কাগিসো রাবাদা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
কাগিসো রাবাদা
KAGISO RABADA (15085792033).jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম কাগিসো রাবাদা
জন্ম (১৯৯৫-০৫-২৫) ২৫ মে ১৯৯৫ (বয়স ২৩)
জোহানেসবার্গ, গটেং,
দক্ষিণ আফ্রিকা
ব্যাটিংয়ের ধরন বামহাতি
বোলিংয়ের ধরন ডানহাতি ফাস্ট
ভূমিকা বোলার
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছর দল
২০১৩-২০১৪ গটেং
২০১৪-বর্তমান লায়ন্স
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই টি২০আই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৪ ১৮
রানের সংখ্যা ১৭২ ৪৯
ব্যাটিং গড় ১৪.৩৩ ৭.০০
১০০/৫০ –/– –/– ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ৪৮* ২২
বল করেছে ৪৮ ৭৮ ২,৭৪২ ৯৩৮
উইকেট ৬০ ২৫
বোলিং গড় ২.৬৬ ৩৯.৩৩ ২২.৩৩ ৩৩.৪৮
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট - - -
সেরা বোলিং ৬/১৬ ২/২৮ ৯/৩৩ ৬/১৬
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ০/– ০/– ৫/– ৪/–
উৎস: CricketArchive, ১১ জুলাই ২০১৫

কাগিসো রাবাদা (জন্ম: ২৫ মে, ১৯৯৫) জোহেন্সবার্গের গটেংয়ে জন্মগ্রহণকারী দক্ষিণ আফ্রিকার উদীয়মান ক্রিকেটার। দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলে খেলার পাশাপাশি ঘরোয়া ক্রিকেটে লায়ন্সের প্রতিনিধিত্ব করছেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ফাস্ট বোলার। পাশাপাশি বামহাতে ব্যাটিং করতে অভ্যস্ত তিনি।[১]

প্রারম্ভিক জীবন[সম্পাদনা]

ডিসেম্বর, ২০১৩ সালে সিএসএ প্রভিন্সিয়াল ওয়ান-ডে কম্পিটিশনে গটেংয়ের সদস্য হিসেবে বর্ডারের বিপক্ষে তার প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে।[২] ২০১৩ সালে ম্যাট্রিকুলেশন শেষ করে সেন্ট স্টিথিয়ান্স বয়েজ কলেজে অধ্যয়ন করছেন।

২০১৪ সালের আইসিসি অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে দক্ষিণ আফ্রিকা অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ঐ প্রতিযোগিতায় দক্ষিণ আফ্রিকা শিরোপা জয় করে। ওভারপ্রতি ৩.১০ রান দিয়ে ১৪ উইকেট নিয়ে প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী হন তিনি।[৩] এছাড়াও তিনি অস্ট্রেলিয়া এ-দলের বিপক্ষে প্রতিযোগিতার সেরা বোলিং পরিসংখ্যান গড়েন ৬/২৫ লাভ করে।[৪] এ অর্জনের ফলে তিনি প্রতিযোগিতার সর্বাপেক্ষো দ্রুততম ও ভয়ঙ্কর বোলার হিসেবে চিত্রিত করা হয়েছে।[৫] এরফলে লায়ন্স দল তাকে সানফয়েল সিরিজের শেষ দুই খেলায় অংশগ্রহণের জন্য তাকে অন্তর্ভুক্ত করে। দুই খেলায় অংশগ্রহণ করে ১৮৬ রান খরচায় তিনি ৭ উইকেট পান।[৬]

ফেব্রুয়ারি, ২০১৫ সালে ডলফিন্সের বিপক্ষে খেলায় ১০৫ রানের বিনিময়ে ১৪ উইকেট নেন। তন্মধ্যে প্রথম ইনিংসে পেয়েছিলেন ৯/৩৩ যা দক্ষিণ আফ্রিকার ইতিহাসে সেরা বোলিং পরিসংখ্যান।[৭]

