আবিদ আনোয়ার

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
সরাসরি যাও: পরিভ্রমণ, অনুসন্ধান
আবিদ আনোয়ার
চিত্র:Abid Anwar (আবিদ আনোয়ার).jpg
পেশা কবি, গীতিকার, সাহিত্যিক, বৈজ্ঞানিক, সম্পাদক
জাতীয়তা বাংলাদেশী
উল্লেখযোগ্য পুরস্কার বাংলা একাডেমী সাহিত্য পুরস্কার (২০১৩ - কবিতা), রাষ্ট্রপতি পদক (১৯৭৯ - বৈজ্ঞানিক গবেষণা ও কারিগরি প্রকাশনা), স্বাধীনতার রজত জয়ন্তী স্মারক পুরস্কার [সৈয়দ নজরুল ইসলাম পদক] (১৯৯৭ - সাহিত্যকর্ম), যুক্তরাষ্ট্রের ‘জাতীয় সাংবাদিকতা বিশেষজ্ঞ সমিতি’র সম্মানসূচক সদস্য পদ লাভ (১৯৮৭ - সাংবাদিকতা-সংক্রান্ত গবেষণা), কমনওয়েলথ পুরস্কার (২০০৫ এবং ২০০৮ - বাংলাদেশ বেতারের ইংরেজি স্ক্রিপ্টের জন্য)


আবিদ আনোয়ার বাংলাদেশের একজন কবি, প্রাবন্ধিক, গল্পকার, ও বেতার-টিভির তালিকাভুক্ত বিশেষ শ্রেণীর গীতিকার। তিনি ১৯৭১-এ বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে সসস্ত্র যোদ্ধা হিসেবে অংশগ্রহন করেছিলেন। বাংলা কবিতায় অবদানের জন্য ২০১৩ সালে বাংলা একাডেমী সাহিত্য পুরস্কার পান এই কবি[১]

জীবনবৃত্তান্ত[সম্পাদনা]

জন্মস্থান ও জন্মতারিখ : গ্রাম-চর আলগী, কটিয়াদী, কিশোরগঞ্জ, ২৪শে জুন ১৯৫০। পিতা : মোহাম্মদ আজিমউদ্দিন; মাতা : হাসিনা বেগম। শিক্ষা : মাধ্যমিক : কটিয়াদী হাই স্কুল (১৯৬৬); উচ্চ মাধ্যমিক : ঢাকা কলেজ (১৯৬৮); স্নাতক সম্মান (রসায়ন শাস্ত্র) : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (১৯৭১); স্নাতকোত্তর (থিসিস, রসায়ন শাস্ত্র) : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (১৯৭২); স্নাতকোত্তর (থিসিস, সাংবাদিকতা) : মিসৌরী বিশ্ববিদ্যালয়, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র (১৯৮৭)। পেশা : সাংবাদিকতা ও চাকরি। সম্পাদক, আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশ (আইসিডিডিআরবি), মহাখালী, ঢাকা।

প্রকাশিত গ্রন্থ ও সাহিত্যকর্ম[সম্পাদনা]

কবিতা[সম্পাদনা]

  • আটকে আছি মধ্যনীলিমায়, আগামী প্রকাশনী, ২০০৯
  • নির্বাচিত কবিতা, আগামী প্রকাশনী, ২০০৫
  • কাব্যসংসার, বিশাকা প্রকাশনী, ২০০৩
  • খড়বিচালির বৃক্ষজীবন, দিব্য প্রকাশ, ২০০১
  • স্বৈরিণীর ঘরসংসার, বিশাকা প্রকাশনী, ১৯৯৭ (দ্বিতীয় সংস্করণ, ১৯৯৮; তৃতীয় সংস্করণ, ২০০১)
  • মরা জোছনায় মধুচন্দ্রিমা, অনিন্দ্য প্রকাশন, ১৯৯২
  • প্রতিবিম্বের মমি, অনিন্দ্য প্রকাশন, ১৯৮৫।

প্রবন্ধ-গবেষণা[সম্পাদনা]

  • বাংলা কবিতার আধুনিকায়ন, আগামী প্রকাশনী, ১৯৯৭ (দ্বিতীয় সংস্করণ, ২০০৫)
  • চিত্রকল্প ও বিচিত্র গদ্য, আগামী প্রকাশনী, ২০০৫।

গল্প[সম্পাদনা]

  • তিন পাখনার প্রজাপতি, মাওলা ব্রাদ্রার্স, ২০০৬

শিশুসাহিত্য[সম্পাদনা]

  • মশার মেয়ে পুনপুনি, আগামী প্রকাশনী, ২০১২
  • সৃষ্টিছাড়া ত্রিশটি ছড়া, প্রাচ্যবিদ্যা প্রকাশনী, ১৯৯৯
  • আগল-ভাঙা পাগল ছড়া, অনিন্দ্য প্রকাশন, ১৯৯২।

সম্পাদনা[সম্পাদনা]

