল-টাইম টুয়েন্টফিাইভ বেস্ট স্পোর্স্ট ফিল্ম"-এ তালিকাভুক্ত করেছিল।

আপনি জানেন কি...

শ্রীদেবী

উপবিষয়শ্রেণী


নির্দিষ্ট কোন বিষয়শ্রেণীর উপবিষয়শ্রেণীগুলো দেখতে "+" চিহ্নে ক্লিক করুন। পূর্বাবস্থায় ফেরৎ যেতে "−" চিহ্নে ক্লিক করুন।

নির্বাচিত জীবনী

কারিনা কাপুর
কারিনা কাপুর (জন্ম: (১৯৮০-০৯-২১)২১ সেপ্টেম্বর ১৯৮০) একজন ভারতীয় বলিউড অভিনেত্রী। অভিনয় জীবনে কাপুর নয়টি মনোনয়নের মধ্যে ছয়টি ফিল্মফেয়ার পুরষ্কার পেয়েছেন, এবং এবং চলচ্চিত্রের বিভিন্ন ধারায় তার অভিনয়ের জন্য খ্যাতিমান হয়েছেন। অভিনয়শিল্পী পরিবারে জন্মগ্রহণ করা, কাপুর খুব অল্প বয়স থেকেই মিডিয়া স্পটলাইটের মুখোমুখি হয়েছিলেন, তবে ২০০০ সালে রিফিউজি চলচ্চিত্রের আগ পর্যন্ত তাকে অভিনয়ে দেখা যায় নি। তার মেলোড্রামা কাভি খুশি কাভি গাম... ২০০১ সালে বিদেশের বাজারে ভারতের সর্বাধিক উপার্জনকারী চলচ্চিত্রে পরিণত হয়েছে, এবং এখনও অবধি এটি তার অন্যতম বৃহত্তম ব্যবসায়িক সাফল্য। ধারাবাহিক পুনরাবৃত্ত ভূমিকার জন্য নেতিবাচক পর্যালোচনা পাওয়ার পরে, টাইপকাস্ট এড়াতে কাপুর আরো অধিক চাহিদাসম্পন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন এবং ফলস্বরূপ অভিনেত্রী হিসাবে বৃহত্তর বহুমুখিতা প্রদর্শনের জন্য সমালোচকদের দ্বারা স্বীকৃত হয়েছিল। চামেলি (২০০৪) চলচ্চিত্রে একজন যৌনকর্মীর ভূমিকায় অভিনয় তার কর্মজীবনে মোড় ঘুরয়িে দিয়েছিল। চলচ্চিত্রটি (এবং কাপুরের অভিনয়) সমালোচকদের দ্বারা মূলত ইতিবাচক পর্যালোচনা পেছেছিল এবং পাশাপাশি তিনি ফিল্মফেয়ার বিশেষ পুরস্কার লাভ করেছিলেন। ২০০৭ সালের জব উই মেট চলচ্চিত্রে গীত চরিত্রে অভিনয়ের জন্য তিনি ফিল্মফেয়ার শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী পুরস্কার পেয়েছিলেন। কাপুর থ্রি ইডিয়টস (২০০৯) নাটকে প্রধান নারী চরিত্রে অভিনয় করতে গিয়েছিলেন, যেটি মুক্তিকালে সর্বোচ্চ আয়কারী বলিউডের চলচ্চিত্রে পরিণত হয়েছিল।

নির্বাচিত চিত্র

বিষয়

বলিউড

পুরস্কার:ফিল্মফেয়ার পুরস্কারআন্তর্জাতিক ভারতীয় চলচ্চিত্র অ্যাকাডেমি পুরস্কারজাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারস্ক্রিন পুরস্কারপ্রোডিউসার্স গিল্ড ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডসস্টারডাস্ট পুরস্কারজি সিনে পুরস্কার • বিলুপ্ত: গ্লোবাল ইন্ডিয়ান ফিল্ম অ্যাওয়ার্ডসবলিউড চলচ্চিত্র পুরস্কার

সংস্থা এশিয়ান একাডেমি অব ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশনকেন্দ্রীয় চলচ্চিত্র অনুমোদন পর্ষদচলচ্চিত্র উৎসব অধিদপ্তরভারতীয় চলচ্চিত্র ও দূরদর্শন সংস্থানফিল্ম সিটিফক্স স্টার স্টুডিওসভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনসত্যজিৎ রায় চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন ইনস্টিটিউট

তালিকা: বলিউড চলচ্চিত্রসমূহের তালিকাচলচ্চিত্রের পরিবারবিদেশের বাজারে সর্বোচ্চ আয়কারী চলচ্চিত্রসর্বোচ্চ আয়কারী চলচ্চিত্রItem numbers

সম্পর্কিত প্রবেশদ্বার

সম্পর্কিত উইকিমিডিয়া

Wikinews-logo.svg
উইকিসংবাদে বলিউড
উন্মুক্ত সংবাদ উৎস

Wikiquote-logo.svg
উইকিউক্তিতে বলিউড
উক্তি-উদ্ধৃতির সংকলন

Wikisource-logo.svg
উইকিসংকলনে বলিউড
উন্মুক্ত পাঠাগার

Wikibooks-logo.png
উইকিবইয়ে বলিউড
উন্মুক্ত পাঠ্যপুস্তক ও ম্যানুয়াল

Wikiversity-logo.svg
উইকিবিশ্ববিদ্যালয়ে বলিউড
উন্মুক্ত শিক্ষা মাধ্যম

Commons-logo.svg
উইকিমিডিয়া কমন্সে বলিউড
মুক্ত মিডিয়া ভাণ্ডার

Wiktionary-logo.svg
উইকিঅভিধানে বলিউড
অভিধান ও সমার্থশব্দকোষ

Wikidata-logo.svg
উইকিউপাত্তে বলিউড
উন্মুক্ত জ্ঞানভান্ডার

Wikivoyage-Logo-v3-icon.svg
উইকিভ্রমণে বলিউড
উন্মুক্ত ভ্রমণ নির্দেশিকা