২০১২–১৩ বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের শ্রীলঙ্কা সফর

উইকিপিডিয়া, মুক্ত বিশ্বকোষ থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
২০১২–১৩ বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের শ্রীলঙ্কা সফর
Flag of Sri Lanka.svg
শ্রীলঙ্কা
Flag of Bangladesh.svg
বাংলাদেশ
তারিখ ৩ মার্চ ২০১৩ – ৩১ মার্চ ২০১৩
অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস মুশফিকুর রহিম
টেস্ট সিরিজ
ফলাফল ২-ম্যাচের সিরিজ শ্রীলঙ্কা ১–০ এ জয়ী হয়
সর্বাধিক রান কুমার সাঙ্গাকারা (৪৪১) মুশফিকুর রহিম (২৪৭)
সর্বাধিক উইকেট রঙ্গনা হেরাথ (১৪) সোহাগ গাজী (৭)
সিরিজ সেরা কুমার সাঙ্গাকারা (শ্রীলঙ্কা)
একদিনের আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ৩-ম্যাচের সিরিজ ১–১ এ ড্র হয়
সর্বাধিক রান তিলকরত্নে দিলশান (২৪৮) তামিম ইকবাল (১১২)
সর্বাধিক উইকেট অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস (৪) আব্দুর রাজ্জাক (৫)
সিরিজ সেরা তিলকরত্নে দিলশান (শ্রীলঙ্কা)
টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক সিরিজ
ফলাফল ১-ম্যাচের সিরিজ শ্রীলঙ্কা ১–০ এ জয়ী হয়
সর্বাধিক রান কুশল পেরেরা (৬৪) মোহাম্মদ আশরাফুল (৪৩)
সর্বাধিক উইকেট অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস (২) মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ (১)

বাংলাদেশ ক্রিকেট দল শ্রীলঙ্কায় ২০১৩ সালের ৩ মার্চ থেকে ৩১ মার্চ পর্যন্ত সফর করে। এ সফরে শ্রীলঙ্কা দলের সাথে ২টি টেস্ট, ৩টি একদিনের আন্তর্জাতিক (ওডিআই) এবং ১টি টুয়েন্টি২০ আন্তর্জাতিক (টি২০আই) খেলা অনুষ্ঠিত হয়।[১]

দলের সদস্যবৃন্দ[সম্পাদনা]

টেস্ট ওডিআই টি২০আই
 শ্রীলঙ্কা  বাংলাদেশ  শ্রীলঙ্কা [২]  বাংলাদেশ [৩]  শ্রীলঙ্কা [৪]  বাংলাদেশ

প্রস্তুতিকালীন খেলা[সম্পাদনা]

প্রথম শ্রেণীর ম্যাচ

৩-৫ মার্চ
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা ডেভেলপমেন্ট ইমারজিং দল
বাংলাদেশ বাংলাদেশ একাদশ
৪১০ (৯৩.১ ওভার)
কিথুরুয়ান ভিতানাগে ১৬৮* (১৬৫)
সোহাগ গাজী ৫/১০৪ (৩১ ওভার)
৪৭৯ (৯৭.৩ ওভার)
মোহাম্মদ আশরাফুল ১০২ (১৫১)
আশেন সিলভা ৩/৭ (২.৩ ওভার)
ম্যাচ ড্র
ওয়াইনওয়াত্তা স্টেডিয়াম, মাতারা
আম্পায়ার: মাহিন্দ্রা কোত্তাহাচ্চাই এবং সেনা নাদিওইরা
  • শ্রীলঙ্কা ডেভেলপমেন্ট ইমারজিং দল টসে জয়ী হয় এবং ব্যাট করার সিন্ধান্ত নেয়।

টেস্ট সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম টেস্ট[সম্পাদনা]

৮-১২ মার্চ
স্কোরকার্ড
৫৭০/৪ডিক্লে (১৩৫ ওভার)
লাহিরু থিরিমানে ১৫৫* (২৫৬)
সোহাগ গাজী ৩/১৬৪ (৫০ ওভার)
৬৩৮ (১৯৬ ওভার)
মুশফিকুর রহিম ২০০ (৩২৮)
তিলকরত্নে দিলশান ২/৭৫ (২৬ ওভার)
৩৩৫/৪ডিক্লে (৮৩ ওভার)
তিলকরত্নে দিলশান ১২৬ (১৯০)
মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ৩/৭০ (২০ ওভার)
৭০/১ (২২ ওভার)
জহুরুল ইসলাম ৪১ (৭৩)
সামিন্দা ইরাঙ্গা ১/১০ (৩ ওভার)
ম্যাচ ড্র
গালে আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম, গালে
আম্পায়ার: রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ (ইংল্যান্ড) এবং নাইজেল লং (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: মুশফিকুর রহিম (বাংলাদেশ)

২য় টেস্ট[সম্পাদনা]