  • আহসান হাবীবের শ্রেষ্ঠ কবিতা (২০০০)।

শিল্পসাহিত্যবিষয়ক নিয়মিত/অনিয়মিত কলাম[সম্পাদনা]

  • মধ্যদিনের জানালা [আহসান হাবীব-সম্পাদিত দৈনিক বাংলার সাহিত্য সাময়িকী, ১৯৮১-৮২, নিয়মিত পাক্ষিক কিস্তিতে]
  • বাংলা কবিতার আধুনিকায়ন [আবুল হাসনাত-সম্পাদিত সংবাদ সাময়িকী, ১৯৯৬-৯৭, অনিয়মিত কিস্তিতে]

গীতরচনা[সম্পাদনা]

খোন্দকার নুরুল আলম, বশির আহমদ, সৈয়দ আব্দুল হাদি, আব্দুল জব্বার, অণুপ ভট্টাচার্য, সাবিনা ইয়াসমিন, সুবীর নন্দীসহ পঞ্চাশ দশকোত্তর বিখ্যাত শিল্পীদের কণ্ঠে শতাধিক গান প্রচারিত হচ্ছে।

পুরস্কার ও স্বীকৃতি[সম্পাদনা]

জাতীয়[সম্পাদনা]

  • বাংলা কবিতায় বিশেষ অবদানের জন্য বাংলা একাডেমী পুরস্কার (২০১৩)[২];
  • শিশু সাহিত্যে অবদানের জন্য সুকুমার রায় সাহিত্য পুরস্কার (২০০৬)
  • সাহিত্যকর্মের জন্য স্বাধীনতার রজত জয়ন্তী স্মারক পুরস্কার [সৈয়দ নজরুল ইসলাম পদক] (১৯৯৭)
  • বৃহত্তর ময়মনসিংহ সমিতির সংবর্ধনা (১৯৯৭)
  • সাহিত্যকর্মের জন্য রাইটার্স-এর স্মারক পদক ও সংবর্ধনা (১৯৯৬)
  • বৈজ্ঞানিক গবেষণা ও কারিগরি প্রকাশনার জন্য রাষ্ট্রপতি পদক (১৯৭৯);

আন্তর্জাতিক[সম্পাদনা]

  • বাংলাদেশ বেতারের প্রোফাইলভিত্তিক ইংরেজি স্ক্রিপ্ট রচনার জন্য কমনওয়েলথ পুরস্কার, ২০০৮
  • বাংলাদেশ বেতারের ডিজিটাইজেশন-সংক্রান্ত ইংরেজি স্ক্রিপ্ট রচনার জন্য কমনওয়েলথ পুরস্কার, ২০০৫
  • ইউএসএআইডি’র বিশেষজ্ঞ দল কর্তৃক প্রদত্ত ‘অ্যাবলেস্ট সায়েন্স জার্নালিস্ট ইন বাংলাদেশ’ খেতাব, ১৯৯২
  • যুক্তরাষ্ট্রের ‘জাতীয় সাংবাদিকতা বিশেষজ্ঞ সমিতি’র (National Journalism Scholarship Society of America - Kappa-Tau-Alpha) সম্মানসূচক সদস্য পদ লাভ (১৯৮৭)।

মুক্তিযুদ্ধে অবদান[সম্পাদনা]

আবিদ আনোয়ার ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ভারতের বিহারে অবস্থিত চাকুলিয়া ক্যাম্প থেকে বিশেষ কমান্ডো হিসেবে প্রশিক্ষণ নিয়ে ৩ নম্বর সেক্টরের অধীনে মুক্তিযুদ্ধ করেন। কিশোরগঞ্জ এলাকায় ধূলদিয়া রেলসেতু অপারেশন এবং ভাঙা সেতুর পাড়ে পরবর্তী যুদ্ধ পরিচালনায় তিনি প্রভূত সাফল্য প্রদর্শন করেন।

কিশোরগঞ্জ মহকুমা মুক্তিযোদ্ধা ক্যাম্পের প্রথমে সহধিনায়ক, এবং শেষে পূর্ণাঙ্গ অধিনায়িকের দায়িত্ব পান । এ কাজে তাঁর পূর্বসূরী ছিলেন পর্যায়ক্রমে ক্যাপ্টেন মতিউর রহমান ও লেফটেন্যান্ট সাদেক। [৩]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. দৈনিক জনকণ্ঠ, বাংলা একাডেমী সাহিত্য পুরস্কার ঘোষণা, স্টাফ রিপোর্টার, তারিখ: ১৯-০২-২০১৩
  2. প্রিয়.com, বাংলা একাডেমী সাহিত্য পুরস্কার ২০১২ পেলেন নয় জন, তারিখ: ১৮-০২-২০১৩
  3. দৈনিক প্রথম আলো, মুক্তিযোদ্ধার সংজ্ঞা ও সংখ্যা, আবিদ আনোয়ার, তারিখ: ৩১-১২-২০০৯

বহিঃসংযোগ[সম্পাদনা]