হেইনরিখ ক্লাসেন

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
হেইনরিখ ক্লাসেন
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামহেইনরিখ ক্লাসেন
জন্ম (1991-07-30) ৩০ জুলাই ১৯৯১ (বয়স ২৯)
প্রিটোরিয়া, ট্রান্সভাল প্রদেশ, দক্ষিণ আফ্রিকা
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
ভূমিকাউইকেট-রক্ষক-ব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
একমাত্র টেস্ট
(ক্যাপ ৩৩৯)
১৯ অক্টোবর ২০১৯ বনাম ভারত
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ১২৫)
৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ বনাম ভারত
শেষ ওডিআই৭ মার্চ ২০২০ বনাম অস্ট্রেলিয়া
টি২০আই অভিষেক
(ক্যাপ ৭৫)
১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ বনাম ভারত
শেষ টি২০আই২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ বনাম অস্ট্রেলিয়া
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০১২ - বর্তমাননর্দার্নস
২০১৪ - বর্তমানটাইটান্স
২০১৮রাজস্থান রয়্যালস
২০১৮ডারবান হিট
২০১৯রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই টি২০আই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৭ ১১ ৭৩ ৭৬
রানের সংখ্যা ৪৯৩ ২৪৪ ৪,৪২০ ২,১৯২
ব্যাটিং গড় ৪১.০৮ ২৭.১১ ৪৪.২০ ৩৭.৭৯
১০০/৫০ ১/৩ ০/২ ১০/২০ ২/১৬
সর্বোচ্চ রান ১২৩* ৬৯ ২০১ ১২৭
বল করেছে ১৮ ৮৮ ১৬২
উইকেট
বোলিং গড় ২৫.০০ ৩১.৮০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ১/১২ ২/৩৮
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১৭/৩ ৮/০ ২৪১/১৮ ৮৮/১২
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৭ মার্চ, ২০২০

হেইনরিখ ক্লাসেন (ইংরেজি: Heinrich Klaasen; জন্ম: ৩০ জুলাই, ১৯৯১) ট্রান্সভাল প্রদেশের প্রিটোরিয়া এলাকায় জন্মগ্রহণকারী দক্ষিণ আফ্রিকান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার।[১] দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য তিনি। ২০১০-এর দশকের শেষার্ধ্ব থেকে দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করছেন।

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটে নর্দার্নস ও টাইটান্স এবং ভারতীয় ক্রিকেটে রাজস্থান রয়্যালস ও রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ উইকেট-রক্ষক-ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলছেন। ডানহাতে ব্যাটিং করে থাকেন তিনি।

ঘরোয়া ক্রিকেট[সম্পাদনা]

মেনলোপার্ক হাই স্কুলে অধ্যয়ন করেছেন তিনি। এরপর, প্রিটোরিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনো করেছেন। ২০১৫ সালের আফ্রিকা টি২০ কাপে নর্দার্নস ক্রিকেট দলের পক্ষে খেলার জন্যে মনোনীত হন।[২] ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের পক্ষে খেলেছেন তিনি। আগস্ট, ২০১৭ সালে টি২০ গ্লোবাল লীগের উদ্বোধনী আসরে নেলসন ম্যান্ডেলা বে স্টার্স দলের সদস্যরূপে অন্তর্ভূক্ত হন।[৩] তবে, অক্টোবর, ২০১৭ সালে ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা কর্তৃপক্ষ শুরুতে প্রতিযোগিতাটি স্থগিত করে ও পরবর্তীতে বাতিল করে দেয়।[৪]

২ এপ্রিল, ২০১৮ তারিখে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগে রাজস্থান রয়্যালসের পক্ষে যোগ দেন। তিনি স্টিভ স্মিথের স্থলাভিষিক্ত হয়েছিলেন।[৫] অক্টোবর, ২০১৮ সালে মজানসি সুপার লীগ টি২০ প্রতিযোগিতার প্রথম আসরে খেলার জন্যে ডারবান হিটের সদস্যরূপে অন্তর্ভূক্ত হন।[৬][৭]

