কানাডা

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
(Canada থেকে পুনর্নির্দেশিত)
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

স্থানাঙ্ক: ৬০° উত্তর ৯৫° পশ্চিম / ৬০° উত্তর ৯৫° পশ্চিম / 60; -95

কানাডা
কেন্দ্রে লাল ম্যাপল পাতাসহ উল্লম্ব ট্রাইব্যান্ড (লাল, সাদা, লাল)
পতাকা
নীতিবাক্যA Mari Usque Ad Mare  (লাতিন)
(বাংলা: "সমুদ্র থেকে সমুদ্র")
জাতীয় সঙ্গীত: "ও কানাডা"

রাজকীয় সঙ্গীত"গড সেভ দ্য কুইন"[১]
রাজধানীঅসুয়া
বৃহত্তম শহর টরন্টো
সরকারি ভাষাসমূহ
জাতিগোষ্ঠী(২০১৬)
ধর্ম
জাতীয়তাসূচক বিশেষণ কানাডিয়ান
সরকার ফেডারেল সংসদীয়
সাংবিধানিক রাজতন্ত্র[২]
 •  রাজা এলিজাবেথ টু
 •  গভর্নর জেনারেল জুলি পেয়েট
 •  প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডু
আইন-সভা সংসদ
 •  উচ্চকক্ষ সেনেট
 •  নিম্নকক্ষ হাউস অফ কমন্স
 •  মোট আয়তন  কিমি (২য়)
 বর্গ মাইল
 •  পানি (%) ৮.৯২
 •  মোট ভূপৃষ্টের আয়তন ৯০,৯৩,৫০৭ কিমি (৩৫,১১,০২৩ মা)
জনসংখ্যা
 •  ২০১৮ আনুমানিক ৩৭,০৬৭,০১১[৩] (৩৮তম)
 •  ২০১৬ আদমশুমারি ৩৫,১৫১,৭২৮[৪]
 •  ঘনত্ব ৩.৯২/কিমি (২২৮তম)
./বর্গ মাইল
মোট দেশজ উৎপাদন
(ক্রয়ক্ষমতা সমতা)
২০১৮ আনুমানিক
 •  মোট $১,৮৪,৭০০ কোটি[৫] (১৫তম)
 •  মাথা পিছু $৪৯,৭৭৫[৫] (২০তম)
মোট দেশজ উৎপাদন (নামমাত্র) ২০১৮ আনুমানিক
 •  মোট $১৭৯৮০০ কোটি[৫] (১০তম)
 •  মাথা পিছু $৪৮,৪৬৬[৫] (১৫তম)
জিনি সহগ (২০১২)৩১.৬[৬]
মাধ্যম · ২০তম[৭]
মানব উন্নয়ন সূচক (২০১৭)বৃদ্ধি ০.৯২৬[৮]
অতি উচ্চ · ১২তম
মুদ্রা কানাডিয়ান ডলার ($) (CAD)
তারিখ বিন্যাস বছর-মাস-দিন (খ্রিস্টাব্দ)[৯]
গাড়ী চালনার দিক ডান
কলিং কোড +১
ইন্টারনেট টিএলডি .ca

কানাডা (ইংরেজি: Canada) উত্তর আমেরিকার উত্তরাংশে অবস্থিত একটি দেশ। এটার দশটি প্রদেশ ও তিনটি অঞ্চল আটলান্টিক থেকে প্যাসিফিক এবং উত্তরে আর্কটিক সমুদ্র পর্যন্ত বিস্তৃত, যা এটিকে মোট আয়তনের দিক দিয়ে পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তর দেশে পরিণত করেছে।

কানাডার অধিকৃত ভূমি প্রথম বসবাসের জন্য চেষ্টা চালায় আদিবাসী জনগোষ্টিসমূহ। ১৫তম শতকের শুরুতে ইংরেজ এবং ফরাসি অভিযাত্রীরা আটলান্টিক উপকূল আবিষ্কার করে এবং পরে বসতি স্থাপনের উদ্যোগ নেয়। ফ্রান্স দীর্ঘ সাত বছরের যুদ্ধে পরাজয়ের ফলস্বরূপ ১৭৬৩ সালে উত্তর আমেরিকায় তাদের সব উপনিবাস ইংরেজদের কাছে ছেড়ে দেয়। ১৮৬৭ সালে, মৈত্রিতার মধ্য দিয়ে চারটি স্বায়ত্তশাসিত প্রদেশ নিয়ে দেশ হিসেবে কানাডা গঠন করা হয়। এর ফলে আরো প্রদেশ এবং অঞ্চল সংযোজনের পথ সুগম, এবং ইংল্যান্ড থেকে স্বায়ত্তশাসন পাওয়ার প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হয়। ১৯৮২ সালে জারীকৃত কানাডা অ্যাক্ট অনুসারে, দশটি প্রদেশ এবং তিনটি অঞ্চল নিয়ে গঠিত কানাডা সংসদীয় গণতন্ত্র এবং আইনগত রাজ্যতন্ত্র উভয়ই মেনে চলে। রাষ্ট্রের প্রধান রাণী দ্বিতীয় এলিজাবেথ। কানাডা দ্বিভাষিক (ইংরেজিফরাসি ভাষা দুটোই সরকারি ভাষা) এবং বহুকৃষ্টির দেশ।