খেলোয়াড়ী জীবন[সম্পাদনা]

৫ নভেম্বর, ২০১৪ তারিখে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে তার টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে।[৮]

জুলাই, ২০১৫ সালে বাংলাদেশ সফরে একদিনের আন্তর্জাতিক দলের সদস্য মনোনীত হন।[৯] ১০ জুলাই, ২০১৫ তারিখে বাংলাদেশ দলের বিপক্ষে তার ওডিআই অভিষেক ঘটে।[১০] মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত বৃষ্টিবিঘ্নিত ৪০ ওভারে খেলায় নির্ধারিত ৮ ওভারে ৬/১৬ লাভ করেন।[১১] এরফলে বাংলাদেশ দল ৩৬.৩ ওভারে ১৬০ রানে ইনিংস শেষ করে। পরবর্তীতে দক্ষিণ আফ্রিকা দল খুব সহজেই ৮ উইকেটে জয়লাভ করে। খেলায় তিনি দক্ষিণ আফ্রিকার ওডিআই ইতিহাসে দ্বিতীয় বোলার হিসেবে অভিষেকে হ্যাট্রিক করেন। এ অর্জনের ফলে তাইজুল ইসলামের পর দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে তিনি এ তালিকা যুক্ত হন।[১২][১৩] এছাড়াও ওডিআই ইতিহাসে অভিষেকে সেরা বোলিং করেন তিনি।[১৪] খেলায় তিনি ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার লাভ করেন।

অর্জনসমূহ[সম্পাদনা]

একদিনের আন্তর্জাতিকে ৫-উইকেট প্রাপ্তি[সম্পাদনা]

কাগিসো রাবাদা’র একদিনের আন্তর্জাতিকে ৫-উইকেট প্রাপ্তি
# রান খেলা প্রতিপক্ষ শহর/দেশ স্থান সাল ফলাফল
৬/১৬  বাংলাদেশ বাংলাদেশ ঢাকা, বাংলাদেশ শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়াম ২০১৫ জয়[১৫]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Player Profile: Kagiso Rabada"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৪ 
  2. "CSA Provincial One-Day Competition: Border v Gauteng at East London, 8 December 2013"। ESPNcricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৭-১০ 
  3. http://stats.espncricinfo.com/icc-under-19-world-cup-2014/engine/records/bowling/most_wickets_career.html?id=8909;type=tournament
  4. http://www.espncricinfo.com/icc-under-19-world-cup-2014/engine/match/700415.html
  5. "SA dominate team of the tournament"espncricinfo.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৭-১০ 
  6. "Sunfoil Series, 2013/14/Records/Most wickets"espncricinfo.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৭-১০ 
  7. "Kagiso Rabada's nine-for routs Dolphins"ESPN Cricinfo। ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৭-১০ 
  8. "South Africa tour of Australia (November 2014), 1st T20I: Australia v South Africa at Adelaide, Nov 5, 2014"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৫ নভেম্বর ২০১৪ 
  9. "De Villiers to miss Bangladesh Tests, Steyn rested for ODIs"। ESPNcricinfo। ২৭ মে ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১২ মে ২০১৫ 
  10. "South Africa tour of Bangladesh, 1st ODI: Bangladesh v South Africa at Dhaka, Jul 10, 2015"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৭-১০ 
  11. "Records - One-Day Internationals - Bowling records - Best figures in a innings on debut"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৭-১০ 
  12. "Kagiso Rabada becomes only second player in ODI history to take a hat-trick on international debut in South Africa's match against Bangladesh"metro.co.uk। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৭-১০ 
  13. "Rabada's record six-for sets up South Africa win"ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৭-১০ 
  14. "Rabada's record six-for sets up South Africa win"ESPNCricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১০ জুলাই ২০১৫ 
  15. "Kagiso Rabada claims hat-trick & best ODI figures on debut"bbc.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৭-১০ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]