ডিসেম্বর, ২০১৮ সালে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের নিলামে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর কর্তৃপক্ষ তাকে কিনে নেয়।[৮][৯] জুন, ২০১৯ সালে গ্লোবাল টি২০ কানাডা প্রতিযোগিতায় টরন্টো ন্যাশনালস ফ্রাঞ্চাইজ দলের পক্ষে খেলার জন্যে মনোনীত হন।[১০] জুলাই, ২০১৯ সালে ইউরো টি২০ স্ল্যাম ক্রিকেট প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী আসরে গ্লাসগো জায়ান্টসের পক্ষে খেলার জন্যে মনোনীত হন।[১১][১২] তবে, পরবর্তী মাসে ঐ প্রতিযোগিতাটি বাতিল করা হয়।[১৩]

সেপ্টেম্বর, ২০১৯ সালে মজানসি সুপার লীগ প্রতিযোগিতায় তশয়ান স্পার্তানস দলের পক্ষে খেলার জন্যে মনোনীত হন।[১৪] ২০১২ সালের আইপিএল নিলামকে ঘিরে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর থেকে অব্যাহতিপ্রাপ্ত হন।[১৫]

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট[সম্পাদনা]

২০১২ সাল থেকে হেইনরিখ ক্লাসেনের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান রয়েছে। ২০১২-১৩ মৌসুমে নর্দার্নসের পক্ষে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে তার আত্মপ্রকাশ ঘটে। প্রাদেশিক তিনদিনের কাপে ৪২.৫৮ গড়ে রান সংগ্রহ করেন। পরের গ্রীষ্মে ৫২.১০ গড়ে রান সংগ্রহের পর ৬২.২৫ গড়ে রান তুলেন। এরপর, ২০১৬-১৭ মৌসুমের বিশেষ প্রাধিকারপ্রাপ্ত ক্রিকেটে খেলার সুযোগ মেলে তার।

ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ সালে প্রথমবারের মতো ফ্রাঞ্চাইজে শতরানের ইনিংস খেলেন। প্রথম-শ্রেণীর শতককে প্রায় দ্বিগুণ করে ১৯৫ রানে নিয়ে যান। এরফলে, টাইটান্স দল ডলফিন্সকে প্রথম-শ্রেণীর প্রতিযোগিতায় পরাজিত করে। ঐ মৌসুমে সপ্তম সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকে পরিণত হন। ফলশ্রুতিতে, প্রথমবারের মতো দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট দলে খেলার জন্যে আমন্ত্রিত হন।

জুন, ২০১৮ সালে টাইটান্সের পক্ষে ২০১৮-১৯ মৌসুমে খেলার জন্যে মনোনীত হন।[১৬]

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট[সম্পাদনা]

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে একটিমাত্র টেস্ট, সতেরোটি একদিনের আন্তর্জাতিক ও এগারোটি টি২০আইয়ে অংশগ্রহণ করেছেন হেইনরিখ ক্লাসেন। ১৯ অক্টোবর, ২০১৯ তারিখে রাঁচিতে স্বাগতিক ভারত দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। এটিই তার একমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ ছিল। এরপর আর তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়নি। অন্যদিকে, ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ তারিখে কেপ টাউনে একই দলের বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে তার। ৭ মার্চ, ২০২০ তারিখে পচেফস্ট্রুমে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে সর্বশেষ ওডিআইয়ে অংশ নেন তিনি।

ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ সালে নিউজিল্যান্ড গমনার্থে তাকে দক্ষিণ আফ্রিকার টেস্ট দলে ঠাঁই দেয়া হয়। তাকে সংরক্ষিত উইকেট-রক্ষক হিসেবে দলে রাখা হয়েছিল। তবে, সিরিজের কোন টেস্টেই তাকে খেলানো হয়নি।[১৭]

ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ সালে সফররত ভারত দলের বিপক্ষে ওডিআই সিরিজ খেলার জন্যে তাকে দলের সদস্য করা হয়। তিনি আঘাতপ্রাপ্ত কুইন্টন ডি ককের স্থলাভিষিক্ত হয়েছিলেন।[১৮] ৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ তারিখে কেপ টাউনে অনুষ্ঠিত সিরিজের তৃতীয় দিবা-রাত্রির ওডিআইয়ে ভারতের বিপক্ষে তার অভিষেক ঘটে।[১৯] নিজস্ব দ্বিতীয় ওডিআইয়ে ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার লাভ করেন। সিরিজের চতুর্থ ওডিআইয়ে বৃষ্টিবিঘ্নিত খেলায় ২৭ বলে ৪৩ রান তুলে ভারতের বিপক্ষে জয়সূচক রান করেন।[২০]

একই মাসে ভারতের বিপক্ষে টি২০আই সিরিজে জঙ্কার ও ডালা’র সাথে তাকে দক্ষিণ আফ্রিকার সদস্য হিসেবে রাখা হয়।[২১] ১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ তারিখে জোহেন্সবার্গে ভারতের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টি২০আইয়ে তার টি২০আই অভিষেক পর্ব সম্পন্ন হয়।[২২] ঐ খেলায় তার দল পরাজয়বরণ করেছিল। ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ তারিখে প্রথমবারের মতো টি২০আইয়ে অর্ধ-শতরানের ইনিংস খেলেন। সফরকারী ভারতের বিপক্ষে সিরিজের দ্বিতীয় টি২০আইয়ে ডুমিনি’র সাথে তিনিও দলের ৬ উইকেটের বিজয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন। ৩০ বলে ৩টি চার ও ৭টি ছক্কা সহযোগে ৬৯ রান সংগ্রহ করেছিলেন তিনি।[২৩][২৪]

টেস্ট অভিষেক[সম্পাদনা]

ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ সালে সফরকারী অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে টেস্ট খেলায় অংশগ্রহণকল্পে উইয়ান মুল্ডারসহ তাকে দক্ষিণ আফ্রিকা দলে অন্তর্ভূক্ত করা হয়। তবে, ঐ সিরিজে তাকে খেলানো হয়নি।[২৫] আগস্ট, ২০১৯ সালে ভারত গমনার্থে তাকে টেস্ট দলে রাখা হয়। তিনি আঘাতপ্রাপ্ত রুডি সেকেন্ডের স্থলাভিষিক্ত হন।[২৬][২৭] ১৯ অক্টোবর, ২০১৯ তারিখে রাঁচিতে অনুষ্ঠিত সিরিজের প্রথম টেস্টে স্বাগতিক ভারতের বিপক্ষে টেস্ট অভিষেক পর্ব সম্পন্ন হয় তার।[২৮] ২৯ ফেব্রুয়ারি, ২০২০ তারিখে ওডিআইয়ে নিজস্ব প্রথম শতরানের ইনিংস খেলেন তিনি। সফরকারী অস্ট্রেলিয়া দলের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওডিআইয়ে তিনি অপরাজিত ১২৩ রান তুলে দলের ইনিংসকে ২৯১ রানে নিয়ে যেতে সহায়তা করেন।[২৯]

মূল্যায়ন[সম্পাদনা]

ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকার ন্যাশনাল একাডেমির কোচ শুক্রি কনরাড তার সম্পর্কে মন্তব্য করেন যে, এমএস ধোনি’র সমতুল্য তিনি।[৩০] সেপ্টেম্বর, ২০১৫ সালে তিনি বলেছিলেন যে, হেইনরিখ ক্লাসেন এ অবস্থানে বেশ ধীরলয়ে এগুচ্ছেন। এ মুহূর্তেও তাই। এমএস ধোনি’র তুলনায় বেশ দূর্বলমানের। তার মাঝে খেলার কোন গুণাবলী লক্ষ্য করা যায়নি ও প্রতিপক্ষ এ সুযোগ নিচ্ছে। খেলায় তিনি এগুতে চাচ্ছেন না ও এ কথাই আমি বলবো। অন্যদের তুলনায় বেশ কঠিন অবস্থানে রয়েছে।[৩০]