ব্যুৎপত্তি[সম্পাদনা]

"কানাডা" নামটি সম্ভবত এসেছে সেন্ট লরেন্স ইরোকোয়াইয়ান (St. Lawrence Iroquoian) শব্দ "কানাটা" (kanata) থেকে, যার অর্থ "জেলেদের ক্ষুদ্র গ্রাম", "গ্রাম", অথবা "বসতি"। ১৫৩৫ সালের দিকে, বর্তমান ক্যুবেক শহরের বসবাসকারীরা অভিযাত্রী জ্যাক কার্তিয়ারকে (Jacques Cartier) স্টেইডাকোনা (Stadacona) গ্রামের দিকে পথনির্দশনের সুবিধার্থে শব্দটি ব্যবহার করেছিল । কার্তিয়ার 'কানাডা' শব্দটি ব্যবহার করেছিল শুধুমাত্র গ্রামটি চিহ্নিত করতেই নয়, বরং গ্রাম্য-প্রধান ডোন্নাকোনা (Donnacona) সম্পর্কিত সব কিছু নির্দেশ করতে। ১৫৪৫ সাল নাগাদ, ইউরোপের বই এবং মানচিত্রে এই অঞ্চলকে "কানাডা" হিসেবে নির্দেশিত করা শুরু হয়।

কানাডায় ফরাসি উপনিবেশকে "নব্য ফ্রান্স" (New France) বলা হত, যার বিস্তৃতি ছিল সেন্ট লরেন্স নদী থেকে গ্রেইট লেইকসের উত্তর উপকূল পর্যন্ত। পরবর্তীতে, ১৮৪১ সাল পর্যন্ত, এটি যথাক্রমে "উচ্চ কানাডা" এবং "নিম্ন কানাডা" নামক দুটি ইংরেজ উপনিবেশে বিভক্ত থাকে। কানাডা অ্যাক্ট ১৯৮২ অনুসারে, "কানাডা"ই একমাত্র আইনগত এবং দ্বিভাষিক নাম। ১৯৮২ সালে সরকারী ছুটি 'ডোমিনিয়ান ডে' কে পরিবর্তন করে 'কানাডা ডে' করা হয়।

রাজনীতি[সম্পাদনা]

কানাডা একটি ফেডারেশন যাতে সংসদীয় গণতন্ত্রভিত্তিক সরকারব্যবস্থা এবং একটি সাংবিধানিক রাজতন্ত্র প্রচলিত। কানাডার সরকার দুই ভাগে বিভক্ত। কেন্দ্রীয় সরকার এবং প্রাদেশিক বা আঞ্চলিক সরকার। প্রশাসনিক অঞ্চলগুলির তুলনায় প্রদেশগুলিতে স্বায়ত্তশাসনের পরিমাণ বেশি। কানাডার বর্তমান সংবিধান ১৯৮২ সালে রচিত হয়। এই সংবিধানে পূর্বের সাংবিধানিক আদেশগুলি একটিমাত্র কাঠামোয় একত্রিত করা হয় এবং এতে অধিকার ও স্বাধীনতার উপর একটি চার্টার যোগ করা হয়। এই সংবিধানেই প্রথম কানাডার নিজস্ব স্থানীয় সরকারকে তাঁর সংবিধানের উপর পূর্ণ ক্ষমতা প্রদান করা হয়। পূর্বে কানাডা ১৮৬৭ সালে প্রণীত ব্রিটিশ উত্তর আমেরিকা অধ্যাদেশবলে পরিচালিত হত[১০] এবং এতে ও এর পরে প্রণীত আইনসমূহে ব্রিটিশ সরকারকে কিছু সাংবিধানিক ক্ষমতা প্রদান করা হয়েছিল।

ভূগোল[সম্পাদনা]

আয়তনের বিচারে কানাডা বিশ্বের ২য় বৃহত্তম রাষ্ট্র। এটি উত্তর আমেরিকা মহাদেশের প্রায় ৪১% নিয়ে গঠিত। কানাডা হচ্ছে পৃথিবীর দ্বিতীয় বৃহত্তম এবং শীতলতম দেশ। এই দেশের জলবায়ুতে গ্রীষ্মকালে হালকা ভ্যাপসা ঠান্ডা, ভিজা কুয়াশা (কিছুসময়ে গরম রৌদ্রসম্পন্ন), শীতকালে ভীষণ ঠান্ডা, বরফাচ্ছন্ন, শুষ্ক এবং তুষারপাত ইত্যাদি দ্বারা থাকে। এ দেশে প্রতিদিন আর্কটিক বরফাচ্ছন্নের দ্বারা শৈত্যপ্রবাহ সৃষ্টি হয়। এই জলবায়ুটি রাশিয়ার তুলনায় সমতুল্য। এই দেশে রাশিয়ার জলবায়ুর মত শৈত্যপূর্ণ এবং হিমশীতল। এই দেশে বছরে ৮ মাস বরফাচ্ছন্ন থাকে। বরং এদেশে থাকাটা কিছু অনুকূল আবার কিছু প্রতিকুল আছে এবং মানুষ ঠান্ডায় অভ্যস্ত।