১৬-২০ মার্চ
স্কোরকার্ড
২৪০ (৮৩.৩ ওভার)
মমিনুল হক ৬৪ (৯৮)
রঙ্গনা হেরাথ ৫/৬৮ (২৮.৩ ওভার)
৩৪৬ (১১১.৩ ওভার)
কুমার সাঙ্গাকারা ১৩৯ (২৮৯)
সোহাগ গাজী ৩/১১১ (৩৯ ওভার)
২৬৫ (১০০.৪ ওভার)
তামিম ইকবাল ৫৯ (১০৭)
রঙ্গনা হেরাথ ৭/৮৯ (৩৬ ওভার)
১৬০/৩ (৪১.৪ ওভার)
তিলকরত্নে দিলশান ৫৭ (৭৩)
রবিউল ইসলাম ২/৪২ (১১ ওভার)
শ্রীলঙ্কা ৭ উইকেটে জয়ী
প্রেমাদাসা স্টেডিয়াম, কলম্বো
আম্পায়ার: রিচার্ড ইলিংওয়ার্থ (ইংল্যান্ড) এবং নাইজেল লং (ইংল্যান্ড)
ম্যাচসেরা: রঙ্গনা হেরাথ (শ্রীলঙ্কা )
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয় এবং ফিল্ডিং করার সিন্ধান্ত নেয়।

ওডিআই সিরিজ[সম্পাদনা]

১ম ওডিআই[সম্পাদনা]

২৩ মার্চ
১৪:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
বাংলাদেশ 
২৫৯/৮ (৫০ ওভার)
 শ্রীলঙ্কা
২৩৮/২ (৩৫.৪ ওভার)
তিলকরত্নে দিলশান ১১৩* (১০৮)
রুবেল হোসেন ১/৪৪ (৫ ওভার)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয় এবং ফিল্ডিং করার সিন্ধান্ত নেয়।
  • বাংলাদেশের পক্ষে জিয়াউর রহমানের ওডিআই অভিষেক হয়।
  • ফ্লাডলাইটের সমস্যার কারণে শ্রীলঙ্কার ইনিংসে ৪১ ওভারে ২৩৮ রানের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়।

২য় ওডিআই[সম্পাদনা]

২৫ মার্চ
১৪:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
৩৩/০ (৫ ওভার)
কুসাল জায়নাথ পেরেরা ১৮ (২১)
জিয়াউর রহমান ০/৯ (২ ওভার)
ফলাফল হয়নি
মহিন্দ রাজাপক্ষ আন্তর্জাতিক স্টেডিয়াম, হাম্বানতোতা
আম্পায়ার: নাইজেল লং (ইংল্যান্ড) এবং তাইরন বিজেবর্ধেনে (শ্রীলঙ্কা)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয় এবং ফিল্ডিং করার সিন্ধান্ত নেয়।
  • ম্যাচের প্রথম ইনিংসে পাঁচ ওভার পরে বৃষ্টিজনিত কারণে খেলা থেমে যাওয়ার পর পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়।

৩য় ওডিআই[সম্পাদনা]

২৮ মার্চ
১৪:৩০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
৩০২/৯ (৫০ ওভার)
 বাংলাদেশ
১৮৪/৭ (২৬ ওভার)
  • শ্রীলঙ্কা টসে জয়ী হয় এবং ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয়।
  • বৃষ্টিজনিত কারণে বাংলাদেশের ইনিংসে ২৭ ওভারে ১৮৩ রানের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়।

টি২০আই সিরিজ[সম্পাদনা]

একমাত্র টি২০আই[সম্পাদনা]

৩১ মার্চ
১৯:০০ (দিন/রাত)
স্কোরকার্ড
শ্রীলঙ্কা 
১৯৮/৫ (২০ ওভার)
 বাংলাদেশ
১৮১/৭ (২০ ওভার)
কুশাল পেরেরা ৬৪ (৪৪)
মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ১/২৮ (৪ ওভার)
  • বাংলাদেশ টসে জয়ী হয় এবং ফিল্ডিং করার সিন্ধান্ত নেয়।
  • শ্রীলঙ্কার পক্ষে অ্যাঞ্জেলো পেরেরা এবং বাংলাদেশের পক্ষে শামসুর রহমানের টি২০আই অভিষেক হয়।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. "বাংলাদেশের সফর মার্চে"। ১৩ এপ্রিল ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ জানুয়ারি ২০১৩ 
  2. "বাংলাদেশের বিপক্ষে শ্রীলংকার ওয়ানডে দল ঘোষণা"। টাইমস ওয়ার্ল্ড ২৪.কম। ১৯ মার্চ ২০১৩। ৫ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৯ মার্চ ২০১৩ 
  3. "ওয়ানডেতেও নেই মাশরাফি, দলে আশরাফুল"। প্রথম আলো। ১৩ মার্চ ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১৩ মার্চ ২০১৩ 
  4. "লঙ্কান টি-টোয়েন্টি দলে নতুনের ছড়াছড়ি"। প্রথম আলো। ২৮ মার্চ ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মার্চ ২০১৩ 

টেমপ্লেট:বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট সিরিজ