মারকুটে ব্যাটসম্যান ও উইকেট-রক্ষক হেইনরিখ ক্লাসেনের উত্থানকালে একই সময়ে কুইন্টন ডি কক দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে সকল স্তরের ক্রিকেট খেলতে থাকেন। ব্যাটিং ও গ্লাভস হাতে নিয়ে নিজেকে সর্বদাই পরিচিতি করার প্রয়াস চালান।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "Heinrich Klaasen"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৫ 
  2. Northerns Squad / Players – ESPNcricinfo. Retrieved 31 August 2015.
  3. "T20 Global League announces final team squads"T20 Global League। ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৮ আগস্ট ২০১৭ 
  4. "Cricket South Africa postpones Global T20 league"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১০ অক্টোবর ২০১৭ 
  5. "Heinrich Klaasen joins Royals – Rajasthan Royals"www.rajasthanroyals.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২ এপ্রিল ২০১৮ 
  6. "Mzansi Super League - full squad lists"Sport24। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৮ 
  7. "Mzansi Super League Player Draft: The story so far"Independent Online। সংগ্রহের তারিখ ১৭ অক্টোবর ২০১৮ 
  8. "IPL 2019 auction: The list of sold and unsold players"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  9. "IPL 2019 Auction: Who got whom"The Times of India। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  10. "Global T20 draft streamed live"Canada Cricket Online। সংগ্রহের তারিখ ২০ জুন ২০১৯ 
  11. "Eoin Morgan to represent Dublin franchise in inaugural Euro T20 Slam"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুলাই ২০১৯ 
  12. "Euro T20 Slam Player Draft completed"Cricket Europe। সংগ্রহের তারিখ ১৯ জুলাই ২০১৯ 
  13. "Inaugural Euro T20 Slam cancelled at two weeks' notice"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৪ আগস্ট ২০১৯ 
  14. "MSL 2.0 announces its T20 squads"Cricket South Africa। সংগ্রহের তারিখ ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  15. "Where do the eight franchises stand before the 2020 auction?"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৫ নভেম্বর ২০১৯ 
  16. "Multiply Titans Announce Contracts 2018-19"Multiply Titans। ১৬ জুন ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ জুন ২০১৮ 
  17. "Philander, Morkel return; wicketkeeper Klaasen called up"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ 
  18. "Finger injury rules Du Plessis out of India ODI and T20 Series"Cricket South Africa। সংগ্রহের তারিখ ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  19. "3rd ODI (D/N), India tour of South Africa at Cape Town, Feb 7 2018"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  20. "South Africa beat India in rain-shortened game to keep series alive"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  21. "South Africa call up Jonker, Dala and Klaasen for India T20Is"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  22. "1st T20I, India tour of South Africa at Johannesburg, Feb 18 2018"ESPN Cricinfo। ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  23. "Klaasen, Duminy clobber India as Proteas level series"Sport24। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  24. "Klaasen magic helps Proteas square T20 Series"Cricket South Africa। সংগ্রহের তারিখ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  25. "Klaasen, Mulder in Test squad to face Australia"ESPN Cricinfo। ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  26. "Heinrich Klaasen replaces Rudi Second for South Africa's Tests against India"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৭ আগস্ট ২০১৯ 
  27. "South Africa's Heinrich Klaasen hopeful of making first Test appearance in India series"International Cricket Council। সংগ্রহের তারিখ ১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  28. "3rd Test, ICC World Test Championship at Ranchi, Oct 19-23 2019"ESPN Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ১৯ অক্টোবর ২০১৯ 
  29. "Klaasen's unbeaten ton steers Proteas to 291"SA Cricket Mag। সংগ্রহের তারিখ ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০ 
  30. "Klaasen could be SA's 'Dhoni' – Conrad"Sport। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ডিসেম্বর ২০১৫ 

আরও দেখুন[সম্পাদনা]

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]