অর্থনীতি[সম্পাদনা]

কানাডা বিশ্বের সবচেয়ে ধনী দেশগুলির একটি। দেশটি অর্গানাইজেশন ফর ইকোনমিক কোঅপারেশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (ওইসিডি) এবং জি৮ গ্রুপের সদস্য। অন্যান্য উন্নতদেশগুলির মত কানাডার অর্থনীতির সিংহভাগ সেবামূলক শিল্প নিয়ে গঠিত। প্রায় তিন চতুর্থাংশ কানাডাবাসী কোন না কোন সেবা শিল্পের সাথে যুক্ত আছেন। কাঠ ও খনিজ তেল আহরণ শিল্প কানাডার প্রধানতম দুইটি ভারী শিল্প। এছাড়া দক্ষিণ ওন্টারিও-কে কেন্দ্র করে একটি উৎপাদন শিল্পব্যবস্থা গড়ে উঠেছে। এগুলির মধ্যে মোটরযান উৎপাদন শিল্প প্রধানতম।

ভাষা[সম্পাদনা]

ইংরেজি ভাষাফরাসি ভাষা যৌথভাবে কানাডার সরকারি ভাষা। কানাডার কেবেক (Quebec) প্রদেশে ফরাসি ভাষা প্রাদেশিক সরকারি ভাষা। আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে সাধারণত ইংরেজি ভাষা ব্যবহার করা হয়। এছাড়াও বহু ইউরোপীয় অভিবাসী ভাষার প্রচলন আছে। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য তিনটি জার্মান ধর্মীয় সম্প্রদায়ের ভাষা --- হাটারীয়, মেনোনীয়, এবং পেনসিলভেনীয়। কানাডার প্রায় দেড় লক্ষ আদিবাসী আমেরিকান ৭০টিরও বেশি ভাষাতে কথা বলে। এই স্থানীয় ভাষাগুলির মধ্যে ব্ল্যাকফুট, চিপেউইয়ান, ক্রে, ডাকোটা, এস্কিমো, ওজিবওয়া উল্লেখযোগ্য। এখানকার স্থানীয় প্রধান প্রধান ভাষাপরিবারের মধ্যে আছে আলগোংকিন, আথাবাস্কান, এস্কিমো-আলেউট, ইরোকোইয়ান, সিউয়ান এবং ওয়াকাশান ভাষাপরিবার। এছাড়াও অনেক বিচ্ছিন্ন ভাষাও রয়েছে।

সামরিক বাহিনী[সম্পাদনা]

বর্তমান কানাডীয় সামরিক বাহিনী ১৯৬৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এটিতে এখন প্রায় ৬২ হাজার সদস্য সক্রিয় আছেন। রিজার্ভে আছেন ২৫ হাজার সদস্য, যার মধ্যে ৪ হাজার কানাডীয় রেঞ্জার্সও আছেন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. D. Michael Jackson (২০১৩)। The Crown and Canadian Federalism। Dundurn। পৃষ্ঠা 199। আইএসবিএন 978-1-4597-0989-8। এপ্রিল ১২, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা 
  2. Hail, M; Lange, S (ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১০)। "Federalism and Representation in the Theory of the Founding Fathers: A Comparative Study of US and Canadian Constitutional Thought"। Publius: The Journal of Federalism40 (3): 366–388। doi:10.1093/publius/pjq001জেস্টোর 40865314 
  3. Statistics Canada (জুন ১৪, ২০১৮)। "Population estimates quarterly"। সংগ্রহের তারিখ জুন ১৪, ২০১৮ 
  4. Statistics Canada (ফেব্রুয়ারি ৮, ২০১৭)। "Population size and growth in Canada: Key results from the 2016 Census"। ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ফেব্রুয়ারি ৮, ২০১৭ 
  5. "World Economic Outlook Database, October 2017, Canada"International Monetary Fund। এপ্রিল ২০১৮। মার্চ ২০, ২০১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ২৯, ২০১৮ 
  6. "Gini coefficients before and after taxes and transfers: In the late 2000s"। OECD। আগস্ট ১২, ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মে ২১, ২০১৭ 
  7. "OECD Economic Surveys"। OECD। আগস্ট ১২, ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ মে ২১, ২০১৭ 
  8. "2017 Human Development Report"। United Nations Development Programme। ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৮ 
  9. ISO 8601 is the official date format of the Government of Canada: Translation Bureau, Public Works and Government Services Canada (১৯৯৭)। "5.14: Dates"The Canadian style: A guide to writing and editing (Rev. সংস্করণ)। Toronto: Dundurn Press। পৃষ্ঠা 97। আইএসবিএন 978-1-55002-276-6  The dd/mm/yy and mm/dd/yy formats also remain in common use; see Date and time notation in Canada.
  10. THE Constitution Act, 1867, s. 6.